Home /News /north-bengal /
বাগরাকোটে নেই রেলগেট বা উড়ালপুল, আন্ডারপাস, ভোগান্তি মানুষের, চাপানউতর রাজনীতিতে

বাগরাকোটে নেই রেলগেট বা উড়ালপুল, আন্ডারপাস, ভোগান্তি মানুষের, চাপানউতর রাজনীতিতে

রেলের আইনি জটে বাগরাকোটে রেলগেট করা সম্ভব নয়। আন্ডারপাস করতে গেলে মাটির নীচে ড্রেনের সমস্যা হতে পারে। তাই বিকল্প উড়ালপুলেরই দাবি উঠছে।

  • Share this:

#বাগরাকোট: সমস্যাটা নতুন নয়। দীর্ঘদিনের ব্যাধি। কিন্তু নিরাময়ে উদ্যোগী নয় রেল। এমনই অভিযোগে সরব স্থানীয় বাসিন্দা থেকে বিরোধীরা। আর তার জেরেই জীবনের ঝুঁকি নিয়েই চলছে পারাপার। স্কুল ও কলেজের পড়ুয়া থেকে সাধারণ বাসিন্দারা। নইলে ঘুরপথে চলছে যোগাযোগ। এক মিনিটের রাস্তা পারাপারের জন্যে নষ্ট হচ্ছে ১৫ থেকে ২০ মিনিট সময়। সঙ্গে পোহাতে হচ্ছে যানজটের ঝক্কি। নেই রেলগেট।

ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থাকে মালগাড়ি বা দূরপাল্লার যাত্রীবাহী ট্রেন। আর দুই কামরার সংযোগকারী একচিলতে ফাঁক দিয়ে চলছে পারাপার। কখনও বা ট্রেনের চাকা গলিয়ে! সময় মতো স্কুল, কলেজে পৌঁছতে হবে যে। আবার বা কাউকে অফিস, আদালতে ঢুকতে হবে। ভারতনগর, দেশবন্ধুপাড়া, এনজেপির সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগের মাধ্যম এই বাগরাকোট। শিলিগুড়ি টাউন স্টেশন সংলগ্ন এলাকা। প্রতিদিন ব্যস্ত সময়ে হাজার হাজার মানুষের ভরসা এই বাগরাকোট।

আরও পড়ুন: গঙ্গাভাঙন ঠেকাতে বরাদ্দ ১৭ কোটি, মালদহের মানিকচকে ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শনে প্রশাসনিক কর্তারা

বাম আমল থেকেই এখানে বিকল্প ব্যবস্থার দাবি উঠে আসছে। বহু আন্দোলন করেছে বাম, তৃণমূল। কিন্তু সমস্যা সেই তিমিরেই! ভোগান্তি কমাতে আবারও বিকল্প ব্যবস্থার দাবী জোরালো হচ্ছে শহরে। সে উড়ালপুলই হোক কিংবা আণ্ডারপাস। দ্রুত সমস্যার সমাধানের দাবীতে সরব হয়েছেন স্থানীয়রাও। এর আগে প্রাক্তন পুরমন্ত্রী অশোক ভট্টাচার্যের আমলে উদ্যোগ দেখা গিয়েছিল। সিপিএম নেতা অশোক ভট্টাচার্য জানান, অবিলম্বে এই সমস্যার সমাধানে এগিয়ে আসতে হবে রাজ্য এবং কেন্দ্রকে।

আরও পড়ুন: ভাঙনে গঙ্গাপ্রাপ্তি বিদ্যালয়ের, মালদহে একটু একটু করে নদীর গ্রাসে তলিয়ে যাচ্ছে স্কুলবাড়ি

শিলিগুড়ি পুরসভার ডেপুটি মেয়র রঞ্জন সরকার জানান, এখানকার বিধায়ক, সাংসদ বিজেপি-র। ওঁদের উদ্যোগ নিতে হবে। এসজেডিএ অর্থ বরাদ্দ করার কথা আগেই বলেছে। রেলকে এগিয়ে আসতে হবে। আলোচনার জন্যে পুরসভাও তৈরী। অন্যদিকে বিজেপি বিধায়ক শঙ্কর ঘোষ বলেন, ''টাউন স্টেশনের সংস্কার এবং আধুনিকীকরণের জন্য প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। এই বিষয়টি নিয়েও রেলমন্ত্রীর দ্বারস্থ হতে হবে। কথাও বলব।''

প্রসঙ্গত রেলের আইনি জটে বাগরাকোটে রেলগেট করা সম্ভব নয়। আন্ডারপাস করতে গেলে মাটির নীচে ড্রেনের সমস্যা হতে পারে। তাই বিকল্প উড়ালপুলেরই দাবি উঠছে।

Published by:Teesta Barman
First published:

Tags: Siliguri News

পরবর্তী খবর