Laxmir Bhandar: লক্ষ্মীর ভান্ডারের ফর্ম ফিলাপ করে টাকা আদায়! মুখ্যমন্ত্রী-হুঁশিয়ারিতেও জারি চুরি

'লক্ষ্মীর ভান্ডারে' চুরি

Laxmir Bhandar: লক্ষ্মীর ভান্ডার সহ একাধিক প্রকল্পে দুর্নীতি বা টাকা লেনদেন রুখতে কড়া অবস্থান নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

  • Share this:

    #জলপাইগুড়ি: লক্ষ্মীর ভান্ডার সহ একাধিক সরকারি প্রকল্পের ফর্ম ফিলাপের নামে টাকা আদায়ের অভিযোগে এক সিভিক ভলেন্টিয়ার সহ চার জনকে গ্রেফতার করল শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনারেটের আমবাড়ি ফাঁড়ির পুলিশ। গত একমাস ধরে অভিযুক্তরা সরকারি বিভিন্ন প্রকল্পের ফর্ম ফিলাপ করে দেওয়ার নামে টাকা আদায় করছিল বলে অভিযোগ।

    সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই বৃহস্পতিবার রাতে শিখা দে সরকার, বাপ্পা দে সরকার, বাপি দে সরকার এবং বিশ্বজিৎ মোহন্ত নামে চার অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে আমবাড়ি ফাঁড়ির পুলিশ। এদের মধ্যে বাপ্পা দে সরকার শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনারেটে সিভিক ভলেন্টিয়ার পদে কর্তব্যরত বলে জানা গিয়েছে। ধৃতদের আজ জলপাইগুড়ি আদালতে হাজির করবে পুলিশ।

    প্রসঙ্গত, লক্ষ্মীর ভান্ডার সহ একাধিক প্রকল্পে দুর্নীতি বা টাকা লেনদেন রুখতে কড়া অবস্থান নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবারই তিনি জানিয়েছেন, দুয়ারে সরকার কর্মসূচির অধীনেই শুরু হবে 'লক্ষ্মীর ভান্ডার' প্রকল্প। মুখ্যমন্ত্রী বলেন " লক্ষীর ভান্ডার এর জন্য বিনামূল্যে ফর্ম পাওয়া যাবে। কোন ট্যাক্স দিতে হবে না। দুয়ারে সরকারেই এই কাজ করা যাবে। এই আবেদনপত্র নকল করা যাবে না। একটা ইউনিক computer-generated নম্বর থাকবে ওই আবেদন পত্রে। একমাত্র দুয়ারে সরকারের লক্ষ্মীর ভান্ডার এর কাউন্টার থেকেই এই আবেদন পত্র পূরণ করা যাবে। তবেই সেটা মান্যতা পাবে।"

    লক্ষ্মীর ভান্ডার নিয়ে কোন অভিযোগ জানাতে হলে মুখ্যমন্ত্রীর অফিসে সরাসরি ফোন করা যাবে। এ প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বলেন " যদি কোন অভিযোগ থাকে তাহলে ১০৭০/২২১৪৩৫২৬ নম্বরে ফোন করে অভিযোগ জানানো যাবে। অভিযোগের নিষ্পত্তি করা হবে। যে ইউনিক নম্বর দেওয়া থাকবে সেই নম্বর নকল করে কেউ কিছু করতে পারবে না। বাইরে থেকে কেউ আবেদনপত্র নিয়ে এলে বা কোন এজেন্সিতে কে নিয়ে এলে ওই আবেদনপত্রগুলো কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য হবে না।"

    কিন্তু একদিকে যখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই ধরনের দুর্নীতি রুখতে কড়া হচ্ছেন, তখন অপরদিকে আড়ালে আবডালে এ ধরনের অনৈতিক কাজ করেই চলেছেন কিছু ব্যক্তি।

    Published by:Suman Biswas
    First published: