ডালখোলা পুলিশ মহকুমা দফতরের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন, বাড়বে এলাকার সুরক্ষা, আশাবাদী স্থানীয়রা

ডালখোলা পুলিশ মহকুমা দফতরের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন, বাড়বে এলাকার সুরক্ষা, আশাবাদী স্থানীয়রা
ডালখোলা পুলিশ মহকুমার জন্য ১৫ জন নতুন পুলিশকর্মী নিয়োগ করা হয়েছে।

ডালখোলা পুলিশ মহকুমার জন্য ১৫ জন নতুন পুলিশকর্মী নিয়োগ করা হয়েছে।

  • Share this:

#ডালখোলা: ইসলামপুর পুলিশ জেলা গঠনের পর ডালখোলাকে পুলিশ মহকুমা হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। ডালখোলা তিস্তা পল্লীতে ডালখোলা পুলিশ মহকুমার দফতরের উদ্বোধন করলেন উত্তরবঙ্গ মহা আরক্ষা পরিদর্শক বিশাল গর্গ। এদিনের এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রায়গঞ্জ রেঞ্জের মহা আরক্ষা পরিদর্শক জয়ন্ত কুমার পাল সহ ইসলামপুর পুলিশ জেলার পুলিশ সুপার শচীন মক্কর, ইসলামপুর পুলিশ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কার্তিক চন্দ্র মন্ডল প্রমুখ।

রাজ্য সরকার ডালখোলা মহকুমা আধিকারিক হিসেবে যোগ দিয়েছেন সৌম্য নন্দ সরকার। পুলিশ মহকুমার দফতরের উদ্বোধন করতে এসে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে উত্তরবঙ্গ রিজিয়নের মহা আরক্ষা পরিদর্শক বিশাল গর্গ বলেন, একদিকে বিহার সীমান্ত অন্যদিকে বাংলা।  ইসলামপুর পুলিশ জেলা থেকে এই  সমাজবিরোধী রোধে পুলিশকে বেশ খানিকটা বেগ পেতে হয়। ইসলামপুর থেকে ডালখোলায় পৌছাতে প্রায় একঘন্টা সময় লাগে।তাই দুই বাংলার সমাজবিরোধী রোধে  ডালখোলায় পুলিশ মহকুমার প্রয়োজন ছিল। রাজ্য সরকার সেদিকে গুরুত্ব দিয়েই ডালখোলাকে আলাদা পুলিশ মহকুমা হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। মঙ্গলবার সেই মহকুমা পুলিশ  দফতরের উদ্বোধন হল।

ডালখোলা পুলিশ মহকুমার জন্য ১৫ জন নতুন পুলিশকর্মী নিয়োগ করা হয়েছে। উত্তরবঙ্গের আই জি আরও জানান, ডালখোলা পুলিশ মহকুমা তৈরি হওয়ার কারণে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছতে পারবে। আপাতত ডালখোলা এস ডি পি ও-র হাতে ১৫ জন পুলিশ কর্মী দেওয়া হয়েছে। প্রয়োজনে ইসলামপুর পুলিশ জেলা থেকে আরও পুলিশ পাঠানো হবে। এককথায় আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রাখতে ডালখোলা পুলিশ জেলা সবরকম প্রচেষ্ঠা গ্রহণ করবে।


ডালখোলার সব থেকে বড় সমস্যা ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক যান নিয়ন্ত্রণ।আই জি বিশাল গর্গ জানান,  ডালখোলা বাইপাস নির্মানের কাজ দ্রুত গতিতে চলছে। বাইপাসের কাজ শেষ হলে যান চলাচলের সমস্যা আর থাকবে না বলে তিনি জানিয়েছেন। ডালখোলা পুলিশ মহকুমা হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়ায় খুশি ব্যবসায়ী থেকে সাধারণ মানুষ। ডালখোলা পৌর এলাকার বাসিন্দা অসীম দাস জানিয়েছেন, উত্তর দিনাজপুর জেলা সদর রায়গঞ্জ থাকাকালীন ডালখোলা পুলিশের তেমন পরিকাঠামো গড়ে তোলা হয়নি। ইসলামপুর পুলিশ জেলা হবার পরও সেই পরিকাঠামোই থেকেছে।দীর্ঘদিন ধরে ডালখোলাকে আলাদা মহকুমা ঘোষণার দাবি করে আসছে। রাজ্য সরকার ডালখোলাকে আলাদা পুলিশ মহকুমার স্বীকৃতি দেওয়ায় পুলিশি পরিকাঠামো অনেক বৃদ্ধি পাবে। পুলিশি পরিকাঠামো গড়ে উঠলেই মানুষের নিরাপত্তা বাড়বে বলে তিনি মনে করা হচ্ছে।

Published by:Pooja Basu
First published: