ইলেকট্রিক ফেন্সিং নয়, হাতি-মানুষ সংঘাত রুখতে এবার 'এলিফ্যান্ট ট্র্যাকিং ডিভাইস'

এই যন্ত্রের কাছাকাছি এলেই বেজে উঠবে অ্যালার্ম। তার ফলে হাতির উপস্থিতি সম্পর্কে সতর্ক হয়ে যাবেন মানুষ।

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Aug 13, 2019 07:53 PM IST
ইলেকট্রিক ফেন্সিং নয়, হাতি-মানুষ সংঘাত রুখতে এবার 'এলিফ্যান্ট ট্র্যাকিং ডিভাইস'
representative image
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Aug 13, 2019 07:53 PM IST

#শিলিগুড়ি: আর ইলেকট্রিক ফেন্সিং নয়। লোকালয়ে হাতি-মানুষ সংঘাত এড়াতে অভিনব পন্থা বের করেছে শিলিগুড়ির একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। হাতির উপস্থিতি বুঝতে তৈরি করা হয়েছে এলিফ্যান্ট ট্র্যাকিং ডিভাইস। এই যন্ত্রের কাছাকাছি এলেই বেজে উঠবে অ্যালার্ম। তার ফলে হাতির উপস্থিতি সম্পর্কে সতর্ক হয়ে যাবেন মানুষ। শিলিগুড়ির শুকনার জঙ্গলে বসানো হয়েছে এমন চোদ্দটি ডিভাইস।

দিন দিন বাড়ছে জনসংখ্যা। সবুজ হারাচ্ছে জঙ্গল। মানুষের থাবায় ভিটেমাটি হারাতে বসেছে বন্যপ্রাণ। তাই খাবার আর বাসস্থানের খোঁজে হামেশাই লোকালয়ে ঢুকে পড়ছে জীবজন্তু। এরাজ্যের উত্তরবঙ্গে আকছার ঘটছে লোকালয়ে হাতির হানার ঘটনা। বাড়ছে হাতি-মানুষ সংঘাতও। হাতির হানা রুখতে অনেক জায়গাতেই ইলেকট্রিক ফেন্সিং বসানো। কিন্তু তাতে কাজের কাজ খুব একটা হয় না। বরং ফেন্সিংয়ের সংস্পর্শে এসে হাতি বা মানুষের মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। এই পরিস্থিতিতে হাতি-মানুষ সংঘাত এড়াতে অভিনব পন্থা বের করেছে শিলিগুড়ির একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। হাতির উপস্থিতি বুঝতে তৈরি করা হয়েছে,এলিফ্যান্ট ট্র্যাকিং ডিভাইস।

প্রায় বছর খানেকের চেষ্টায় যন্ত্রটি তৈরি করেছে সোসাইটি ফর নেচার অ্যান্ড এনিম্যাল প্রোটেকশন বা স্ন্যাপের সদস্যরা। কিন্তু কীভাবে হাতি-মানুষ সংঘাত এড়াবে এই যন্ত্রটি?

- যন্ত্রের মধ্যে বসানো রয়েছে সেন্সর

- সেন্সরের ২০০ মিটারের মধ্যে ধরা পড়বে হাতির আনাগোনা

Loading...

- হাতির উপস্থিতি বুঝলেই বেজে উঠবে অ্যালার্ম

- হাতির উপস্থিতি সম্পর্কে সঙ্গে সঙ্গে সতর্ক হয়ে যাবেন এলাকাবাসী

শিলিগুড়ির সুকনা জঙ্গলের পুনডিং বিটে বসানো হয়েছে এমন চোদ্দটি যন্ত্র। যার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন মহানন্দা অভয়ারণ্যের ডিএফও জিজুজেসপার। যন্ত্রটির কাজ সম্পর্কে সচেতন করতে বিভিন্ন স্কুলের পড়ুয়াদের নিয়ে একটি আলোচনাসভারও আয়োজন করেন স্ন্যাপের সদস্যরা।

এর আগে গরুমারা জঙ্গলে চল্লিশটি এলিফ্যান্ট ট্র্যাকিং ডিভাইস বসানো হয়েছে। আগামী দিনে উত্তরবঙ্গের অন্য এলিফ্যান্ট করিডোরগুলিতেও এই যন্ত্র বসানোর পরিকল্পনা রয়েছে। স্ন্যাপের আশা, এরফলে সুরক্ষিত থাকবে বন্যপ্রাণ। সুরক্ষিত থাকবেন মানুষও।

First published: 07:53:57 PM Aug 13, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर