?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

গুরমিত রাম রহিমের বং কানেকশন ! দার্জিলিঙে 'স্ল্যাক্স বাবা' নামে পরিচিত ছিলেন

গুরমিত রাম রহিমের বং কানেকশন ! দার্জিলিঙে 'স্ল্যাক্স বাবা' নামে পরিচিত ছিলেন

২০০৯ সালের শেষেরদিকে দার্জিলিঙে প্রথম আসেন রাম রহিম। দার্জিলিঙে ডেরা বাঁধেন রাম রহিম ।

  • Share this:

#দার্জিলিং: শুধু হরিয়ানা নয়। উত্তরেও প্রভাব বাড়াতে চেয়েছিলেন গুরমিত রাম রহিম। আশ্রম করতে জমি কিনেছিলেন দার্জিলিঙে। শুরু হয়েছিল আশ্রম তৈরির কাজও। নিজের গুরুত্ব বাড়িতে বেশ কয়েকবার দার্জিলিঙেও আসেন তিনি। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। ২০১২ সালে মহিলার মোর্চার তাড়ায় পাহাড় ছাড়তে হয় তাঁকে।

বিলাসবহুল জীবন। ২৪ ঘণ্টা চারদিকে কড়া নিরাপত্তার বেষ্টনী। ভক্তদের উন্মাদনা। লার্জার দ্যান লাইফ ইমেজ। আদ্যপান্ত রঙীন চরিত্র গুরমিত রাম রহিমের। শুধু শুধু উত্তর ভারতেই নিজেকে সীমাবদ্ধ করে রাখেননি তিনি। নজর ছিল এ রাজ্যেও।

২০০৯-এর শেষদিকে প্রথমবার দার্জিলিঙে আসেন স্বঘোষিত ধর্মগুরু। তারপর ২০১২ পর্যান্ত বার বার ফিরে এসেছেন পাহাড়ে। পাহাড়ে থাকাকালীন স্ল্যাক্স পরতেন । তাই পাহাড়ে স্ল্যাক্স বাবা নামে পরিচিত হয়ে ওঠেন গুরমিত রাম রহিম সিং। ভিভিআইপি লাইফস্টাইল। যেখানেই যেতেন তাঁকে ঘিরে থাকত আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে কালো পোষাকের নিরাপত্তারক্ষীর দল। ছিল নিজস্ব বাহিনী। অগ্নিনির্বাপণে বিশেষভাবে প্রশিক্ষিত এই বাহিনী।

------২০১১ থেকে পাহাড়ে প্রথম খবরে আসেন গুরমিত রাম রহিম -----দার্জিলিঙে এলে উঠতেন মলের কাছে উইন্ডোমেয়র হোটেলে -----২০১১ সালে তিন মাস এই হোটেলে থাকেন তিনি -----কয়েক মাস পর ফের দার্জিলিঙে এসে ওঠেন মেফেয়ার হোটেলে -----মলের দোকান থেকে বিভিন্ন পোশাক কিনতেন তিনি

২০১২-র মে মাসে চক বাজারের উল্টোদিকে ভয়াবহ আগুন লাগে। পুড়ে ছাই হয়ে যায় চল্লিশ-পঞ্চাশটি দোকান। সেই সময়ে গুরমিত রাম রহিমের প্রশিক্ষিত বাহিনী আগুন নেভাতে পাহাড়বাসীকে সাহায্য করে। গুরত্ব বাড়ে স্বঘোষিত ধর্মগুরুর। এরপরই সাংবাদিক সম্মেলন করে পাহাড়ে আশ্রম খোলার কথা জানান তিনি। দার্জিলিং থেকে তিন কিলোমিটার দূরে ৫৫ নম্বর জাতীয় সড়কের ঠিক উপরে গান্ধি রোডে দু একর জমি কেনেন গুমিত রাম রহিম। শুরু হয় আশ্রম তৈরির কাজ।

পাহাড়ের সঙ্গে সঙ্গে ডুয়ার্স তরাইতেও বিস্তার করতে চেষ্টা করেন ধর্মগুরু। আশ্রমে মহিলা কর্মী নেওয়ার প্রচার শুরু করে তার সাগরেদরা। মহিলাদের দীক্ষা দেওয়ার কথাও বলা হয়। আস্থা বাড়তে শুরু করে পাহাড়বাসীর।

আস্তে আস্তে তার প্রভাব বাড়তে থাকে ৷ সেই সময় তিনি জমি কেনেন ৷ কিন্তু ধীরে ধীরে তার আচরণ নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে ৷ এরপর পাহাড় ছেড়ে চলে যেতে বাধ্য হন তিনি ৷

First published: August 26, 2017, 2:34 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर