নিছক মজার ছলে অশ্লীল গান, স্কুলে মুচলেকা দিয়ে জানাল ছাত্রীরা, ভাইরাল ভিডিও-তে শোরগোল

নিছক মজার ছলে অশ্লীল গান, স্কুলে মুচলেকা দিয়ে জানাল ছাত্রীরা, ভাইরাল ভিডিও-তে শোরগোল

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায় ওই গান। তা নিয়ে তোলপাড় হয় সোশ্যাল মিডিয়া। প্রতিবাদে সরব হন বহু বিশিষ্টজন এমনকি প্রাক্তনীরাও।

  • Share this:

#মালদহ: অশ্লীল গান ভাইরাল হওয়ার ঘটনায় স্কুলে এসে ক্ষমা প্রার্থণা করে মুচলেকা দিলেন মালদহের নামী স্কুলের একাদশ শ্রেণির চার  পড়ুয়া । ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন ছাত্রীদের অভিভাবকরাও। ওই ছাত্রীদের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া হবে তা ঠিক করতে স্কুলের পরিচালন সমিতি বৈঠকে বসবে ।

মালদহের প্রায় দেড়শ বছরের পুরনো ঐতিহ্যবাহী স্কুলের একাদশ শ্রেণির চার পড়ুয়ার বিরুদ্ধে রবীন্দ্র সংগীতের সুরে অশ্লীল শব্দ জুড়ে গান রেকর্ডিংয়ের মোবাইল ক্যামেরাবন্দি করার অভিযোগ উঠেছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায় ওই গান। তা নিয়ে তোলপাড় হয় সোশ্যাল মিডিয়া। প্রতিবাদে সরব হন বহু বিশিষ্টজন এমনকি প্রাক্তনীরাও। ভাইরাল হওয়া ভিডিও দেখা যায় স্কুলের ইউনিফর্ম পড়ে চার ছাত্রী অশ্লীল শব্দ জুড়ে নানারকম তাল দিয়ে, অঙ্গভঙ্গি করে গান গাইছে। ঘটনার তদন্তে শনিবার স্কুলে তলব করা হয় ওই ছাত্রী ও তাঁদের অভিভাবকদের। ঘটনায় স্কুলের সুনাম ক্ষুন্ন হয়েছে বলে অভিযোগ স্কুল কর্তৃপক্ষের ।

শনিবার স্কুলে প্রায় দুই ঘণ্টার বেশি সময় ধরে ওই ছাত্রী ও তাঁদের অভিভাবকদের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক করে স্কুল কর্তৃপক্ষ। একাদশ শ্রেণীর পড়ুয়া এবং সামনে পরীক্ষা থাকায় এখনই তাদের বিরুদ্ধে তড়িঘড়ি কোন শাস্তি মূলক ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না । তবে ভবিষ্যতে এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি রুখতে দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা। অভিভাবকরাও স্বীকার করেন যে,  মজার ছলে মেয়েরা যা করেছে তা অত্যন্ত গর্হিত কাজ। তবে , অভিবাবকরা একবার তাদের সুযোগ দেওয়ার আবেদন করেছেন ।

এদিকে ছাত্রীদের এমন  কান্ড নিয়ে উদ্বিগ্ন শিক্ষাবিদ ও বিশিষ্টজনেরা। তবে তাঁদের বেশিরভাগই চান না ওই ছাত্রীদের বিরুদ্ধে কড়া কোন শাস্তির ব্যবস্থা হোক। বরং অধিকাংশ ক্ষেত্রে ছাত্রীদের কাউন্সিলিংয়ের উপরেই বেশি জোর দেওয়া প্রয়োজন বলে মত। শুধু এই স্কুলে নয়, অনেক স্কুলেই এমন বিপদজনক প্রবণতা ছাত্র-ছাত্রীদের একাংশের মধ্যে রয়েছে, এর থেকে সকলকে শিক্ষা নেওয়া উচিত বলে জেলার শিক্ষাবিদদের।

First published: March 8, 2020, 10:13 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर