corona virus btn
corona virus btn
Loading

চার জায়গায় মিলল ‘সচিন’-এর পায়ের ছাপ, এখনও অধরা চিতাবাঘ

চার জায়গায় মিলল ‘সচিন’-এর পায়ের ছাপ, এখনও অধরা চিতাবাঘ
নিজস্ব চিত্র
  • Share this:

#শিলিগুড়ি: সাফারি পার্কে চলছে ‘অপারেশন সচিন’। শিলিগুড়ির বেঙ্গল সাফারি পার্কে এনক্লোজার থেকে পালানো চিতাবাঘ ধরতে আনা হয়েছে মোট চারটি কুনকি হাতি। ৪ জায়গায় ‘সচিন’-এর পায়ের ছাপ মিলেছে, কিন্তু এখনও দেখা মেলেনি ‘সচিন’-এর। পাতা হয়েছে খাঁচা। বৃহস্পতিবারও বন্ধ থাকবে এলিফ্যান্ট সাফারি। হেঁটে জঙ্গল সাফারিও বন্ধ থাকবে।

শিলিগুড়ির সাফারি পার্ক। এখন এখানে চাপা আতঙ্ক। খোঁজ নেই সাফারি পার্কের বাসিন্দা সচিনের। মঙ্গলবার এনক্লোজার থেকে উধাও হয় চিতাবাঘ। তারপর তৃণভোজীদের এনক্লোজারে দেখা যায় সচিনকে। তাকে বাগে আনতে পাতা হয় খাঁচা। আনা হয় কুনকি হাতি। কিন্তু, ওই পর্যন্তই। বুধবারও মেলেনি তার খোঁজ।

সাফারি পার্কে মোট পাঁচটি চিতাবাঘ রয়েছে:

- নাইট শেল্টারে থাকে কাজল, শীতল ও নয়ন নামে তিনটি চিতাবাঘ - পর্যটকদের জন্য এনক্লোজারে ছিল সচিন ও সৌরভ নামে দুটি চিতাবাঘ

কুড়ি হেক্টর এলাকা জুড়ে চিতাবাঘের এনক্লোজার। মঙ্গলবার সকালে বনকর্মীরা দেখতে পান, একটি চিতাবাঘ উধাও।

সচিন নামের চিতাবাঘটি গাছে উঠে বসেছিল। সেই গাছ বেয়ে, চিতাবাঘটি আঠেরো ফুট উঁচু পাঁচিল ও তার উপরে থাকা ইলেকট্রিক ফেনসিং পেরিয়ে চলে যায়।

চিতাবাঘের এনক্লোজার থেেক পালিয়ে তৃণভোজী প্রাণিদের এনক্লোজারে ঢুকে পড়ে সচিন। সেখানে তাকে দেখা যায়, গর্জনও শোনা যায়, কিন্তু ধরা যায়নি। ৯০ হেক্টর জুড়ে ছড়ানো তৃণভোজীদের এনক্লোজার থেকে চিতাবাঘ সচিনকে খুঁজে বের করতে ৪টি কুনকি হাতি নামানো হয়েছে। পাতা হয়েছে খাঁচাও।

সূত্রের খবর, সচিন বরাবরই উগ্র স্বভাবের। প্রায় দু’মাস আগে এক বনকর্মীর উপর হামলাও করে চিতাবাঘটি। তারপর বাড়তি নজর চালানো সত্বেও কী করে পালাল তা নিয়ে চক্ষু চড়কগাছ বন দফতরের আধিকারিকদের। এদিকে, সচিন উধাও হওয়ায় বাড়তি নজর রাখা হয়েছে তার সঙ্গী সৌরভের উপরেও। এনক্লোজার থেকে তাকে আনা হয়েছে নাইট শেল্টারে। বুধবার পর্যটকদের জন্য সাফারি পার্ক খোলা থাকলেও হেঁটে বা হাতির পিঠে চেপে জঙ্গল সাফারি বন্ধ রাখা হয়েছে।

First published: January 2, 2019, 7:30 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर