Raiganj : রায়গঞ্জে স্টেশন পরিদর্শনে উত্তরপূর্ব রেলের কাটিহার ডিভিশনের ডি আর এম, স্থানীয় সাংসদ ও বিধায়ক

পরে এই প্রতিনিধি দল একটি বৈঠকে বসেন

রায়গঞ্জ রেলস্টেশনে (Raiganj Rail Station) রেক পয়েন্ট -সহ সামগ্রিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে পরিদর্শনে এলেন উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ের কাটিহার ডিভিশনের ডিভিশনাল ম্যানেজার শুভেন্দুকুমার চৌধুরী।

  • Share this:

রায়গঞ্জ : রায়গঞ্জ রেলস্টেশনে (Raiganj Rail Station) রেক পয়েন্ট -সহ সামগ্রিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে পরিদর্শনে এলেন উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ের কাটিহার ডিভিশনের ডিভিশনাল ম্যানেজার শুভেন্দুকুমার চৌধুরী।   শুক্রবার রেক পয়েন্টের জায়গা পরিদর্শনে তাঁর সঙ্গে ছিলেন রায়গঞ্জের সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরী,  রায়গঞ্জের বিধায়ক কৃষ্ণ কল্যাণী,  রায়গঞ্জ মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক অতনুবন্ধু লাহিড়ী-সহ রায়গঞ্জ রেলস্টেশন উন্নয়ন কমিটির সদস্যরা।

পরে এই প্রতিনিধি দল একটি বৈঠকে বসেন। রেলওয়ের কাটিহার ডিভিশনের ডিভিশনাল ম্যানেজারের কাছে দেবশ্রী চৌধুরী এবং কৃষ্ণ কল্যাণী রায়গঞ্জ রেলস্টেশনের পরিকাঠামো উন্নয়নের কিছু প্রস্তাব দেন।  ডিআরএম  শুভেন্দুকুমার চৌধুরী সেই প্রস্তাবগুলো রেলওয়ে বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠিয়ে দেবেন বলে জানান। এর পাশাপাশি ডিআরএম এও জানিয়ে দেন রেলওয়ে বোর্ডের নির্দেশ মতো ২৫ শতাংশ ট্রেনই চলাচল করবে। তৃতীয় ঢেউয়ের পরিস্থিতি দেখে পরবর্তীতে বেশি সংখ্যক ট্রেন চালানো হতে পারে বলে জানান তিনি।

কাটিহার-রাধিকাপুর রেললাইন ধরেই ভারত-বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক পণ্য আমদানি-রপ্তানি চলে। এই রেলপথেই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ স্টেশন রায়গঞ্জ। বাংলাদেশের সঙ্গে পণ্য আমদানি রপ্তানি সহ আন্তঃরাজ্য বাণিজ্যের জন্য প্রয়োজন রেক পয়েন্টের। সেই রেক পয়েন্ট রায়গঞ্জ স্টেশন সংলগ্ন রেলওয়ের জায়গায় করা যায় কিনা তা খতিয়ে দেখতে শুক্রবার রায়গঞ্জ স্টেশন পরিদর্শন করা হয় ৷

রায়গঞ্জের বিধায়ক কৃষ্ণ কল্যাণী বলেন, ‘‘আমি ডিআরএম-এর কাছে প্রস্তাব দিয়েছি রায়গঞ্জ থেকে কলকাতাগামী রাধিকাপুর এক্সপ্রেস ট্রেনকে দমদমে একটি স্টপ দেওয়ার জন্য ৷ যাতে এখানকার মানুষ খুব সহজেই দমদমে নেমে অন্যান্য ট্রেন বা বাসে চেপে কিংবা ফ্লাইটে অন্যত্র দ্রুত যাতায়াত করতে পারেন। কেননা যেখানে রাধিকাপুর এক্সপ্রেস ট্রেনটি দাঁড়ায় সেই চিৎপুর স্টেশন থেকে অন্যত্র যাতায়াতে চরম অসুবিধার মুখে পড়তে হয় রেলযাত্রীদের।’’

এর পাশাপাশি রায়গঞ্জ শহরে যানজট এড়ানোর জন্য স্টেশনে রেক পয়েন্টের পরিবর্তে বাঙালবাড়িতে রেক পয়েন্ট করার প্রস্তাব দেন রায়গঞ্জের বিধায়ক কৃষ্ণ কল্যাণী।  কাটিহার ডিভিশনের ডিভিশনাল ম্যানেজার শুভেন্দুকুমার চৌধুরী বলেন তিনি রায়গঞ্জ রেলস্টেশনে পরিদর্শনে আসেন মূলত রেক পয়েন্ট নির্মাণের জন্য জায়গা দেখতে। এখানে জায়গা দেখার পাশাপাশি আরও দু’ একটি স্টেশনেও রেক পয়েন্টের জন্য জায়গা দেখা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। সাংসদ এবং বিধায়ক যে সব প্রস্তাব তাঁকে দিয়েছেন সে সব একত্রিত করে রেলবোর্ডের কাছে পাঠানো হবে বলে ডিআরএম জানিয়েছেন।

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published: