দার্জিলিংয়ে সংক্রমণের গ্রাফ অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে, ঝুঁকি নিতে নারাজ জেলা প্রশাসন

এই মূহূর্তে অক্সিজেনের ঘাটতিও নেই জেলাতে। চাহিদা অনেকটাই কমেছে। মেডিকেলে অক্সিজেন প্লান্ট বসানো হবে। বিষয়টি টেণ্ডার প্রক্রিয়ার মধ্যে রয়েছে।

এই মূহূর্তে অক্সিজেনের ঘাটতিও নেই জেলাতে। চাহিদা অনেকটাই কমেছে। মেডিকেলে অক্সিজেন প্লান্ট বসানো হবে। বিষয়টি টেণ্ডার প্রক্রিয়ার মধ্যে রয়েছে।

  • Share this:

Partha Sarkar

#শিলিগুড়ি: গত কয়েক দিনে সংক্রমণের গ্রাফ কিছুটা নেমেছে দার্জিলিংয়ের পাহাড় থেকে সমতলে। তবে একে হালকাভাবে নেওয়াটা ভুল হবে। গত বছরে সর্বোচ্চ সংক্রমণের সময়ের চেয়ে সংখ্যাটা এ বারে অনেকটাই বেশী। যে হারে সংক্রমণ বাড়ছিল তা কিছুটা নিয়ন্ত্রণে এসেছে। তাই সাবধানতা এবং সতর্কতা মেনে চলতে হবে। মানতে হবে স্বাস্থ্য বিধিও। আজ শিলিগুড়িতে প্রাথমিক বিদ্যালয় সংসদের সপ্তাহব্যাপী বৃক্ষরোপন কর্মসূচীর এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এ কথা বলেন দার্জিলিংয়ের জেলাশাসক এস পুন্নমবালাম। তিনি জানান, জেলার পাহাড় থেকে সমতল কোভিড মোকাবিলায় স্বাস্থ্য ব্যবস্থার পরিকাঠামোর উন্নয়নের দিক দিয়ে তৈরী। ইতিমধ্যেই উত্তরবঙ্গ মেডিক্য়াল কলেজ ও হাসপাতালের কোভিড ব্লকে ১০০ বেড বাড়ানো হয়েছে। শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালে ৪০ বেডের কোভিড ওয়ার্ড চালু করা হয়েছে। এখানে আগামী দিনে আরও ৪০ বেড বাড়ানো হবে। সেই মতো এগোচ্ছে জেলা স্বাস্থ্য দফতর। দার্জিলিং সদর হাসপাতালে কোভিডের চিকিৎসায় গতি আনতে অত্যাধুনিক স্বাস্থ্য সরঞ্জাম দেওয়া হয়েছে। দার্জিলিং এবং কার্শিয়ংয়ে বেড বাড়ানোর পরিকল্পনাও রয়েছে। তবে আপাতত সংক্রমণ কিছুটা কমায় বেডের চাহিদাও কমেছে। বর্তমানে যে ব্যবস্থা রয়েছে তা পর্যাপ্তই। অন্তত বেডের অপ্রতুলতা নেই। মিরিক কলেজে সেফ হোম চালু করা হয়েছে। শীঘ্রই শিলিগুড়ির মাটিগাড়ায় যীশু আশ্রমেই সেফ হোম চালু করা হবে। তবে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এক্ষুনি সেফ হোম চালু করা হচ্ছে না। প্রস্তুতি সেরে রাখা হয়েছে। প্রয়োজন এবং চাহিদা বাড়লেই তা করা হবে বলে জেলাশাসক জানিয়েছেন।

অন্যদিকে, এই মূহূর্তে অক্সিজেনের ঘাটতিও নেই জেলাতে। চাহিদা অনেকটাই কমেছে। মেডিকেলে অক্সিজেন প্লান্ট বসানো হবে। বিষয়টি টেণ্ডার প্রক্রিয়ার মধ্যে রয়েছে। টেণ্ডার সম্পন্নও হয়েছে। প্লান্ট চালু হলে অক্সিজেনের কোনও ঘাটতিই থাকবে না। জেলা প্রশাসন এবং স্বাস্থ্য দফতর যৌথভাবে কোভিড পরিস্থিতির দিকে নজর রেখে চলছে। পরিকাঠামোর দিক থেকে সবরকম ব্যবস্থাই নেওয়া হয়েছে। তিনি জানান, রাজ্যের নির্দেশিকা মেনে সকলকে চলতে হবে। কোনোভাবেই সরকারী বিধি ভাঙলে চলবে না।

Published by:Simli Raha
First published: