Home /News /north-bengal /
West Bengal News: সরকারি অনুষ্ঠানে হঠাৎ বেজায় ক্ষুব্ধ মন্ত্রী, বিষয় জেনে কটাক্ষ ছুড়ছে বিরোধীরা!

West Bengal News: সরকারি অনুষ্ঠানে হঠাৎ বেজায় ক্ষুব্ধ মন্ত্রী, বিষয় জেনে কটাক্ষ ছুড়ছে বিরোধীরা!

ক্ষুব্ধ মন্ত্রী

ক্ষুব্ধ মন্ত্রী

West Bengal News: রাজ্য সরকারের প্রকল্পের উদ্বোধন আর সেই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দর্শক উপস্থিতি কম, তাই বেজায় ক্ষুব্ধ মন্ত্রী।

  • Share this:

    ধূপগুড়ি: রাজ্য সরকারের প্রকল্পের উদ্বোধন আর সেই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দর্শক উপস্থিতি কম, তাই বেজায় ক্ষুব্ধ মন্ত্রী। ক্ষোভ উগরে দিলেন মাইক্রোফোন হাতে নিয়েই। ধূপগুড়ি রেগুলেটেড মার্কেটে দুই কোটি চল্লিশ লাখ টাকা ব্যায় করে কৃষিজ বিপনন দপ্তরের ভবন নির্মাণ করা হয়েছে।আর এই ভবনের আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন হল শনিবার বিকেলে। উদ্বোধন করলেন দপ্তরের মন্ত্রী বিপ্লব মিত্র।এই প্রাসাদপম ভবন উদ্বোধন ঘিরে  সকাল থেকে সাজো সাজো রব ধূপগুড়িতে। নির্ধারিত সময়ের থেকে বেশ কয়েক ঘন্টা দেরিতে শুরু হল উদ্বোধনী অনুষ্ঠান।মঞ্চে মন্ত্রী বিপ্লব মিত্র ছাড়াও উপস্থিত আদিবাসী উন্নয়ন দপ্তরের স্বাধী প্রতিমন্ত্রী বুলু চিক বরাইক, জেলা পরিষদের সভাধিপতি উত্তরা বর্মন, জেলাশাসক মৌমিতা গোদারা বসু, কৃষিজ বিপনন বিভাগের প্রধান সচিব রাজেশ কুমার সিনহা, জেলা পুলিশ সুপার দেবর্ষি দত্ত, রাজগঞ্জের বিধায়ক খগেশ্বর রায়, ধূপগুড়ির প্রাক্তন বিধায়ক মিতালি রায় সহ অনেকে।

    কার্যত উদ্বোধনী মঞ্চে তখন তিল ধারণের জায়গা ছিলো না । তবে এত বড় সরকারি প্রকল্পের অনুষ্ঠানে সাধারণ মানুষের উপস্থিতি ছিল না বললেই চলে। এই উন্নয়ন মূলক কাজের উদ্বোধনে সাধারণ মানুষের দেখা না পেয়ে উষ্মা প্রকাশ করেন রাজ্যের মন্ত্রী বুলু চিক বড়াইক সহ রাজগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল বিধায়ক খগেশ্বর রায়। তাঁরা তাদের নিজেদের বক্তব্যে সাধারণ মানুষের কম উপস্থিতি নিয়ে আক্ষেপ প্রকাশ করেন। পরে অবশ্য বুলু বাবু ড্যামেজ কন্ট্রোলে নিজের বক্তব্য থেকে খানিকটা সরে আসার চেষ্টা করেন।

    আরও পড়ুন: ইনিই বিশ্বের ভয়ঙ্করতম স্নাইপার! পৌঁছলেন ইউক্রেনে, ক্ষমতা শুনে কাঁপছে রুশ বাহিনী

    তবে নিজের বক্তব্যে অবিচল থাকেন রাজগঞ্জ -এর বিধায়ক খগেশ্বর রায়। অনুষ্ঠান শুরুর নির্ধারিত সময়ে কিছু মানুষ এসেছিলেন বটে। তবে মন্ত্রী মশাইয়ের অনুষ্ঠান মঞ্চে আসতে এতটাই দেরি হয়ে যায় যে তাদের মধ্যে কিছু মানুষ চলে যায়। কার্যত দর্শক আসন ভরানোই চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছিল উদ্যোক্তাদের কাছে। তবে মঞ্চের ছবিটা আলাদা।সেখানে অবশ্য চেয়ার কম পড়ছিল। মন্ত্রী ও বিধায়কের আক্ষেপের পর শেষমেষ উদ্বোধন হল এই কৃষিজ বিপণন দপ্তরের ভবন।

    ধূপগুড়ি মূলত কৃষি নির্ভর এলাকা হওয়ার কারণে এই ভবনটি নির্মাণ হওয়া যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। তৃণমূল কংগ্রেস তৃতীয় বার ক্ষমতায় আসার পর কৃষি ও বিপণন দপ্তর একাধিক উপহার দিয়েছে ধূপগুড়িকে। আর সেই কারণে এই দপ্তরের অনুষ্ঠানে সাধারণ মানুষের ব্যাপক উপস্থিতি  আশা করাটা মোটেও অন্যায়ের নয়, এমনটাই মত অনেকের।

    আরও পড়ুন: বাংলায় আসছে তাপপ্রবাহ! গরমের তেজ থেকে কি আরাম দেবে বৃষ্টি? হাওয়া অফিস যা বলছে...

    যদিও সরকারি অনুষ্ঠানে দর্শকদের উপস্থিতি সংখ্যা কম থাকা নিয়ে শাসকদলের জনপ্রতিনিধিদের বিঁধতে ছাড়েননি বিরোধীরা। ধূপগুড়ির সিপিএম নেতা জয়ন্ত মজুমদার বলেন,  তৃণমূলের প্রতি এবং সরকারের নেতা মন্ত্রীদের প্রতি আস্থা হারিয়েছে মানুষ।  তাই এখন আর ভিড় হয় না নেতা মন্ত্রীদের ডাকে। কৃষিজ বিপনন দপ্তরের মন্ত্রী এলেন, উদ্বোধন করলেন ভবন, তাতে কি কৃষকেরা কি এর কোন সুবিধা পাবেন?  সুপার মার্কেটের ব্যাবসায়ী এবং কৃষকদের জন্য তৈরী স্টল বন্টন নিয়ে যে দুর্নীতি হয়েছে তা নিয়ে তো মন্ত্রী কোন কথা বলেন নি। বিল্ডিং করলেই হবে না কৃষক দরদী হতে হবে।

    এদিকে বিজেপি নেতা চন্দন দত্ত বলেন,  ''সরকারের তরফে ভবন তৈরী হয়েছে ভালো কথা। কিন্তু স্থানীয় বিধায়ককে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। অথচ বাইরের বিধায়কদের ডেকে আনা হয়েছে। আর যে ভবন উদ্বোধন করা হল তার সুবিধা যাতে  কৃষকরা পায়, সেটা দেখতে হবে। এটা যেন শাসক দলের নেতাদের আড্ডা খানায় পরিণত না হয়।''

    --শেখ রকি চৌধুরী

    Published by:Suman Biswas
    First published:

    Tags: Jalpaiguri, West Bengal news

    পরবর্তী খবর