মালদহে দুষ্প্রাপ্য সামগ্রীর প্রদর্শনী, বিপুল সংগ্রহ চাক্ষুষ করতে পেরে খুশি দর্শনার্থীরা

১২ জন সংগ্রাহক এই প্রদর্শনীতে অংশ নিয়েছেন

১২ জন সংগ্রাহক এই প্রদর্শনীতে অংশ নিয়েছেন

  • Share this:

#মালদহ: দুষ্প্রাপ্য নানা সামগ্রী নিয়ে প্রদর্শনী শুরু হল মালদহে। প্রাচীন আমলের মুদ্রা, নোট, ডাকটিকিট, কলম, চাবির রিং, দেশলাই বাক্স সহ বিভিন্ন দুষ্প্রাপ্য জিনিস স্থান পেয়েছে এই প্রদর্শনীতে। শনিবার দুপুরে প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন মালদহের জেলাশাসক রাজর্ষি মিত্র। মালদহের বিনয় সরকার অতিথি আবাসে শুরু হয়েছে প্রদর্শনী। ১২ জন সংগ্রাহক এই প্রদর্শনীতে অংশ নিয়েছেন।

জেলায় এই ধরনের প্রদর্শনী এবারই প্রথম। মালদহে এই দুষ্প্রাপ্য সামগ্রীর প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে মালদা নিউমিসম্যাটিক অ্যান্ড কালেক্টরস্ ফোরাম। এতদিন বিক্ষিপ্তভাবে মালদহের বিভিন্ন সংগ্রাহকের কাছে দুষ্প্রাপ্য সামগ্রী থাকলেও সম্মিলিতভাবে একইসঙ্গে সাধারণ মানুষের দেখার জন্য এই ধরনের প্রদর্শনীর আয়োজন প্রথম দিনেই সাড়া ফেলেছে। প্রচুর উৎসাহী মানুষ এই সব সামগ্রী দেখতে ভিড় জমান।সংগ্রাহকরা বেশিরভাগই ছোটবেলা থেকেই বিভিন্ন দুষ্প্রাপ্য সামগ্রী সংগ্রহ করার উদ্যোগ নেন। দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ফিরে দুষ্প্রাপ্য সামগ্রী সঞ্চয় করেছেন এঁদের প্রত্যেকেই।

পেশাগতভাবে অধিকাংশ সংগ্রাহক বিভিন্ন কার্যক্রমের সঙ্গে যুক্ত। কেউ স্কুল শিক্ষক, কেউ ব্যাঙ্ক কর্মী, কেউ স্বাস্থ্য ব্যবস্থার সঙ্গেই যুক্ত। এর পাশাপাশি পুরনো জিনিস সংগ্রহ করায় তাঁদের নেশা বা লক্ষ্য।মালদা শহরের গ্রীন ভিউ কমপ্লেক্সের বাসিন্দা সুবীর সাহা প্রায় পাঁচশ ধরনের কলম আর প্রায় এক হাজার রকমারি দেশলাই বক্স সংগ্রহ করে রেখেছেন। দেশ-বিদেশের বিভিন্ন রকম কলম আর দেশলাই বাক্স রয়েছে তার সংগ্রহে। গত কয়েক দশক ধরে এগুলি সংগ্রহ করেছেন তিনি। মালদহের স্কুল শিক্ষক সন্দীপ কাঞ্জিলাল দীর্ঘ কয়েক দশক ধরে রকমারি মুদ্রা আর দেশ-বিদেশের নোট সংগ্রহ করেছেন।

এখন তাঁর সংগ্রহে রয়েছে কয়েকশো নোট আর মুদ্রা। স্কুলে পড়াশোনার সময় থেকেই বাড়িতে পুরনো সামগ্রী দেখে দুষ্প্রাপ্য সামগ্রীর সংগ্রাহক হয়ে ওঠার তাগিদ অনুভব করেন। সেই থেকে শুর, এখনও চলছে নতুন নতুন সংগ্রহের কাজ। এখন তাঁর সংগ্রহের পরিসর যথেষ্টই সমৃদ্ধ।প্রদর্শনীর প্রথম দিনেই উৎসাহী দর্শকদের কাছ থেকে প্রশংসা পেয়ে রীতিমতো চাঙ্গা মালদহ জেলার সংগ্রাহকরা। ভবিষ্যতে গোটা উত্তরবঙ্গ থেকে সংগ্রাহকদের আনিয়ে মালদহে বড় প্রদর্শনীর পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন উদ্যোক্তারা।

Sebak DebSarma

Published by:Arjun Neogi
First published: