ঝকঝকে আকাশের গায়ে হাসছে কাঞ্চনজঙ্ঘা, শনিবার ভিউ পয়েন্টে ঠাসা ভিড়

ঝকঝকে আকাশের গায়ে হাসছে কাঞ্চনজঙ্ঘা, শনিবার ভিউ পয়েন্টে ঠাসা ভিড়

শৈলশহরে আপ্লুত পর্যটকেরা। কাঞ্চনজঙ্ঘার নৌস্বর্গিক দৃশ্য ক্যামেরাবন্দীর হিড়িক

  • Share this:

#দার্জিলিং: হাত বাড়ালেই যেন বন্ধু ৷ বন্ধু আর কেউ নয়, বন্ধু কাঞ্চনজঙ্ঘা ৷ বন্ধুর মুখে হাসি৷ ঝকঝকে আকাশের গায়ে হাসছে কাঞ্চনজঙ্ঘা ৷  হাতের কাছেই হাতছানি৷  দার্জিলিং আর কাঞ্চনজঙ্ঘা৷  শনিবার সকালে চেনা রূপে ধরা দিল সে৷  লেপটে থাকা কুয়াশা কাটিয়ে তুষারমোড়া রূপে মুগ্ধ করল৷

গত দু’দিন পাহাড়ের মনে ছিল কুয়াশার ঝিম৷ সঙ্গে ঠান্ডার হাড়হিম৷ তাপমাত্রা রাতে নেমেছিল ১ ডিগ্রিতে৷ রুম হিটার ছাড়া হোটেলে থাকার কথা ভাবাই যাচ্ছিল না৷  বাইরে বেরোলেই চৌরাস্তা থেকে মল পর্যন্ত দেখা গিয়েছে আগুন পোহানোর ছবি৷ তবে শনিবার ভোর হতেই আলসেমি কাটল৷ দার্জিলিং দু’হাত বাড়িয়ে রোদ্দুর মাখল৷  হোটেলের বারান্দা থেকেই কাঞ্চনঝঙ্ঘা যেন ডাকছে৷

শনিবার সকাল থেকেই ভিউ পয়েন্টে ঠাসা ভিড়৷ কনকনে ঠান্ডাকে কাবু করতে গরম জামাকাপড় তৈরি৷ পোশাকে উষ্ণতা খুঁজে সবাই ছুটিতে লুটোপুটি৷  ক্য়ামেরাও যেন কাঞ্চনজঙ্ঘাকে বন্দি করতে পেরে অবাক৷  সেলফি তো আছেই৷ গত দু’দিনে আকাশের মতই মুখভার করেছিলেন পর্যটকরা৷ আজ রোদের সোনালিতে ডুবে যাওয়ার পালা৷

তাই আর হোটেলে ফেরার তাড়া নেই৷ ৷ রোপওয়েতে ঝুলে ঝুলে খানিকটা অ্য়াডভেঞ্চার, তারপর পদ্মজা নায়ডু চিড়িয়াখানায় ঘোরাঘুরি৷ হিমালয়ান মাউন্টেনিয়ারিং করতেও ভিড় ভালই৷  উত্তুরে হাওয়ার সঙ্গে জুটি বেঁধে ঠান্ডা বলছে যাব না৷  পর্যটকরাও বলছেন, মলে জমুক আড্ডা, সঙ্গে এক কাপ চায়ে দার্জিলিংকে চাই৷

Parthapratim Sarkar
First published: January 25, 2020, 3:33 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर