corona virus btn
corona virus btn
Loading

লম্ফ ঝম্ফ দেখে বোঝার উপায় নেই যে ওদের বয়স ৯ দিন! ৩ রয়্যাল বেঙ্গল শাবক নিয়ে উচ্ছ্বাস...

লম্ফ ঝম্ফ দেখে বোঝার উপায় নেই যে ওদের বয়স ৯ দিন! ৩ রয়্যাল বেঙ্গল শাবক নিয়ে উচ্ছ্বাস...
Tiger Cub

তিন রয়্যাল বেঙ্গল শাবকদের ঘিরে খুশির আবহ সাফারি পার্কে

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: বৃহস্পতিবার ওদের বয়স ৯ দিন! কিন্তু দেখে বিন্দুমাত্র বোঝার উপায় নেই! ছটফটানি বেড়েছে কয়েক গুন। প্রতিদিনই বাড়ছে দুষ্টুমিও! হ্যাঁ, ওরা বেঙ্গল সাফারি পার্কের তিন নতুন অতিথি। দিনভর টাইগার এনক্লোজারে মা "শীলা" র সঙ্গেই ব্যস্ত খুনসুঁটিতে! মায়ের দুধ খেয়েই বেড়ে উঠছে দিব্বি! চোখও ফোটেনি তিন রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার শাবকের। চোখ ফুটতে আরও ১২ থেকে ১৫ দিন সময় লাগবে।  তার আগে ওদের লম্ফ ঝম্ফ দেখে বোঝা মুশকিল! আপন মনে খেলায় মগ্ন! মায়ের আদরে ধীরে ধীরে বেড়ে উঠছে।

মা শীলাও দিব্ব্যি খাওয়া দাওয়া করছে। বেড়েছে খাবারের পরিমাণও! আগে যেখানে প্রতিদিন গড়ে ৯ কেজি মাংস ছিল ওর মেনু! এখন আরও ১৫ থেকে ২০ শতাংশ বেশি মাংস দিতে হচ্ছে শীলার পাতে। আর তিন শাবককে মাংস দেওয়া হবে ২ মাস পর। তবে প্রথম ৬ মাস মায়ের দুধই খেতে হবে। আপাতত একটি এনক্লোজারে মা শীলার সঙ্গে রয়েছে তিন সদ্যজাত নতুন অতিথি! বাবা বেভান রয়েছে অন্য এনক্লোজারে! আর শীলার আগের দুই শাবক রিকা এবং কিকা আলাদা এনক্লোজারে!

লকডাউনের আগে থেকেই বন্ধ সাফারি পার্কের দরজা। দেখা নেই পর্যটকদের! এক্কেবারে নির্জন! চারপাশে কান পাতলে শোনা যাচ্ছে নানা নাম না জানা পাখির কলতান। কখনও বেভানের হুঙ্কার তো কখনও বা কুনকি হাতিদের ডাক! বন কর্মী ছাড়া আর কেউ নেই। নেই ক্যামেরার ফ্লাশ বাল্বের ঝলকানিও! বেঙ্গল সাফারি পার্কের ডিরেক্টর ধর্মদেও রাই জানান, আপাতত পার্ক খোলার দিনক্ষন ঠিক হয়নি। তিন নতুন অতিথিকে নিয়ে ভালই আছে শীলা। বিশেষ কেয়ারে রাখা হয়েছে। তবে কেউই ওদের কাছে যাচ্ছে না। সাধারন পর্যটকদের কাছে এখন ভরসা সাফারি পার্কের ফেসবুক পেজ। ওখানেই নজর রাখছেন পর্যটকেরা! কবে সামনে আসবে, তা জানা নেই। তাই একবার অতিথি ত্রয়ীকে দেখার জন্যে ফেসবুকই ভরসা!

Published by: Pooja Basu
First published: August 20, 2020, 7:40 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर