Home /News /north-bengal /
Siliguri: 'জিটিএ-র নির্বাচনে যাবে না বিজেপি', শিলিগুড়িতে ঘোষণা সাংসদ রাজু বিস্তার

Siliguri: 'জিটিএ-র নির্বাচনে যাবে না বিজেপি', শিলিগুড়িতে ঘোষণা সাংসদ রাজু বিস্তার

পাহাড়বাসী জিটিএ চায় না। পাহাড়ের মানুষের দাবি মেটায়নি জিটিএ। তাই জিটিএ-র নির্বাচনে যাবে না বিজেপি। শুক্রবার দিল্লি থেকে ফিরে শিলিগুড়িতে দলীয় কার্য্যালয়ে এ'কথা বলেন সাংসদ রাজু বিস্তা

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: পাহাড়বাসী জিটিএ চায় না। পাহাড়ের মানুষের দাবি মেটায়নি জিটিএ। তাই জিটিএ-র নির্বাচনে যাবে না বিজেপি। শুক্রবার দিল্লি থেকে ফিরে শিলিগুড়িতে দলীয় কার্য্যালয়ে এ'কথা বলেন সাংসদ রাজু বিস্তা। জিটিএ-র বিকল্প চাইছে পাহাড় আর সেই লক্ষ্যে সঠিক পথে এগচ্ছে কেন্দ্র। পাহাড়ের ১১ জনজাতির তফসিলি উপজাতির তকমা এবং স্থায়ী রাজনৈতিক সমাধান করবে কেন্দ্র। যা পাহাড়বাসীর যাবতীয় আশা মেটাবে বলে দাবি করেছেন তিনি। জিটিএ-কে তো ২০১৭ সালেই পাহাড়বাসী ছুঁড়ে ফেলে দিয়েছে। আর তাকে ঘিরেই বেআইনিবাবে পাহাড়কে নিজের কব্জায় আনতে চাইছেন মমতা বন্দোপাধ্যায় বলেও অভিযোগ করেছেন সাংসদ।রাজু বিস্তা বলেন, এর আগে কার্শিয়ং সফরে এসেও মুখ্যমন্ত্রী স্থায়ী রাজনৈতিক সমাধানের কথাই বলেছেন। তারপর এখন আবার ভোট কেন? প্রশ্ন বিজেপি সাংসদের।

আরও পড়ুন: ধূপগুড়ির রাজপথে সাধারণ মানুষ, জাতীয় সড়ক অবরোধ করে চলল বিক্ষোভ, কেন জানেন?

মার্চের শেষ সপ্তাহে পাহাড় সফরে অনীত থাপা, রোশন গিরি, অজয় এডওয়ার্ডদের সাথে আলাদা আলাদা বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী। বৈঠকের পর তিনি ঘোষণা করেন, আগামী মে অথবা জুন মাসে জিটিএর নির্বাচন হবে। তারপর পাহাড়ের বাকি তিন পুরসভা কার্শিয়ং, কালিম্পং এবং মিরিকের নির্বাচনও হবে। কেন্দ্র অনুমোদন দিলে পাহাড়েও ত্রিস্তর পঞ্চায়েত নির্বাচন হবে।

বেঁকে বসেন গুরুংয়ের গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা। জিটিএর বিকল্প খুঁজতে গত শনিবার কালিম্পংয়ে আলোচনা সভাও করে মোর্চা। কোনও ইতিবাচক সূত্র বের হয়নি ওই সভা থেকে। তবে শীঘ্রই জিটিএ-র বিকল্প কি তার একটা ড্রাফট তৈরি করে মুখ্যমন্ত্রীর হাতে তুলে দেওয়া হবে জানান রোশন গিরি। জিটিএ-র নির্বাচনে তারাও যাবে না। আর তাই বিকল্প স্থায়ী রাজনৈতিক সমাধানের দাবিতে পাহাড়জুড়ে পোস্টারও ফেলেছে যুব মোর্চা।

আরও পড়ুন: শুরু ডবল লাইনের কাজ, নিউ ফরাক্কা-ধুলিয়ান লাইনে নিয়ন্ত্রিত ট্রেন চলাচল, দেখে নিন বাতিল ট্রেনের তালিকা

অন্যদিকে জিটিএ-র নির্বাচনকে পাখির চোখ করে এগচ্ছে হামরো পার্টি এবং ভারতীয় গোর্খা প্রজাতান্ত্রিক মোর্চা। শুক্রবার ৯ কমিটি গঠন করে হামরো পার্টি। ৭জন সদস্য নিয়ে কেন্দ্রীয় কমিটি চলছিল। দল গঠনের চার মাস পর আজ ৬৫ সদস্যের কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষণা করেন সভাপতি অজয় এডওয়ার্ড। পাহাড়ের বিভিন্ন এলাকায় জনসংযোগ যাত্রা করছেন অনীত থাপাও।

Published by:Rukmini Mazumder
First published:

Tags: Siliguri

পরবর্তী খবর