চোর- ডাকাত নয়, বাড়ি বাড়ি ঘুরে আরশোলা ধরছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ

চোর- ডাকাত নয়, বাড়ি বাড়ি ঘুরে আরশোলা ধরছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ
তক্ষকের জন্য আরশোলা ধরতে ব্যস্ত পুলিশ।

শনিবার থেকে তক্ষকগুলি রায়গঞ্জ থানায় রয়েছে। দু' টি তক্ষকের সারা দিনে খেতে তিনটি আরোশোলা লাগে।এই আরশোলা ধরার জন্য রায়গঞ্জ থানার আইসি চার সিভিক ভলেন্টিয়ারদের দায়িত্ব দিয়েছেন।

  • Share this:

#রায়গঞ্জ: তক্ষক ধরে বিপাকে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ। তক্ষকের মূল খাদ্য আরশোলা।সেই আরশোলা ধরতে পুলিশের কালঘাম ছুটছে।

রায়গঞ্জ থানার পুলিশ বাজিতপুর গ্রাম থেকে নজরুল ইসলাম নামে এক ব্যাক্তির বাড়ি থেকে দু' টি তক্ষক এবং বেশ কিছু মাদক উদ্ধার করে। অভিযুক্ত নজরুল ইসলামকে পুলিশ গ্রেফতার করে। উদ্ধার হওয়া তক্ষক দু' টিকে রায়গঞ্জ থানায় নিয়ে আসা হয়। পুলিশ সুপার সুমিত কুমার জানিয়েছেন, উদ্ধার হওয়া তক্ষক দু'টির আনুমানিক মূল্য ৫০ লক্ষ টাকা। ধৃতকে সোমবার আদালতে পেশ করবে পুলিশ। আদালতের নির্দেশেই তক্ষকগুলি বন দফতরের হাতে তুলে দেবে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ।

শনিবার থেকে তক্ষকগুলি রায়গঞ্জ থানায় রয়েছে। দু' টি তক্ষকের সারা দিনে খেতে তিনটি আরোশোলা লাগে।এই আরশোলা ধরার জন্য রায়গঞ্জ থানার আইসি চার সিভিক ভলেন্টিয়ারদের দায়িত্ব দিয়েছেন। নাওয়া খাওয়া ভুলে আইসি- র নির্দেশ তালিম করতে এ বাড়ি ও বাড়ি ঘুরে আরশোলা ধরছেন। আর তা করতে গিয়েই রীতিমতো নাকানিচোবানি খাচ্ছেন ওই  সিভিক ভলেন্টিয়াররা। এখন তাঁদের একটাই প্রার্থনা, যত দ্রুত তক্ষকগুলিকে বন দফতরের হাতে যাতে তুলে দেওয়া যায়।

পুলিশ সুপার সুমিত কুমার জানিয়েছেন, উত্তর দিনাজপুর জেলার পুলিশ দু' টি তক্ষক সহ  ১০৮ গ্রাম ব্রাউন সুগার এবং ইয়াবা নিষিদ্ধ ড্রাগ এবং ব্রাউন সুগার মাপার যন্ত্র, দু' টি মোবাইল বাজেয়াপ্ত করেছে। রায়গঞ্জের উত্তর কলেজপাড়ার বাসিন্দা কল্পনা রায় জানিয়েছেন, বাড়িতে পুলিশ এসে ঘরে ঢুকে আরশোলা ধরে নিয়ে গিয়েছে। পুলিশ তাদের জানিয়েছে,তক্ষকের খাদ্য আরশোলা। সেই কারণেই এই আরশোলা ধরা হচ্ছে।

উত্তম পাল

First published: March 8, 2020, 7:24 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर