উত্তরবঙ্গ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

নাগর নদীর জলে প্লাবিত গ্রাম পঞ্চায়েতের বিস্তীর্ন এলাকা

নাগর নদীর জলে প্লাবিত গ্রাম পঞ্চায়েতের বিস্তীর্ন এলাকা

রায়গঞ্জ নাগর নদীর জলে প্লাবিত রায়গঞ্জ ব্লকের বাহিন,গৌরী,জগদীশপুর এবং ভাটোর গ্রাম।

  • Share this:

#রায়গঞ্জ: রায়গঞ্জ নাগর নদীর জলে প্লাবিত রায়গঞ্জ ব্লকের বাহিন,গৌরী,জগদীশপুর এবং ভাটোর গ্রাম। প্রায় চার হাজার পরিবার ক্ষতিগ্রস্থ। শতাধিক পরিবারকে উচু জায়গায় তুলে আনা হয়েছে বলে পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি মানস ঘোষ জানিয়েছেন। একটানা প্রবল বর্ষনে নাগর নদীর জল ফুলে ফেপে উঠেছে।সেচ দপ্তর সূত্রে জানা গেছে,উত্তর দিনাজপুর জেলায় একমাত্র নাগর নদীর জল বিপদসীমার উপর দিয়ে বইছে।নদীর জল বিপদসীমার উপর বয়ে যাওয়ায় নাগর নদী সংলগ্ন জগদীশপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের খাড়ি সরিয়াবাদ,মহনা,জগিদীশপুর,পাঁঁচভায়া এবং বটতলা গ্রাম।বাহিন গ্রাম পঞ্চায়েতেরকুমারজোল,কামারপাড়া,বালিরপাড়,বাহিন,মাকড়া,মাধবপুর,বিষ্ণপুর,ভুলকাই,কুমরোল,টেগরা,লোহজগ্রাম,ছিটরাজপুর গ্রাম,গৌরী গ্রাম পঞ্চায়েতের অনন্তপুর,ভিটিহার,দুগদূয়ার,নিমতলা,পাড়ারপুকুর,রহমতপুর গোয়ালদহ গ্রাম এবং শীতগ্রাম পঞ্চায়েতের মহিগ্রাম,শিয়ালতোর,শুকুটোলা,তিওড়ডাঙ্গি গ্রাম জলমগ্ন।

মূলত নদী সংলগ্ন এলাকাতেই জল ঢুকেছে। নদীর জল বাড়ায় বেশ কিছু এলাকার মানুষ জলবন্দী হওয়ায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন গ্রামবাসিরা।জলবন্দী গ্রামবাসির অভিযোগ, গতকাল থেকে জল বাড়লেও প্রশাসনের কোন কর্তার দেখা মেলে নি।পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি মানস ঘোষ জানিয়েছে, রায়গঞ্জ ব্লকে জলবন্দী মানুষদের উদ্ধারে নৌকা নামানো হয়েছে।গতকাল উদ্ধারের কাজে ব্যস্ত থাকায় ত্রান সামগ্রী পৌছানো সম্ভব হয় নি।আজ সকাল থেকে জলবন্দী মানুষদের কাছে ত্রান পৌছানোর কাজ শুরু হয়েছে।

Published by: Akash Misra
First published: September 29, 2020, 9:20 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर