corona virus btn
corona virus btn
Loading

পয়লা জুলাই থেকে খুলছে পাহাড় ! ডাকছে টাইগার হিল !

পয়লা জুলাই থেকে খুলছে পাহাড় ! ডাকছে টাইগার হিল !
photo source collected

পয়লা জুলাই থেকে খুলছে টাইগার হিল, রক গার্ডেন, গঙ্গামায়া পার্ক! প্রতিটি কেন্দ্রেই পর্যটকদের প্রবেশের ক্ষেত্রেও মানা হবে সোশ্যাল ডিস্টেনসিং। নজরদারি চালাবে প্রশাসন।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: ডাকছে পাহাড়! হ্যাঁ, প্রায় সাড়ে তিন মাস বাদে ডাক দিয়েছে শৈলরানি! কোভিড 19 , লকডাউনের আবহে পাহাড় ছিল একাকী! মন খারাপ ছিল ওখানকার বাসিন্দাদের! অতিথিদের যে দেখা নেই! ম্যালে ভিড় নেই! ক্যাভেন্টার্সের গরম চায়ের কাপে চুমুক নেই! এক্কেবারে নির্জনতায় ছিল শৈলশহর! আনলক ওয়ানের আবহেই ফের ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা। পর্যটন শিল্পকে ধীরে ধীরে নিজের চেনা মেজাজে ফিরিয়ে আনার প্রয়াস। ধাপে ধাপে সবই যে খুলছে। তাহলে আর পাহাড় ঘুমিয়ে থাকবে কেন?

গোর্খাল্যান্ড টেরিটোরিয়াল এডমিনিস্ট্রেশন বৈঠকে বসে হোটেল মালিক, ট্যুর অপারেটার্স, ট্র‍্যাভেল অপারেটার্স, বিভিন্ন সংগঠন, রাজনৈতিক দল এবং পুলিশ ও প্রশাসনের কর্তাদের নিয়ে। সেখানেই ঠিক হয়েছে পয়লা জুলাই থেকে খুলছে পাহাড়! অতিথিদের বরণ করে নেওয়ার প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে। তবে সব কিছুই হবে রাজ্য ও কেন্দ্রের কোভিড প্রোটোকল মেনে। মাস্ক পড়া যেমন বাধ্যতামূলক প্রতিটি পর্যটকেরই। তেমনই হোটেলগুলোতেও থাকবে স্যানিটাইজারের ব্যবহার। একটি রুম পর্যটকেরা ছাড়ার ২৪ ঘন্টা ওই রুমে দ্বিতীয় কোনও পর্যটকের জন্যে বুকিং নেওয়া যাবে না। ওই সময়ে স্যানিটাইজ করা হবে রুমে। গাড়িতেও অর্ধেকের বেশী পর্যটক নয়। অর্থাৎ গাদাগাদি করে নয়। প্রতিদিনই প্রতিটি হোটেল স্যানিটাইজ করা হবে। ধাপে ধাপে খুলবে পর্যটনকেন্দ্রগুলো।

পয়লা জুলাই থেকে খুলছে টাইগার হিল, রক গার্ডেন, গঙ্গামায়া পার্ক! প্রতিটি কেন্দ্রেই পর্যটকদের প্রবেশের ক্ষেত্রেও মানা হবে সোশ্যাল ডিস্টেনসিং। নজরদারি চালাবে প্রশাসন। এমনিতেই ভরা বর্ষায় পর্যটকদের আনাগোনা কম থাকবে। তবুও পর্যটন শিল্পে ঘুরে দাঁড়ানোর জন্যেই জুলাই মাসকে বেছে নিয়েছে জিটিএ। সেপ্টেম্বর, অক্টোবরে তাহলে ভাল বুকিং পাওয়া যাবে। তবে বড় টিম বুকিং আপাতত নয়। যেমন শিক্ষামূলক ভ্রমণ নয়। জিটিএ'র পর্যটন বিভাগের ডেপুটি ডিরেক্টর সুরজ শর্মা জানান, লকডাউনে ঘরবন্দী থাকার পর মানুষেরাও ইতিউতি ঘুরতে চাইছেন। পাহাড়ের পর্যটন শিল্পকে চাঙ্গা করতেই জুলাইয়ে খুলে দেওয়া হচ্ছে। শুধু হোটেলই নয়। খুলবে হোম স্টে গুলিও! তবে পাহাড়ে ঢোকার আগে একাধীক জায়গায় থাকবে থার্মাল চেকিং ক্যাম্প। সমতলের শিমূলবাড়ি, কালিম্পংয়ের কালিঝোরা, বাংলা-সিকিম সীমান্ত রংপোতে থার্মাল স্ক্রিনিং ক্যাম্প থাকবে। পাশাপাশি বিভিন্ন হোটেল এবং হোম স্টে'তেও একই ব্যবস্থা থাকবে। সেইসঙ্গে পর্যটকদের আনতে হবে ফিট সার্টিফিকেটও!

PARTHA PRATIM SARKAR

Published by: Piya Banerjee
First published: June 24, 2020, 7:50 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर