বিজেপির উত্তরকন্যা অভিযানে খণ্ডযুদ্ধ , ১ বিজেপি কর্মীর মৃত্যু

কাঁদানে গ্যাসের শেলে অসুস্থ হয়ে পড়েন উলেন ৷ তাঁকে মহারাজা হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত বলে ঘোষণা করা হয় ৷

কাঁদানে গ্যাসের শেলে অসুস্থ হয়ে পড়েন উলেন ৷ তাঁকে মহারাজা হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত বলে ঘোষণা করা হয় ৷

  • Share this:

    #শিলিগুড়ি: বিজেপির উত্তরকন্যা অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র শিলিগুড়ি ৷ শহরের তিনবাত্তি মোড় ও ফুলবাড়িতে বিজেপির অভিযান ঘিরে তৈরি হয় ব্যাপক উত্তেজনা ৷ অভিযানে এসে এক বিজেপি কর্মী মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ বিজেপির ৷ উত্তরকন্যা অভিযানে এসে মৃত বিজেপি কর্মীর নাম উলেন রায় ৷

    জানা গিয়েছে,  কাঁদানে গ্যাসের শেলে অসুস্থ হয়ে পড়েন উলেন ৷ তাঁকে  মহারাজা হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত বলে ঘোষণা করা হয় ৷ যদিও বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের দাবি, পুলিশের লাঠির ঘায়ে মৃত্যু হয়েছে ওই কর্মীর ৷ পঞ্চাশ বছর বয়সী মৃত বিজেপি কর্মীর বাড়ি জলপাইগুড়ির গজলডোবায় ৷

    অভিযানের শুরুতেই বিজেপি কর্মী সমর্থকদের বিরুদ্ধে ইঁট পাটকেল কাঁচের বোতল ছুঁড়ে তাণ্ডবের অভিযোগ ৷ একইসঙ্গে একের পর এক ব্যারিকেড ভেঙে বিজেপি কর্মী সমর্থকেরা এগোনোর চেষ্টা করলে তাদের আটকাতে কাঁদানে গ্যাস, জল কামানের রঙিন জল ব্যবহার করা হয় ৷ দফায় দফায় উত্তপ্ত হয় পরিস্থিতি ৷ বিক্ষোভকারীদের নিয়ন্ত্রণে আনতে এদিন ব্যাপক কাঁদানে গ্যাসের সেল ফাটায় পুলিশ ৷ পাল্টা পুলিশের দিকে পাথর, কাঁচের বোতল ইঁট ছোড়ে বিজেপি কর্মীরা ৷ সেই খন্ডযুদ্ধের মাঝে পড়েই কোনওভাবে আহত হন উলেন রায় বলে মনে করা হচ্ছে ৷

    দলের কর্মীর মৃত্যু নিয়ে পুলিশের উপর ক্ষোভ উগরে দেন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ ৷ বলেন- ‘পুলিশ একটা গণতান্ত্রিক আন্দোলন রুখতে এত আক্রমণাত্মক হয়ে যাচ্ছে বলা নয় ৷ অন্যায়ভাবে লাঠি চালিয়েছে পুলিশ ৷ লাঠির আঘাত লেগেছিল কর্মী উলেন রায়ের ৷ গোটা শরীরে অনেক আঘাত রয়েছে ৷ ’ তাঁর আরও অভিযোগ, ‘পাখি মারার বন্দুক দিয়ে গুলি চালানো হয়েছে ৷’

    সোমবার দুপুর একটা নাগাদ দুই মোড় থেকেই উত্তরকন্যার দিকে মিছিল এগোতে থাকে। ফুলবাড়ির মিছিলের নেতৃত্বে দিলীপ ঘোষ, সায়ন্তন বসু, জয়ন্ত রায়রা। দিলীপ ঘোষকে আটকে দেয় পুলিশ।

    ফুলবাড়ি মোড়ে বিজেপি কর্মীরা ব্যারিকেড ভেঙে দেয়। পুলিশকে লক্ষ করে ইট ছোড়ে বিক্ষোভকারীরা। কাঁদানে গ্যাসের শেল ফাটায় পুলিশ। ঘণ্টা তিনেক পুলিশের সঙ্গে বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের ধস্তাধস্তি হয়।কাঁদানে গ্যাসের শেলে অসুস্থ হয়ে পড়েন কয়েকজন বিজেপি কর্মী। মহারাজা হাসপাতালে ভরতি করা হয় তাঁদের। গজলডোবার বাসিন্দা উলেন রায় নামে এক বিজেপি কর্মীর মৃত্যু হয়। ট্যুইটে রাজ্য পুলিশ জানিয়েছে, গুলি চলেনি। ময়নাতদন্তে মৃত্যুর কারণ স্পষ্ট হবে।

    ওদিকে জলপাই মোড়ের মিছিলের নেতৃত্বে কৈলাস বিজয়বর্গীয়, সৌমিত্র খাঁ, তেজস্বী সূর্য, নিশীথ প্রামাণিকরা। তিনবাত্তি মোড়ে ব্যারিকেড ভেঙে দেন বিক্ষোভকারীরা। ব্যারিকেডে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। জলকামান ছোড়ে পুলিশ। কাঁদানে গ্যাসের শেল ফাটানো হয়। অসুস্থ হয়ে পড়েন সৌমিত্র খাঁ। রণক্ষেত্র ঘটনাস্থল থেকে গাড়ি নিয়ে চলে যান তেজস্বী সূর্য। তবে কর্মী-সমর্থকরা পিছু হঠলেও সরে যাননি। নৌকাঘাট মোড় থেকে পুলিশকে লক্ষ করে উড়ে আসে ইট, পাথর, কাচের বোতল। ফের পুলিশ কাঁদানে গ্যাসের শেল ছোড়ে। বিক্ষোভকারীদের হঠাতে লাঠি চালায় পুলিশ। কয়েকজনকে আটক করা হয়।

    Published by:Elina Datta
    First published: