স্বদেশে এসে স্বপ্নভঙ্গ, পুনর্বাসন নেই, ক্যাম্পেই দিনযাপন, বাংলাদেশ ফিরতে চান ছিটবাসিন্দারা

স্বদেশে এসে স্বপ্নভঙ্গ, পুনর্বাসন নেই, ক্যাম্পেই দিনযাপন, বাংলাদেশ ফিরতে চান ছিটবাসিন্দারা
  • Share this:

#কলকাতা: চারবছরেই স্বপ্নভঙ্গ। ২০১৫ সালে যাঁরা স্বেচ্ছায় বাংলাদেশের ভারতীয় ছিট ছেড়ে কোচবিহারের চলে এসেছিলেন, তাঁরাই এখন ফিরতে চাইছেন বাংলাদেশে। প্রতিশ্রুতি মতো মেলেনি পুনর্বাসন। ঠিকানা আজও অস্থায়ী ক্যাম্প। রেশন মিললেও, অপর্যাপ্ত। সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তীর কাছে ক্ষোভ উগড়ে দিলেন কোচবিহারের ক্যাম্পের বাসিন্দারা।

চারবছর পার। আজও মেলেনি স্থায়ী ঠিকানা। ভারতের নাগরিকত্ব পেলেও, হতাশ নারায়ণ বর্মন, কৃষ্ণ অধিকারীরা। ২০১৫ সালে স্বেচ্ছায় বাংলাদেশের মধ্যে থাকা ভারতীয় ছিট থেকে জমি-বাড়ি ফেলে কোচবিহারে চলে আসেন তাঁদের মত হাজার খানেক মানুষ। স্বদেশে, একটু ভালো থাকার আশায়। এখনও তাঁরাই ফিরতে চাইছেন বাংলাদেশে।

২০১৫-র ৩১ জুলাই থেকে ২০১৬-র জুনের মধ্যে ছিটমহল হস্তান্তর সম্পূর্ণ হয়৷ ভারতের নাগরিকত্ব পান ৫১টি ছিটের বাসিন্দা৷ নাগরিকত্ব পান বাংলাদেশের ছিট থেকে দেশে ফেরা বেশ কয়েকজন৷ সেবছর নভেম্বরে বাংলাদেশের ছিট থেকে যাঁরা স্বেচ্ছায় দেশে ফিরেছিলেন, তাঁরাই আজ হতাশ । প্রতিশ্রুতি-মত মেলেনি পুনর্বাসন। ঠিকানা এখনও দিনহাটা, মেখলিগঞ্জ ও হলদিবাড়ির অস্থায়ী ক্যাম্প। শুধুমাত্র রেশন মেলে। তাও অপর্যাপ্ত।সোমবার কোচবিহারের ক্যাম্পে যান সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী। স্বদেশে স্বপ্নভঙ্গ। বাংলাদেশের সাবেক ভারতীয় ছিটে ফেলে আসা জমি-বাড়িতেই এখন ফিরতে চান নারায়ণ, কৃষ্ণরা।

First published: February 26, 2020, 2:36 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर