• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • রাজ্যে NRC প্রয়োগে গোর্খাদের স্বার্থ অক্ষুণ্ণ থাকবে, দার্জিলিঙে ভোটপ্রচারে আশ্বাস বিজেপি প্রার্থীর

রাজ্যে NRC প্রয়োগে গোর্খাদের স্বার্থ অক্ষুণ্ণ থাকবে, দার্জিলিঙে ভোটপ্রচারে আশ্বাস বিজেপি প্রার্থীর

  • Share this:

    #দার্জিলিং:  ন্যাশনাল রেজিস্টার অফ সিটিজেনস (NRC) বা জাতীয় নাগরিকপঞ্জি আরোপ হলে তা গোর্খা সম্প্রদায়ের উপর নেতিবাচক কোনও প্রভাব পড়বে না বরং নাগরিকপঞ্জি প্রযোজ্য হলে উপকৃত হবে এই সম্প্রদায়, দার্জিলিঙের হ্যাপি ভ্যালিতে নির্বাচনী প্রচারে জানিয়েছেন  বিজেপি প্রার্থী রাজু বিস্তা ।

    গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার পক্ষ থেকে বিনয় তামাং ও তৃণমূল বারবার নাগরিকপঞ্জির বিরোধিতা করেছে । নাগরিকপঞ্জি আরোপ করার মাধ্যমে গোর্খা সম্পদ্রায়কে অবৈধ অভিবাসী আখ্যায়িত করতে চাইছে বিজেপি, এমনই মত তৃণমূলের। তবে বিস্তার মতে নাগরিকপঞ্জি নিয়ে অহেতুক ভিত্তিহীন গুজব ছড়াচ্ছে বিরোধীরা । পশ্চিমবঙ্গে নাগরিকপঞ্জি আরোপ হলে গোর্খা সম্প্রদায় অনেক বেশি সুরক্ষিত থাকবে । নাগরিকপঞ্জি প্রযোজ্য না হলে অবৈধভাবে বাংলাদেশ থেকে অভিবাসীরা আসতে থাকবে ও তাঁদের ভোটার কার্ড সহ অন্য নথি দেওয়ার ফলে গোর্খা সম্প্রদায় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ে পরিণত হবে, জানিয়েছন বিস্তা ।

    একইসঙ্গে রোহিঙ্গা ও অবৈধ বাংলাদেশী অভিবাসীদের নিজেদের রাজনৈতিক স্বার্থে ব্যবহার করছে পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল, অভিযোগ বিস্তার।

    এছাড়া , নির্বাচনী প্রচারে চা বাগানের উন্নয়ন ও ন্যূনতম পারিশ্রমিকের বিষয়গুলি নিয়ে কাজ করার আশ্বাস দিয়েছেন বিস্তা ।

    গোর্খাল্যান্ড বিতর্কে তিনি জানিয়েছেন অতি অবশ্যই এক রাজনৈতিক সমাধান নিয়ে আসা হবে ও সংসদেও এই নিয়ে আলোচনা করবেন তিনি ।

    বিস্তার মন্তব্যের করা প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন মোর্চা নেতা বিনয় তামাং । অসমে নাগরিকপঞ্জি খসড়া তালিকা প্রকাশিত হওয়ার পর রাতারাতি প্রায় ১.৫ লক্ষ ভোটার সন্দেহভাজন নাগরিকের তালিকায় চলে গিয়েছেন, জানিয়েছেন তামাং । তিনি আরও জানিয়েছেন অসমের ইতিহাস দার্জিলিঙ ও কালিম্পঙের ইতিহাসের থেকে অনেকটাই আলাদা ও স্বাভাবিকভাবেই এই রাজ্যে নাগরিকপঞ্জি আরোপ হলে প্রায় ১৫ লক্ষ গোর্খা সম্প্রদায়ভুক্ত মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হবেন, ব্যাহত হবে তাঁদের পরিবারতন্ত্রও ।

    ২০১৬ সালের নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন এখনও পর্যন্ত লোকসভায় পাশ হয়নি যার কারণে এই মুহূর্তে হিন্দিভাষী হিন্দু ও বাঙালি সম্প্রদায় সুরক্ষিত থাকছে কিন্তু এই বিষয়টি গোর্খা সম্প্রদায়ের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হচ্ছে না।

    মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নাগরিকপঞ্জির বিরোধিতা করেছেন ও এই আইন প্রযোজ্য হলে তিনিও প্রতিবাদে নামবেন, জানিয়েছেন তামাং ।

    First published: