Home /News /north-bengal /
রায়গঞ্জ ব্লকের ঝুমঝুমিয়া গ্রামে এক ব্যাক্তি গুলি করে খুন করল দুষ্কৃতিরা

রায়গঞ্জ ব্লকের ঝুমঝুমিয়া গ্রামে এক ব্যাক্তি গুলি করে খুন করল দুষ্কৃতিরা

বুধবার সকালে মহারাজা গ্রামে মাঠের ধারে রাস্তায় মহম্মদ আলির গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ দেখতে পান স্থানীয় বাসিন্দারা।

  • Share this:

Uttam Paul

#রায়গঞ্জ: রায়গঞ্জ থানার মহীপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ঝুমঝুমিয়া গ্রামে মহঃ আলি নামে এক ব্যাক্তির মৃতদেহ উদ্ধারকে ঘিরে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। খুনের কারণ নিয়ে ধোঁয়াশা থাকায় ঘটনার তদন্তে পুলিশ কুকুর আনা হয়েছে। মৃতের  বাড়ি রায়গঞ্জ থানার শীতগ্রাম গ্রামপঞ্চায়েতের কৃষ্ণমুড়ি গ্রামে। এই ঘটনায় সিকান্দর নামে এক ব্যাক্তিকে আটক করেছে। মৃতার মেয়ের অভিযোগ, টাকা নিয়ে বিবাদের জেরে তাঁকে খুন করা হয়েছে। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ গভঃ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে।

জানা গিয়েছে, রায়গঞ্জ থানার  পানিশালা পেট্রোল পাম্পের শ্রমিক মহঃ আলি। মঙ্গলবার সাধারনতন্ত্র দিবস উপলক্ষ্যে রায়গঞ্জের মহারাজার একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন  মহম্মদ আলি। এরপর আর সারা রাত  তিনি বাড়ি ফেরেননি । পরিবারের লোকজন অনেক খোঁজখবর করেও তাঁর হদিশ পাননি।  বুধবার সকালে মহারাজা গ্রামে মাঠের ধারে রাস্তায় মহম্মদ আলির গুলিবিদ্ধ  মৃতদেহ দেখতে পান স্থানীয় বাসিন্দারা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে রায়গঞ্জ থানার বিশাল পুলিশবাহিনী। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ দুই রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান দুষ্কৃতিরা খুব কাছ থেকে মহম্মদ আলিকে গুলি করে খুন করে। খুন নিয়ে পুলিশের ধোঁয়াশার সৃষ্টি হওয়ায় পুলিশ কুকুরের সাহায্য নেওয়া হয়।

পুলিশ খুনের অভিযোগে সিকান্দর আলি নামে এক জনকে আটক করেছে। মৃতার মেয়ের অভিযোগ, সিকান্দরের সঙ্গে বিবাদ চলছিল তাঁর বাবার। এই খুনের ঘটনায় সিকান্দর যুক্ত বলে তাঁর ধারনা। মৃতার মেয়ে মামুনি খাতুন জানান, গতকাল সকালে তার বাড়ি এসেছিলেন। বিকাল পর্যন্ত বাড়িতে ফিরে না যাওয়ায় খোঁজাখুজি করা হয়। প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে ভারত পেট্রোলিয়াম প্ল্যান্ট বন্ধ থাকায় কাজে যাননি। রাত পর্যন্ত বাড়িতে না ফেরায় সন্দেহ হয়। সিকান্দর আলি তাঁর কাকাতো ভাই। তাঁকে ফোন করেও বাবার হদিশ দিতে পাননি মৃতার মেয়ে। আজ সকালে ছোট বোনের কাছ থেকে বাবার মৃত্যু খবর পান।

সোমবারও সিকান্দরের সঙ্গে টাকা পয়সা নিয়ে হাতাহাতি হয়েছে তাঁর বাবার। তাঁর ধারনা সিকান্দরের লোকেরাই তাঁর বাবাকে খুন করেছে। তার বাবা প্রত্যক্ষ রাজনীতির সঙ্গে কোনও দিনই যুক্ত ছিলেন না। মহীপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের অঞ্চল সভাপতি দীপক মিশ্রের দাবি, মৃত মহম্মদ আলি  তাঁদের দলের সমর্থক ছিলেন। কারা তাঁকে খুন করলেন সেই বিষয়টিও তাঁদের কাছে স্পষ্ট নয়। পুলিশকে ঘটনার তদন্ত করে অভিযুক্তকে গ্রেফতারের দাবি জানানো হয়েছে। জেলা পুলিশ আধিকারিক রিপন বল এ ঘটনায় মুখ খুলতে রাজি হননি।

Published by:Simli Raha
First published:

Tags: Murder, Raiganj

পরবর্তী খবর