corona virus btn
corona virus btn
Loading

মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে তুলে দিল ১১ লক্ষ ১১ হাজার ১০১ টাকা!

মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে তুলে দিল ১১ লক্ষ ১১ হাজার ১০১ টাকা!

শিলিগুড়ি মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের মানবিক মুখ

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: করোনার দাপট কমছে না। ক্রমেই বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। গোটা দেশে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। রাজ্যেও বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। করোনা মোকাবিলায় একমাত্র ওষুধ লকডাউন। ইতিমধ্যেই রাজ্যে তিনটি জোন ভাগ করা হয়েছে। আক্রান্তের হিসেবে গ্রিন, অরেঞ্জ এবং রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে জেলাগুলোকে। কড়া সতর্ক রাজ্য। মুখ্যমন্ত্রী নিজেই মনিটরিং করছেন।

রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় আইশোলেশন ওয়ার্ড, কোভিড স্পেশাল হাসপাতাল, কোয়ারান্টাইন সেন্টার তৈরি করা হয়েছে। স্বাস্থ্য কর্মীদের জন্যে করোনা প্রতিরোধক মাস্ক, ক্যাপ, হ্যাণ্ড স্যানিটাইজার, পিপিই কিট কেনা হচ্ছে। করোনা মোকাবিলায় ত্রান তহবিলও তৈরী করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। ইতিমধ্যেই রাজ্যের ক্রিকেটার থেকে ফুটবলার, টলিউড থেকে শিল্পপতিরা এগিয়ে এসছেন। নিজেদের সাধ্য মতো আর্থিক সহযোগিতা করছেন করোনা ত্রান তহবিলে। এগিয়ে এসছে বিভিন্ন জেলার ক্লাব থেকে শিল্প উদ্যোগীরা। আর্থিক সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে স্কুল-কলেজ পড়ুয়ারা। শিলিগুড়িও এগিয়ে এসেছে প্রথম দিন থেকে। ইতিমধ্যেই কয়েক লক্ষ টাকা মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে জমা পড়েছে। আজ এগিয়ে এলেন শিলিগুড়ি মার্চেন্ট  অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা।

সংগঠনের প্রতিটি সদস্য হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন আর্থিক সহযোগিতার। ব্যবসায়ীদের যাবতীয় অর্থ মিলিয়ে আজ রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রীর মাধ্যমে তুলে দেওয়া হয় মুখ্যমন্ত্রীর ত্রান তহবিলে। মোটা অঙ্কের চেক তুলে দেন ব্যবসায়ীরা। এদিন তারা ১১ লক্ষ ১১ হাজার ১০১ টাকার চেক তুলে দেন। সংগঠনের কোষাধ্যক্ষ কমল কুমার গোয়েল জানান, মহামারির আকার নিয়েছে মারণ করোনা। রাজ্যের এই চরম সংকটে পাশে থাকতেই ব্যবসায়ীদের সম্মিলিত প্রচেষ্টা। এর আগেও এই ধরনের সংকটে ব্যবসায়ীরা সরকারের পাশে থেকেছে। এদিন ব্যাঙ্ক অব ইণ্ডিয়ার ইস্কন মন্দির রোড শাখার কর্মচারীদের সংগঠন মুখ্যমন্ত্রীর করোনা ত্রাণ তহবিলে ৪০ হাজার টাকার চেক তুলে দেন পর্যটনমন্ত্রীর হাতে। মন্ত্রী জানান, দুই সংগঠনের চেক আজই মুখ্যমন্ত্রীর ত্রান তহবিলে পাঠিয়ে দেওয়া হবে। এর আগেও শিলিগুড়ির বিভিন্ন ক্লাব, বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এগিয়ে এসছে।

Partha Sarkar

Published by: Debalina Datta
First published: May 5, 2020, 7:26 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर