corona virus btn
corona virus btn
Loading

শিলিগুড়িতে ক্রিকেট স্টেডিয়াম চান ঋদ্ধিমান সাহা ! দাবী আদায়ে গণসাক্ষর অভিযান চালু

শিলিগুড়িতে ক্রিকেট স্টেডিয়াম চান ঋদ্ধিমান সাহা ! দাবী আদায়ে গণসাক্ষর অভিযান চালু

ক্রিকেটের উন্নয়নের জন্যে স্টেডিয়াম তৈরি করে দিলে শহরে আরও জনপ্রিয় হয়ে উঠবে ব্যাট-বলের লড়াই।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: এই শহর থেকেই জাতীয় দলে প্রতিনিধিত্ব করেছে ঋদ্ধিমান সাহা। ব্যাট হাতে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন আই পি এলেও। বিদেশের মাটিতে জাতীয় দলের ক্যাপ পড়ে একের পির এক দুর্ধর্ষ ক্যাচ ধরেছেন উইকেটের পেছনে দাঁড়িয়ে। রাজ্য ছাড়িয়ে দেশের গর্ব হয়ে উঠেছেন। শিলিগুড়ি শহর থেকেই জাতীয় মহিলা দলের হয়ে টি টুয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলেছেন রিচা ঘোষ। এখনো জাতীয় দলের নিয়মিত ক্রিকেটার। এই শহর বাংলা রঞ্জি দলে উপহার দিয়েছে একাধিক ক্রিকেটার। এই শহর অসম রঞ্জি দলকেও দিয়েছে ক্রিকেটার উপহার।

বাংলা মহিলা দলেও খেলছেন শহরের প্রতিশ্রুতিবান ক্রিকেটারেরা। টেবল টেনিসের শহর হিসেবে পরিচিত শিলিগুড়ি এখন ক্রিকেটার তৈরীরও কারখানা হয়ে উঠছে। অথচ শহরে নেই কোনও ক্রিকেট স্টেডিয়াম। ভরসা বলতে গেলে সেই কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়াম। ফুটবলের জন্যে তৈরী স্টেডিয়ামেই চলে ক্রিকেট লিগ। পুরমন্ত্রী থাকাকালীন অশোক ভট্টাচার্য মাটিগাড়ার উত্তরায়ণে ক্রিকেট স্টেডিয়ামের জন্যে জমির ব্যবস্থা করে দিয়েছিলেন। সেই প্রকল্পও এখন বিশবাঁও জলে! মাঝে কয়েক বছর সেখানে ক্রিকেট লিগ হলেও তা বন্ধ রয়েছে। অগত্যা কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়ামই ভরসা। তাই শহরজুড়ে এখন পুর্ণাঙ্গ ক্রিকেট স্টেডিয়াম গড়ার আওয়াজ উঠেছে। প্রাক্তন ক্রিকেটারেরা আজ ঐক্যবদ্ধ।

তাদের দাবী, শিলিগুড়িতে চাই ক্রিকেট স্টেডিয়াম। সেই দাবীতে রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেবের কাছে স্মারকলিপিও দিয়েছে শিলিগুড়ি ক্রিকেট লাভার্স এসোসিয়েশন। মুখ্যমন্ত্রীর কাছেও দাবী, জমির অনুমোদন দিলেই স্টেডিয়াম হবে। সংগঠনের সভাপতি প্রাক্তন ক্রিকেটার মনোজ ভার্মার দাবী, অবিলম্বে ক্রিকেট স্টেডিয়ামের জন্যে জমির ব্যবস্থা করা হোক। শিলিগুড়ির উন্নয়নে অনেক কাজ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। ক্রিকেটের উন্নয়নের জন্যে স্টেডিয়াম তৈরি করে দিলে শহরে আরও জনপ্রিয় হয়ে উঠবে ব্যাট-বলের লড়াই। সেই দাবীতেই আজ স্টেডিয়ামের বাইরে গণ সাক্ষর অভিযানে নেমেছে ক্রিকেট লাভার্স এসোসিয়েশন। শহরবাসীও এগিয়ে এসছে। সংগৃহীত সাক্ষর সম্বলিত ফ্লেক্স তুলে দেওয়া হবে উত্তরকণ্যায় মুখ্যমন্ত্রীর দফতরে। সঙ্গে একটি স্মারকলিপিও। সংগঠনের দাবী, কাওয়াখালিতে জমিও আছে। এই প্রসঙ্গে এসজেডিএ'র ভাউস চেয়ারম্যান নান্টু পালও জানান, ক্রিকেট স্টেডিয়ামের জন্যে জমি রয়েছে। এখন প্রয়োজন সরকারী অনুমোদন।

PARTHA PRATIM SARKAR

Published by: Piya Banerjee
First published: October 18, 2020, 12:29 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर