পাহাড়ের আন্দোলনে জঙ্গি মদত ! দার্জিলিঙের পর এবার কালিম্পং থানা লক্ষ্য করে গ্রেনেড হামলা

পাহাড়ের আন্দোলনে জঙ্গি মদত ! দার্জিলিঙের পর এবার কালিম্পং থানা লক্ষ্য করে গ্রেনেড হামলা

পাহাড়ের আন্দোলনে জঙ্গি মদত ! দার্জিলঙের পর এবার কালিম্পং থানা লক্ষ্য করে গ্রেনেড হামলা

  • Share this:

#কালিম্পং: শুক্রবার দার্জিলিংয়ে বিস্ফোরণ ছিল মহড়া। শনিবার রাতে কালিম্পং থানায় গ্রেনেড হামলার পর আরও জোড়ালো হল মোর্চার আন্দোলনে জঙ্গি মদত। শনিবারের বিস্ফোরণে মৃত্যু হয়েছে এক সিভিক ভলান্টিয়ারের। আহত এক পুলিশ কর্মী ও CRPF জওয়ান।

পাহাড় পরিস্থিতি দক্ষ হাতে মোকাবিলা করছে পুলিশ। আলোচনায় সায় কেন্দ্র-রাজ্যের। আন্দোলনের রাশ হাতছাড়া হতেই কী তাই জঙ্গি মদতে হামলার নয়া কৌশল? ক্রমশ জোড়াল হচ্ছে সেই তত্ত্বই।

শুক্রবার দার্জিলিংয়ের মোটর স্ট্যান্ড এলাকার পর শনিবার রাতে কালিম্পং থানা। চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যে পাহাড়ে জোড়া বিস্ফোরণ। কালিম্পং থানা লক্ষ্য করে হ্যান্ড গ্রেনেড হামলা। গেটের সামনে বিস্ফোরণে মৃত্যু হয়েছে সিভিক ভলান্টিয়ার রাকেশ রাউতের। কালিম্পং চৌরাস্তার ডান দিকে উঁচু জায়গায় থানা। দু’পাশে বহুতল। আশপাশে একাধিক গলি। হামলার জন্য ভৌগলিক অবস্থানগত সুবিধা। পুলিশ-আধা সেনার ডিউটি বদলের সময় হামলা।পাহাড়ের পরপর বিস্ফোরণে ক্রমশই জোড়াল হচ্ছে প্রশিক্ষিত জঙ্গি গোষ্ঠীর মদতের তত্ব।

প্রথমত, পাহাড়ের আন্দোলনে পেট্রোল বোমার পরিবর্তে এবার হাতিয়ার সয়ংক্রিয় বিস্ফোরক।

দ্বিতীয়ত, দার্জিলিং ও কালিম্পং। দুই ক্ষেত্রেই বিস্ফোরককে সঠিকভাবে ব্যবহার করা হয়েছে।

কীভাবে কোন পরিস্থিতিতে বিস্ফোরক ব্যবহার করলে সর্বোচ্চ আঘাত হানা সম্ভব। একমাত্র জানে প্রশিক্ষিত জঙ্গি গোষ্ঠীই।

জঙ্গি মদতেই দার্জিলিং থেকে কালিম্পংয়ে পরপর হামলা। অভিযোগ স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের।

শনিবারের হামলার পর পাহাড় ও সমতলের সবকটি থানা ও পুলিশ ফাঁড়িতে চরম সতর্কতা জারি হয়েছে। শিলিগুড়ির প্রতিটি থানায় রাতে IC ও OC-দের থাকাতে বলা হয়েছে। সেইসঙ্গে ৫, ৩১, ১০ জাতীয় সড়ক ও ১২ A রাজ্য সড়কে চলছে নাকা তল্লাশি। যদি এভাবেই রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে পাহাড়ের আন্দোলন এগোয়, তাহলে কড়া অবস্থান নিতে বাধ্য হবে কেন্দ্র রাজ্য।

First published: 08:29:22 AM Aug 20, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर