তৃণমূলের যোগ দিতে পারেন গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সদস্য প্রদীপ প্রধান

হরকা বাহাদুরের পর ফের গোর্খা জনমুক্তি মোর্চায় বড়সড় ধস। জিটিএ চেয়ারম্যান প্রদীপ প্রধানের হাত ধরে বিমল গুরুঙদের চৌহদ্দিতে ঢুকে

হরকা বাহাদুরের পর ফের গোর্খা জনমুক্তি মোর্চায় বড়সড় ধস। জিটিএ চেয়ারম্যান প্রদীপ প্রধানের হাত ধরে বিমল গুরুঙদের চৌহদ্দিতে ঢুকে

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #দার্জিলিং: হরকা বাহাদুরের পর ফের গোর্খা জনমুক্তি মোর্চায় বড়সড় ধস। জিটিএ চেয়ারম্যান প্রদীপ প্রধানের হাত ধরে বিমল গুরুঙদের চৌহদ্দিতে ঢুকে পড়তে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। গত কয়েকদিন ধরেই প্রদীপের তৃণমূলে যোগ দেওয়া নিয়ে জল্পনা চলছিল। তা সত্যি করে বুধবার, কার্শিয়ংয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সভা মঞ্চেই জোড়াফুল শিবিরে যোগ দিতে পারেন তিনি। প্রদীপের পথ ধরতে পারেন জিটিএ-র আরও কয়েকজন সদস্য।

    বাম আমলে পাহাড়ে তীব্র অশান্তি। ক্ষমতায় এসে তাঁকেও যে গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার আন্দোলনের হলকা সহ্য করতে হবে তা জানতেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যে ক্ষমতার প্রথম দফা থেকেই বারেবারে নরমে-গরমে বিমল গুরুঙ-রোশন গিরিদের বার্তা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এবার, পাহাড়ে বড়সড় ধস নামাতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস।

    তৃণমূলের যোগ দিতে পারেন গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সদস্য প্রদীপ প্রধান। দলের সেন্ট্রাল কমিটির সদস্য, একইসঙ্গে জিটিএ-র চেয়ারম্যানও তিনি। তাঁর সঙ্গে দল ছা়ডতে পারেন জিটিএ-র আরও কিছু সভাসদ। প্রথমে সুবাস ঘিসিংয়ের জিএনএলএফের হাত ধরেই পাহাড়ের রাজনীতিতে উত্থান প্রদীপের। পরে যোগ দেন সিপিএমেরও। ২০০৭ সালে গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার জন্মের সময় থেকে দলে। গত বিধানসভা ভোটে হরকা বাহাদুর ছেত্রীকে সমর্থন দেয় তৃণমূল। সামনেই কালিম্পং পুরসভার ভোট।

    First published: