corona virus btn
corona virus btn
Loading

তিস্তায় ঝাঁকে ঝাঁকে উঠছে নদীয়ালি মাছ! লকডাউনে অপ্রাপ্তি ভুলে উত্তরবঙ্গ ফিরে পেল বোরোলি-মহাশোল

তিস্তায় ঝাঁকে ঝাঁকে উঠছে নদীয়ালি মাছ! লকডাউনে অপ্রাপ্তি ভুলে উত্তরবঙ্গ ফিরে পেল বোরোলি-মহাশোল

লকডাউনে কমেছে দূষণ । তার জেরে ফিরে এসেছে হারিয়ে যাওয়া প্রজাতির নদীয়ালি মাছ । সুস্বাদু নদীয়ালি মাছ। যা বরাবরই ভোজন রসিক বাঙালির অত্যন্ত প্রিয় ।

  • Share this:

#শিলিগুড়িঃ করোনা মোকাবিলায় দেশজুড়ে চলছে লকডাউন । শান্ত উত্তরবঙ্গ । বন্ধ যানবাহন । বায়ু দূষণ থেকে জল দূষণ,  সর্বত্রই কমেছে দূষণের মাত্রা । উত্তরের প্রাণের নদী খরস্রোতা তিস্তার জলও এখন পরিস্কার ।বহু বছর আগে ঠিক যেমন ছিল তিস্তা । ঠিক তেমনই নদীর জলে দেখা যাচ্ছে শ্যাঁওলা ।

তিস্তা মানেই বাঙালির স্বাদের বোরোলি। সঙ্গে আরও কয়েক প্রজাতির নদীয়ালি মাছ। লকডাউনের জেরে আবার ফিরে এসেছে উত্তরে । যা প্রায় হারিয়ে যেতে বসেছিল । আগে বছরের একটা নির্দিষ্ট সময়ে উত্তরবঙ্গে মিলত নদীয়ালি মাছ। লকডাউনের জেরে তিস্তায় আবার সেই মাছের দেখা মিলেছে। হ্যাঁ, এই অসময়েও!  আর এতেই খুশি পরিবেশপ্রেমীরা। শিলিগুড়ি-সহ উত্তরবঙ্গের পরিবেশপ্রেমীরা একাধীকবার হাজারো আন্দোলন করে যা পারেনি, করোনা তা পেরেছে । হ্যাঁ, কমেছে দূষণ । যার জেরে ফিরে এল হারিয়ে যাওয়া প্রজাতির নদীয়ালি মাছ । সুস্বাদু নদীয়ালি মাছ। যা বরাবরই ভোজন রসিক বাঙালির অত্যন্ত প্রিয় । তা সে বোরোলি হোক কিংবা মহাশোল! বৈরালি বা কুঁচো চিংড়ি!

গজলডোবার তিস্তা থেকে ফুলবাড়ির মহানন্দা । প্রতিদিনই নদী থেকে উঠছে ঝাঁকে ঝাঁকে নদীয়ালি মাছ। কিন্তু মন খারাপ মৎসজীবীদের । মাছ কেনার লোক নেই । বাইরে থেকে আসছে না মাছ ব্যবসায়ীরা । ফলে মিলছে না দাম । সংসার চালাতে কম দামেই বিক্রি হচ্ছে তিস্তার স্বাদের বোরোলি । মৎস্যজীবী রতন মালো জানান, মাছ উঠছে । কিন্তু বাজার নেই । দামও নেই । ফলে সংসার চালানো এখন দায় হয়ে দাঁড়িয়েছে ।

অন্যদিকে, পরিবেশপ্রেমী দীপজ্যোতি চক্রবর্তী জানান, ৩০ থেকে ৪০ বছর আগে উত্তরের নদীগুলো এমনই ছিল। মিলতো হাজার প্রজাতির নদীয়ালি মাছ। লকডাউন আবার তা ফিরিয়ে এনেছে। যে মাছের স্বাদের ভাগ হবে না। পর্যটকেরা বেড়াতে এলেই হোটেলে খোঁজ করত বোরোলি-সহ নদীয়ালি মাছের। আবার উঠছে জালে । কিন্তু দেখা নেই পর্যটকদের । তাই লকডাউন নদীয়ালি মাছের জন্যে পজিটিভ । তবে মৎস্যজীবীদের মাথায় হাত ।

Partha Sarkar

Published by: Shubhagata Dey
First published: May 14, 2020, 6:08 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर