মৃত ভিলেজ পুলিশ ও সিভিক ভলান্টিয়ারের পরিবারকে সরকারি চাকরি দিল রাজ্য সরকার

সরকারি নির্দেশ মোতাবেক দুইজনকেই কাজে যোগ দেওয়ানো হয়েছে। তাঁরা দু’জনেই এখন থেকে পুলিশ পরিবারের সঙ্গে থেকে কাজ করবেন। এর ফলে দুই পরিবার সুরক্ষিত হবে।

সরকারি নির্দেশ মোতাবেক দুইজনকেই কাজে যোগ দেওয়ানো হয়েছে। তাঁরা দু’জনেই এখন থেকে পুলিশ পরিবারের সঙ্গে থেকে কাজ করবেন। এর ফলে দুই পরিবার সুরক্ষিত হবে।

  • Share this:

    Sebak DebSarma

    #মালদহ: মালদহে কর্মরত অবস্থায় মৃত ভিলেজ পুলিশ এবং সিভিক ভলেন্টিয়ারের পরিবারকে সরকারি চাকরি। অসহায় পরিবারের আবেদনে সাড়া দিয়ে নিয়োগপত্র দিল রাজ্য। স্বামীদের পদে নিয়োগ করা হল স্ত্রী’দের। সরকারি নিয়োগপত্র পেয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানালেন চাকরিপ্রাপ্ত দুই মহিলা। মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুর থানায় কাজে যোগ দিলেন বিউটি দাস থোকদার এবং রীতা সাহা ভগৎ।

    পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, মাস ছয়েক আগে হরিশ্চন্দ্রপুরের কুশিদাতে ডিউটিরত অবস্থায় পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় ভিলেজ পুলিশ অলোক থোকদারের। পরিবারের একমাত্র রোজগেরে সদস্যদের আকস্মিক মৃত্যুতে বিপাকে পড়ে পরিবার। কর্মসংস্থান চেয়ে রাজ্য সরকারের উদ্দেশ্যে লিখিত আবেদন জানান স্ত্রী বিউটি দেবী। তাঁর আবেদন মঞ্জুর করে স্বামীর জায়গায় ভিলেজ পুলিশ হিসেবে নিয়োগ করা হয়েছে তাঁকে।

    একইভাবে হরিশ্চন্দ্রপুরের ভালুকায় ২০১৯ সালে পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় সিভিক ভলান্টিয়ার গৌতম ভগৎ-এর। পরিবারের দুই ছেলে- মেয়েকে নিয়ে অসহায় অবস্থার মধ্যে পড়েন স্ত্রী রীতা দেবী। স্থানীয় হরিশ্চন্দ্রপুর থানা আইসি-র মাধ্যমে কর্মসংস্থান চেয়ে মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে আবেদন জানান তিনি। তাঁর আবেদনে সাড়া দিয়েছে রাজ্য সরকার। হরিশ্চন্দ্রপুর থানার সিভিক ভলান্টিয়ার পদে নিয়োগপত্র পেয়েছেন রীতা ভগৎ। সরকার এ ভাবে পাশে দাঁড়ানোয় অভিভূত তিনি। এর ফলে পরিবার বিপদের হাত থেকে রক্ষা পাবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

    পুলিশ জানিয়েছে, ডিউটি রত অবস্থায় দুর্ঘটনায় কবলে পড়ে মৃত্যু হয়েছিল ওই দুই সিভিক ভলান্টিয়ার এবং ভিলেজ পুলিশের। এর ফলে চরম অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়েছিল পরিবার গুলি। তাঁদের করা আবেদন মঞ্জুরের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছিল। সম্প্রতি রাজ্য সরকার সেই প্রস্তাব মঞ্জুর করে। জেলায়  এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় নির্দেশ পাঠানো হয়। সরকারি নির্দেশ মোতাবেক দুইজনকেই কাজে যোগ দেওয়ানো হয়েছে। তাঁরা দু’জনেই এখন থেকে পুলিশ পরিবারের সঙ্গে থেকে কাজ করবেন। এর ফলে দুই পরিবার সুরক্ষিত হবে।

    Published by:Simli Raha
    First published: