শিলিগুড়িতে মাস্কহীন মুখের ছড়াছড়ি! কারও শ্বাস নিতে কষ্ট, কেউ নিরুত্তর

এরকমই অসচেতনতার ছবি দেখা যাচ্ছে শিলিগুড়িতে৷

এই যদি নমুনা হয়, তাহলে আক্রান্তের গ্রাফ নিম্নমুখী হবে কোন পথে?

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: শিলিগুড়িতেও শুরু হয়ে গেল র‍্যাপিড এন্টিজেন টেস্ট। পুরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের স্বাস্থ্যকেন্দ্রে এদিন লালা রসের নমুনা সংগ্রহ করেন স্বাস্থ্য কর্মীরা। এ দিন ৪০ জনের নমুনা নেওয়া হয়েছে। প্রতিদিনই চলবে এই টেস্ট। এ দিন শিলিগুড়ি রেগুলেটেড মার্কেটেও যান স্বাস্থ্যকর্মীরা। টেস্ট করার যাবতীয় কিটস নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। কিন্তু কোনও ব্যবসায়ী বা শ্রমিক পরীক্ষা করাতে এগিয়ে আসেননি। ফলে সেখান থেকে শূন্য হাতেই ফিরতে হয়েছে স্বাস্থ্যকর্মীদের।

সূত্রের খবর, আগামী শুক্রবার ফের ওই বাজারে এই শিবির বসবে। আর র‍্যাপিড টেস্ট হলেই মিলতে পারে আরও বেশি আক্রান্তে খোঁজ। তবে এতে আতঙ্কের কিছু নেই। রিপোর্ট পজিটিভ এলে চিকিৎসার সুযোগ হবে। সুস্থতার হার বাড়বে। কোভিডের সংখ্যাও ধীরে ধীরে কমে আসবে। কিন্তু আগে মানতে হবে স্বাস্থ্য বিধি।

যদিও আজ দিনভর শিলিগুড়িতে দেখা গেল সেই মাস্কহীন মুখের ছড়াছড়ি। কেন নেই মাস্ক? জিজ্ঞেস করতেই কারও চটজলদি জবাব, 'প্রচণ্ড গরম, জল খাওয়ার জন্য খুলেছি।' আবার এক মহিলার কথায়, 'শ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছে তো!' আর একজনকে মাস্ক খোলার কারণ জিজ্ঞেস করতেই বোবা হয়ে গেলেন! এই যদি নমুনা হয়, তাহলে আক্রান্তের গ্রাফ নিম্নমুখী হবে কোন পথে? গত ২৪ ঘণ্টায় শিলিগুড়ি পুরসভার ৪৭টি ওয়ার্ড এবং দার্জিলিংয়ের পাহাড় ও সমতল মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা ৭৯ জন! গত দু'দিনের তুলনায় আক্রান্তের সংখ্যা কিছুটা কমেছে। তবে তা মোটেও স্বস্তিদায়ক নয়।

এর মধ্যে পুর এলাকায় আক্রান্তের সংখ্যা ২৬!  তবে গ্রামাঞ্চলে সংক্রমণ কমার কোনএ লক্ষণই নেই। এ দিনও চারটি ব্লকে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৪ জন! যার মধ্যে নকশালবাড়িতে ২২ জন, মাটিগাড়ায় ১২ জন, খড়িবাড়িতে ৭ জন এবং ফাঁসিদেওয়ায় আক্রান্ত ৩ জন। পাহাড়েও অবশ্য কিছুটা গ্রাফ নেমেছে। নতুন করে ৯ জন আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে পাহাড়ে। এর মধ্যে কার্শিয়ংয়ে ৬ জন, সুখিয়াপোখরি, তাগদা এবং দার্জিলিংয়ে আক্রান্ত হয়েছেন ১ জন করে। অন্যদিকে সুস্থতার হার ভালই। এদিন শিলিগুড়ির দুই কোভিড হাসপাতাল থেকে কোভিড জয় করে ছাড়া পেয়েছেন ৩৬ জন!

Partha Pratim Sarkar

Published by:Debamoy Ghosh
First published: