ডাক্তার-নার্স নয়, শিশুর শরীরে স্যালাইনের সুচ ফোটাচ্ছেন আয়া! সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল ভিডিও

ডাক্তার-নার্স নয়, শিশুর শরীরে স্যালাইনের সুচ ফোটাচ্ছেন আয়া! সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল ভিডিও
Photo: News 18 Bangla
  • Share this:

#আলিপুরদুয়ার: ডাক্তারও নয়। নার্সও নয়। আয়া। রোগীকে স্যালাইনের সুচ ফোটানোর প্রশিক্ষণ কি তাঁর আছে? আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালে অবশ্য দেখা গেল এক শিশুর শরীরে স্যালাইনের সুচ ফোটাচ্ছেন আয়া। আলিপুরদুয়ার জেলা হাসাপাতালের এই ভিডিওই সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অবশ্য এই ভিডিওর সত্যতা মানতে নারাজ। উলটে যিনি ভিডিও করেছেন, তাঁকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ হাসপাতালের বিরুদ্ধে।

শুক্রবার সকাল। সোশাল মিডিয়ায় মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে যায় একটি ভিডিও। ভিডিওতে দেখা যায়, হাসপাতালের বেডে এক শিশুর শরীরে স্যালাইনের সুচ ফোটাচ্ছেন এক মহিলা। আলিপুরদুয়ার শহরের বাসিন্দা রঞ্জিত রায় এই ভিডিওটি সোশাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন। তাঁর অভিযোগ, আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালের ডাক্তার বা নার্স নয়, এক আয়া শিশুর শরীরে স্যালাইনের সুচ ফোটাচ্ছেন।

- রোগীর শরীরে সুচ ফোটানোর প্রশিক্ষণ কি কোনও আয়ার আছে?

- কেন ডাক্তার বা নার্সদের নজর এড়িয়ে আয়া রোগীকে সুচ ফোটাচ্ছেন?

- আলিপুরদুয়ার হাসপাতালে তিনি মেয়েকে ভরতি করাতে যান

- আয়াদের বিরুদ্ধে হাসপাতালে বেড কেনাবেচার অভিযোগ তোলেন তিনি

- তখনই তিনি এক আয়াকে শিশুর শরীরে সুচ ফোটাতে দেখেন

ভিডিও পোস্ট করায়, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে রঞ্জিতকে হুমকি দেওয়ারও অভিযোগ উঠছে। সুপার বলছেন, হাসপাতালে কোনও আয়াই নেই। বক্সা পাহাড়ের আদমা থেকে প্রসূতিকে চারঘণ্টা ট্রেক করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার ছবি দেখিয়েছিল নিউজ18 বাংলা। দুর্গম পথ, শত বিপত্তি পেরিয়ে ওই প্রসূতির কোলে হেসেছিল এক ফুটফুটে মেয়ে। এর ঠিক উলটো পিঠেই হাসপাতালে চূড়ান্ত অব্যবস্থার ছবিটাও ধরা পড়ল। শুক্রবারের এই ভিডিও-র সত্যতা যাচাই করেনি নিউজ18 বাংলা। প্রশ্ন উঠছে, যে মহিলা সুচ ফোটাচ্ছেন, তিনি ডাক্তার বা নার্স নন, তা পোশাক থেকে স্পষ্ট। তাহলে ওই মহিলা কে?

First published: 01:00:43 PM Aug 25, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर