Home /News /north-bengal /
Siliguri: ক্লাস চলাকালীন আচমকা সিলিং ফ্যান খুলে পড়ল নাকে, জখম ছাত্র

Siliguri: ক্লাস চলাকালীন আচমকা সিলিং ফ্যান খুলে পড়ল নাকে, জখম ছাত্র

Representative Image

Representative Image

দুর্ঘটনার কারণ খতিয়ে দেখছে স্কুল কর্তৃপক্ষ, স্কুলের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন অভিভাবকদের! 

  • Share this:

শিলিগুড়ি: ক্লাস চলাকালীন আচমকা চলন্ত সিলিং ফ্যান সোজা এসে পড়ল ছাত্রের নাকে! ভয়াবহ ঘটনাটি ঘটেছে শিলিগুড়ি বয়েজ স্কুলে। ফ্যানের আঘাতে জখম অষ্টম শ্রেণীর এক ছাত্র। অল্পের জন্যে রক্ষা পেয়েছে তার পাশে বসে থাকা অন্য সহপাঠীরা!

নাকে সিলিং ফ্যান পড়ে জখম ছাত্রের নাক দিয়ে রক্ত বের হতে থাকে। ছুটে আসেন শিক্ষকেরা, বন্ধুকে ওই অবস্থায় দেখে আতঙ্কিত হয়ে পড়ে অন্য পড়ুয়ারাও। দ্রুত জখম ছাত্রকে নিয়ে যাওয়া হয় শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালে। তার নাকে সেলাই পড়েছে। হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছাত্রকে বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। ডাকা হয় অভিভাবকদেরও। আপাতত কিছুটা সুস্থ হলেও, ভয়ের ধাক্কা এখনও সামলে উঠতে পারেনি অষ্টম শ্রেণীর পড়ুয়া মোজাহিদ, চোখে-মুখে আতঙ্কের ছাপ স্পষ্ট।

আরও পড়ুন:পূর্ণিমায় চাঁদের আলো মাখা বিশেষ চা উৎপাদন ডুয়ার্সে, এবার আপনার কাপে 'মুনলাইট টি'!

অন্য দিনের মতোই সোমবারও সহপাঠীদের সঙ্গে ক্লাস করছিল মোজাহিদ। আচমকাই সিলিং ফ্যান ছিটকে পড়ে। ভয়ে-আতঙ্কে ক্লাসের মধ্যে পড়ুয়াদের চিৎকার-চেঁচামেচি শোনা যায়।  দেখা যায়, মোজাহিদের নাক দিয়ে রক্ভাত বের হচ্বেছে! তড়িঘড়ি তাকে নিয়ে হাসপাতালে ছোটেন শিক্ষকেরা।

আরও পড়ুন: ছেলে ও মেয়েকে কীটনাশক খাইয়ে, নিজে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী মা

কীভাবে স্কুলের মধ্যে ঘটল এ হেন দুর্ঘটনা?  এই প্রশ্নই উঠছে বারবার।  কোভিড, লকডাউনের জেরে দীর্ঘ দিন বন্ধ ছিল স্কুলের দরজা। মাধ্যমিক শুরুর কিছুদিন আগে স্কুল খোলে। তারপর মাধ্যমিকের সেন্টার পড়ায় ক্লাস বন্ধ ছিল। মাধ্যমিক শেষ হতেই ক্লাস শুরু। এরই মধ্যে এই দূর্ঘটনার খবর। তাহলে কি স্কুল খোলার আগে সংস্কার করা হয়নি ? প্রশ্ন অন্য অভিভাবকদের। জখম পড়ুয়ার মা মহসিনি বিবির দাবি, স্কুল কর্তৃপক্ষ যেন সংস্কারের দিকে নজর দেয়। এই ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি যেন আর না হয় । অন্যদিকে স্কুলের প্রধান শিক্ষক উৎপল দত্ত জানান, '' এটা একটা দূর্ঘটনা। সংশ্লিষ্ট ইলেক্ট্রিক্যাল কর্মীকে ডেকে পাঠানো হয়েছে। দূর্ঘটনার কারণ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।''

বড়সড় দূর্ঘটনার হাত থেকে আজ রেহাই পেয়েছে শিলিগুড়ি বয়েজ স্কুল । অভিভাবকদের একাংশ স্কুলের ভূমিকা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন। এই ঘটনায়   স্কুলের গাফিলতি রয়েছে কিনা, তা খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। জখম  ছাত্র আপাতত আদর্শ নগরে, নিজের বাড়িতেই আছে। স্কুল কর্তৃপক্ষ তার পাশে থাকার কথা জানিয়েছে।

Published by:Rukmini Mazumder
First published:

Tags: Siliguri

পরবর্তী খবর