স্কুলের দখল নিয়েছে ঠিকা সংস্থা, ক্লাসেই খাওয়া-ঘুম, পড়াশোনা লাটে

স্কুলের দখল নিয়েছে ঠিকা সংস্থা, ক্লাসেই খাওয়া-ঘুম, পড়াশোনা লাটে
ছাত্রছাত্রীরই ঠাঁই নেই স্কুলে

গত প্রায় দশদিন ধরে স্কুলের পড়াশুনা লাটে উঠেছে। কারণ, স্কুল ভবনের বেশীর ভাগ অংশ দখল নিয়েছে বেসরকারি ঠিকাদারি সংস্থা।

  • Share this:

#মালদহঃ সরকারি স্কুল বাড়ির বেশির ভাগেরই দখল নিয়েছে বেসরকারি ঠিকাদারি সংস্থা। ক্লাস রুমে রান্না খাওয়া সারছেন ঠিকাদারের কর্মীরা। আর খুদে পড়ুয়াদের ঠাঁই হয়েছে স্কুলের বারান্দায়। ঘটনা মালদহের মানিকচকের ছবিপণ্ডিত টোলা প্রাথমিক স্কুলের। টাকার বিনিময়ে ঠিকাদারি সংস্থাকে স্কুল ভাড়া দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে।

মালদহের মানিকচক ব্লকের ভূতনীর হিরানন্দপুরের ছবিপণ্ডিতটোলা প্রাথমিক স্কুলে পড়ুয়ার সংখ্যা প্রায় ২০০। শিক্ষক রয়েছেন দুইজন। আর  পার্শ শিক্ষক সংখ্যা এক। গত প্রায় দশদিন ধরে স্কুলের পড়াশুনা লাটে উঠেছে। কারণ, স্কুল ভবনের বেশীর ভাগ অংশ দখল নিয়েছে বেসরকারি ঠিকাদারি সংস্থা। এলাকায় গঙ্গা ভাঙন রোধের কাজের জন্য কার্যত সাইট অফিস হয়েছে সরকারি স্কুলে। এরজন্য চাটাই দিয়ে ঘিরে ফেলা হয়েছে স্কুলের বড় অংশ। সেখানে থাকছে ঠিকাদারি সংস্থার মালপত্র। স্কুলের ক্লাস ঘরে প্রকল্পের শ্রমিকরা নাওয়া ,খাওয়া, ঘুম সারছেন। ক্লাস ঘরের পাশাপাশি ঠিকাদারি সংস্থার দখলে স্কুলের খেলার মাঠ। এমনকি শৌচাগারও। বন্ধ হয়ে গিয়েছে মিড ডে মিল। স্কুলে শৌচাগারের বদলে আশপাশের মাঠ আর প্রতিবেশীদের বাড়িতে যাচ্ছে কচিকাঁচারা। শিশুদের বারান্দার মেঝেতে বসিয়ে ক্লাস নেওয়া চলছে।

অভিযোগ. স্থানীয় কিছু মাতব্বরের মধ্যস্থতায় স্কুলের সরকারি ভবন ভাড়া দেওয়া হয়েছে ঠিকাদারি সংস্থাকে।জানা গিয়েছে, আরও দুই মাস এমন ভাবেই কাজ চলার কথা। কিন্তু, কেন স্কুল বাড়িতে থাকার ব্যবস্থা? ঠিকাদারি সংস্থার কর্মীরা বলছেন মালিক পক্ষ স্কুল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে থাকার অনুমতি নিয়েছেন।এভাবে স্কুল বাড়ি ভাড়ায় দেওয়ার অভিযোগ ওঠায় ক্ষুব্ধ মানিকচক পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি কবিতা মণ্ডল। অবিলম্বে স্কুল বাড়ি খালি করার জন্য শিক্ষা  দপ্তরের হস্তক্ষেপ চেয়েছেন তিনি। কিন্তু কেন স্কুল বাড়ি দেওয়া হল ঠিকাদারি সংস্থাকে? ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দাবি, ভাড়া দেওয়া হয়নি।

সেবক দেবশর্মা

First published: March 14, 2020, 5:35 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर