Rahul Gandhi in Bengal: 'বিজেপি-র সঙ্গে অতীতে জোট করেছেন', মোদির সঙ্গে মমতাকেও নিশানা রাহুলের

Rahul Gandhi in Bengal: 'বিজেপি-র সঙ্গে অতীতে জোট করেছেন', মোদির সঙ্গে মমতাকেও নিশানা রাহুলের

বাংলায় প্রচারে এসে একসঙ্গে মোদি-মমতাকে নিশানা রাহুলের৷

রাজ্যে চার দফার ভোট হয়ে যাওয়ার পর এই প্রথম প্রচারে এলেন রাহুল গাঁধি৷ এ দিন উত্তর দিনাজপুরের গোয়ালপোখরে জনসভা করেন তিনি৷

  • Share this:

    #গোয়ালপোখর: বাংলায় ভোট প্রচারে এসে একযোগে নরেন্দ্র মোদি (PM Narendra Modi) এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Mamata Banerjee) আক্রমণ করলেন কংগ্রেস (CONG) নেতা রাহুল গাঁধি (Rahul Gandhi)৷ তাঁর অভিযোগ বিজেপি (BJP) বাংলায় বিভাজনের রাজনীতি করে ক্ষমতায় আসতে চাইছে৷ আবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আমলে রাজ্যে উন্নয়ন, কর্মসংস্থান না হওয়ার অভিযোগেও সরব হয়েছেন রাহুল৷ পাশাপাশি, অতীতে বিজেপি-র সঙ্গে জোটের কথা মনে করিয়ে দিয়েও মমতার অস্বস্তি বাড়ানোর চেষ্টা করেছেন কংগ্রেস নেতা৷

    রাজ্যে চার দফার ভোট হয়ে যাওয়ার পর এই প্রথম প্রচারে এলেন রাহুল গাঁধি৷ এ দিন উত্তর দিনাজপুরের গোয়ালপোখরে জনসভা করেন তিনি৷ বক্তব্যের বেশির ভাগ অংশেই অবশ্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং বিজেপি-কে আক্রমণ করেছেন রাহুল৷ তাঁর অভিযোগ, উত্তর প্রদেশের মতো বাংলাতেও বিভাজনের রাজনীতি করে ক্ষমতায় আসতে চাইছে বিজেপি৷ আর একবার তা হলে বাংলায় আগুন জ্বলবে৷ কংগ্রেস নেতা বলেন, 'নরেন্দ্র, অমিত শাহদের কিছু হবে না৷ আগুন লাগলে এখানে লাগবে৷ নরেন্দ্র মোদি, অমিত শাহ পুড়বেন না, ওনাদের নিরাপত্তা আছে৷ বাংলা জ্বলবে৷ বাংলার মা বোনেরা পুড়বে৷ একবার বাংলাকে বিভক্ত করতে পারলে এখানে আগুন লাগা কেউ আটকাতে পারবে না৷ এমন আগুন জ্বলবে যা আগে কেউ কোনওদিন দেখেননি৷ আমরা ভোটে লড়ছি না৷ ইতিহাস, ভাষাকে রক্ষা করার লড়াইয়ে নেমেছি৷ বাংলা ভাগ হলে সবথেকে বেশি ক্ষতি হবে বাংলার জনতার, বাংলার ভবিষ্যতের৷' রাহুল গাঁধির অভিযোগ, বাংলার মতো অসম, তামিলনাড়ুতেও একই ভাবে হিংসা আর ঘৃনা ছড়াচ্ছে বিজেপি৷

    উত্তর প্রদেশের উদাহরণ দিয়ে রাহুল বলেন, 'বিজেপি উত্তরপ্রদেশে বিভাজনেপ আগুন লাগিয়ে ভোটে জিতেছে৷ তার পরে কী হয়েছে? হাসপাতালগুলি করোনায় মৃতদের লাশে ভরে গিয়েছে৷ যেদিকেই তাকাবেন, মানুষ করোনায় মরছে, মুখ্যমন্ত্রীর কোনও হেলদোল নেই৷ উন্নয়নের নিরিখেও কিছু হয়নি৷'

    এর পরেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করেন রাহুল গাঁধি৷ তিনি বলেন, 'এখানকার লক্ষ লক্ষ মানুষ কাজের খোঁজে বাইরে যান৷ এখানে কাজ মেলে না৷ না মোদিজি দেয়, না মমতাজি দেয়৷ আর যেটুকু মেলে, তার জন্য আগে কাটমানি দিতে হয়৷ বাংলাই প্রথম রাজ্য যেখানে রোজগারের জন্য আগে টাকা দিতে হয়৷ এটাই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অবদান৷ বলছে ভোটের সময় খেলা হবে৷ এখানে রাস্তা, কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় কে করবে? নাটক চলছে৷ মোদিজি বলছেন করোনা এলে থালা, ঘণ্টা বাজাও, মোবাইলের টর্চ জ্বালাও৷ ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রী এ রকম হয়?'

    নোটবাতিল, জিএসটি, লকডাউন, নয়া কৃষি আইন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ করে রাহুল বলেন, 'প্রথমে দেশের ছোট ব্যবসায়ী তার পরে এখন কৃষকদের সর্বনাশ করে বাংলায় এসে বলছেন সোনার বাংলা গড়ব৷ সব জায়গায় গিয়ে তাই বলছেন৷ ভারতের অর্থনীতিকে নষ্ট করে দিয়েছেন৷ আগে ভারতের অর্থনীতি নিয়ে বিদেশেও প্রশংসা হত৷ গোটা দুনিয়া ভারতের পরিস্থিতি দেখে হাসছে৷'

    কংগ্রেস এবং তাদের জোট প্রার্থীদের জয়ী করার আবেদন করে রাহুল বলেন, 'মমতাজিকে আপনারা দায়িত্ব দিলেন বাংলা চালানোর৷ উনি কি আপনাদের জন্য কাজ করেছেন? আপনাদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করেছেন? রাস্তা, কলেজ বানিয়েছেন? তাহলে কী লাভ হল? ফলে আপনাদের ভেবেচিন্তে সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থীদের জয়ী করুন৷'

    বক্তব্যের শেষ দিকে অতীতে তৃণমূল- বিজেপি-র জোটের প্রসঙ্গও তোলেন রাহুল৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে অস্বস্তিতে ফেলতে রাহুল বলেন, 'কংগ্রেস কোনওদিন বিজেপি-র সঙ্গে সমঝোতা করেনি৷ মমতা করেছেন৷ মনে রাখবেন, আমাদের আরএসএস- বিজেপির সঙ্গে আদর্শগত লড়াই, শুধু রাজনৈতিক লড়াই নয়৷ আরএসএস-এর আদর্শ আমাদের সবথেকে বড় নেতা, গাঁধিজির হত্যার জন্য দায়ী৷ মরে গেলেও বিজেপি-র সঙ্গে আমরা হাত মেলাবো না৷ মমতাজির কাছে এটা শুধু রাজনৈতিক লড়াই৷ এই কারণেই কংগ্রেস মুক্ত ভারতের কথা বলেছেন মোদি৷ তৃণমূল মুক্ত ভারতের কথা বলেনি৷ কারণ তৃণমূলে ওদের আপত্তি নেই৷ ওনাদের লড়াই কংগ্রেসের সঙ্গে, কংগ্রেসের আদর্শের সঙ্গে৷ কারণ উনি জানেন যে রাহুল গাঁধি ওদের ভয় পায় না, বরং ওঁরাই রাহুল গাঁধিকে ভয় পায়৷'

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: