লকডাউন শুরু হতেই বাড়তি ওষুধ মজুতের হিড়িক মালদহে, বাজারে উদ্বেগ

লকডাউন শুরু হতেই বাড়তি ওষুধ মজুতের হিড়িক মালদহে, বাজারে উদ্বেগ

অনেকে অতি প্রয়োজনীয় ওষুধ সংগ্রহের জন্য এক দোকান থেকে অন্য দোকানে ঘুরতে থাকেন। পুলিশ গিয়ে ক্রেতাদের আশ্বাস দেয় লকডাউন পরিস্থিতিতে ওষুধের সমস্ত দোকান খোলা।

  • Share this:

#মালদহ: লকডাউন পরিস্থিতিতে ওষুধ কেনার হিড়িক মালদহে। অনেক ক্রেতাই প্রায় এক মাসের প্রয়োজনীয় ওষুধ কেনা শুরু করেন মালদহে। আর এর ফলেই সকালে ঝাঁপ খুলতেই শহরের একের পর এক ওষুধের দোকানের সামনে লম্বা লাইন। শেষ পর্যন্ত ভিড় সামাল দিতে নামতে হয় পুলিশকে। আচমকা চাহিদা কয়েক গুন বেড়ে যাওয়ায় তৈরি হয় কৃত্রিম সঙ্কট। বহু প্রয়োজনীয় ওষুধ বাজারে পেতে সমস্যায় পড়তে হয় ক্রেতাদের।

অনেকে অতি প্রয়োজনীয় ওষুধ সংগ্রহের জন্য এক দোকান থেকে অন্য দোকানে ঘুরতে থাকেন। পুলিশ গিয়ে ক্রেতাদের আশ্বাস দেয় লকডাউন পরিস্থিতিতে ওষুধের সমস্ত দোকান খোলা। তাই অযথা আতঙ্কিত হয়ে বাড়তি কেনাকাটার প্রয়োজন নেই। মালদহ শহরের কৃষ্ণজীবন সান্যাল রোড এলাকায় ওষুধের বাজার হিসেবেই পরিচিত। এখানে রয়েছে একের পর এক ওষুধের দোকান।

শহরে এমনকি গ্রামাঞ্চলেরও অনেকে এই দোকানগুলি থেকে ওষুধ কেনে। ক্রেতাদের একাংশের যুক্তি, লকডাউনে ওষুধের দোকান খোলা থাকলেও বারবার বেরোনোর উপায় নেই। তাই যে সমস্ত ওষুধ প্রতিদিন খাওয়ার প্রয়োজন সেগুলি একটু বেশি করেই কিনতে হয়েছে। মালদহের ওষুধ বিক্রেতারাও জানিয়েছেন, কিছু ওষুধ ডিষ্ট্রিবিউটারদের কাছ থেকে পেতে সমস্যা হচ্ছে। তবে সবচেয়ে সমস্যা হয়েছে ক্রেতারা প্রায় প্রত্যেকেই একসঙ্গে বেশি ওষুধ কেনায়। ওষুধের ক্রেতা বিক্রেতাদের মধ্যে যে ভাবে উদ্বেগ ও উৎকন্ঠা তৈরি হয়েছে তাতে বাড়তি কেনাকাটা বন্ধ না হলে পরবর্তীতে ওষুধের দোকানের সমস্যা দেখা দিতে পারে।

First published: March 25, 2020, 8:04 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर