উত্তরবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

আজও হল না উলেন রায়ের দ্বিতীয়বারের ময়না তদন্ত, রাজ্যের বিরুদ্ধে ষড়যন্তের অভিযোগ বিজেপির

আজও হল না উলেন রায়ের দ্বিতীয়বারের ময়না তদন্ত, রাজ্যের বিরুদ্ধে ষড়যন্তের অভিযোগ বিজেপির
ফাইল ছবি

বিজেপি যুব মোর্চার ডাকা উত্তরকন্যা অভিযানে মৃত দলীয় কর্মী উলেন রায়ের ময়না তদন্ত নিয়ে আজও জট কাটল না। সম্ভবত আগামিকাল হবে ময়না তদন্ত।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: বিজেপি যুব মোর্চার ডাকা উত্তরকন্যা অভিযানে মৃত দলীয় কর্মী উলেন রায়ের ময়না তদন্ত নিয়ে আজও জট কাটল না। সোমবার উত্তরবঙ্গের প্রতি রাজ্যের বঞ্চনার অভিযোগ তুলে অভিযান ছিল বিজেপির যুব মোর্চার। ওই অভিযানকে ঘিরে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় গোটা শিলিগুড়ি। শহরের দুই প্রান্ত থেকে দুটি মিছিল করে বিজেপি। একটি জলপাই মোড় থেকে। অন্যটি ফুলবাড়ি মোড় থেকে। ফুলবাড়ি মিছিলের নেতৃত্বে ছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, সাংসদ জয়ন্ত রায়, সায়ন্তন বসু, মিহির গোস্বামীরা।

বিজেপি কর্মীরা মিছিল করে এগোলে পুলিশ বাধা দেয়। বিজেপি কর্মীরা প্রথম ব্যারিকেড ভেঙে এগিয়ে আসে। ফের বাধা দ্বিতীয় ব্যারিকেডে। সেখানেই তুলকালাম বেঁধে যায়। পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট, ঢিল, কাঁচের বোতল ছোঁড়ার অভিযোগ ওঠে বিজেপি কর্মী, সমর্থকদের বিরুদ্ধে। আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয় ভেঙে ফেলা বাঁশের ব্যারিকেডে। চলে দুই পক্ষের ক্ষণ্ড যুদ্ধ। এরই মাঝে তিনটে নাগাদ ক্যানাল রোডের দিকে লুটিয়ে পড়েন উলেন রায়। তাঁকে উদ্ধার করে বিজেপি কর্মীরা সংলগ্ন একটি বেসরকারী হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানেই তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকেরা।

ওই দিন রাতেই উত্তরবঙ্গ মেডিকেলে তাঁর ময়না তদন্ত হয়। কেন রাতের অন্ধকারে? প্রশ্ন তুলে মৃতের দিদি জলপাইগুড়ি আদালতে আবেদন করেন দ্বিতীয়বার ময়না তদন্তের জন্যে। আদালত আবেদন মঞ্জুর করে এবং জানিয়ে দেয় দিনের আলোতেই করতে হবে। এবং আগামী ১১ ডিসেম্বরের মধ্যে সেই রিপোর্ট আদালতে পেশ করতে হবে। কিন্তু আজও ময়না তদন্ত হয়নি। দিনভর মেডিক্যালেই কাটান বিজেপি নেতারা। সূত্রের খবর, আদালতের রায়ের কপি মেডিকেল কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেওয়া হয়। সেটি আবার স্বাস্থ্য ভবনে পাঠানো হয়েছে। সম্ভবত আগামিকাল হবে ময়না তদন্ত।

এদিকে উত্তরকন্যায় গোলমালের জন্যে বিজেপির রাজ্য এবং কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাশ বিজয় বর্গী, তেজস্বী সুরিয়া, দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়, সায়ন্তন বসু-সহ ৮ সাংসদের বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা রুজু করেছে পুলিশ। একাধিক জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। দিলীপ ঘোষ, সায়ন্তন বসু, জয়ন্ত রায়, মিহির গোস্বামীদের বিরুদ্ধে খুনের চেষ্টার অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। যদিও বিজেপি নেতারা সাফ জানিয়ে দিয়েছে, মিথ্যে মামলা করা হয়েছে।

Partha Sarkar

Published by: Shubhagata Dey
First published: December 9, 2020, 11:00 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर