ইসলামপুর কলেজে সংঘর্ষের জের, সরিয়ে দেওয়া হল তৃণমূল নেতা করিম চৌধুরীকে

ইসলামপুর কলেজে সংঘর্ষের জের, সরিয়ে দেওয়া হল তৃণমূল নেতা করিম চৌধুরীকে

ইসলামপুর কলেজে সংঘর্ষের জেরে কলেজের সভাপতি পদ থেকে সরানো হল তৃণমূল নেতা আবদুল করিম চৌধুরীকে।

ইসলামপুর কলেজে সংঘর্ষের জেরে কলেজের সভাপতি পদ থেকে সরানো হল তৃণমূল নেতা আবদুল করিম চৌধুরীকে।

  • Share this:

    #উত্তর দিনাজপুর: ইসলামপুর কলেজে সংঘর্ষের জেরে কলেজের সভাপতি পদ থেকে সরানো হল তৃণমূল নেতা আবদুল করিম চৌধুরীকে। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা হিসেবে সরানো হল তৃণমূল নেতা ও প্রাক্তন বিধায়ককে। তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দফতর থেকেও। এদিকে, গতকালের ঘটনার জেরে ইসলামপুর কলেজের জিএস নির্বাচন আপাতত স্থগিত হয়ে গেল। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত নির্বাচন স্থগিত থাকবে বলে সিদ্ধান্ত হয় পরিচালন সমিতির সভায়। গতকালের ঘটনায় আজই ইসলামপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করছে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

    বৃহস্পতিবারের ইসলামপুর কলেজে ছাত্র সংঘর্ষের ঘটনায় কড়া পদক্ষেপ মুখ্যমন্ত্রীর। তাঁর নির্দেশে কলেজের সভাপতি পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল তৃণমূল নেতা ও প্রাক্তন বিধায়ক আবদুল করিম চৌধুরীকে ।

    বৃহস্পতিবার ছাত্র সংসদের জিএস নির্বাচন ঘিরে টিএমসিপি-র দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় কলেজ চত্ত্বর। জখম হন তেরোজন পড়ুয়া। ইটের আঘাতে আহত হন পাঁচ পুলিশকর্মী। সংঘর্ষের ঘটনায় একে অন্যের দিকে আঙুল তুলেছেন শাসক দলের প্রাক্তন বিধায়ক আব্দুল করিম চৌধুরী এবং বর্তমান বিধায়ক কানাইয়ালাল আগরওয়াল। চোপড়ার তৃণমূল বিধায়কের গুদামে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে করিমের অনুগামীদের বিরুদ্ধে।

    এরপরই মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা হিসেবে সরানো হল করিম চৌধুরীকে। তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হল উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দফতর থেকেও। এই দফতরের সদস্য ছিলেন করিম চৌধুরী।

    এদিন দুপুরে কলেজের পরিচালন সমিতির সভা বসে। সভায় সিদ্ধান্ত হয় পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত কলেজের GS নির্বাচন আপাতত স্থগিত থাকবে।

    বৃহস্পতিবারের ঘটনায় শুক্রবার ইসলামপুর থানায় অভিযোগও দায়ের হয়।

    বৃহস্পতিবারের ঘটনার পর শুক্রবার থমথমে কলেজ চত্ত্বর। কলেজ জুড়ে কড়া পুলিশি পাহারা। দ্বিতীয় বর্ষের ভরতি প্রক্রিয়া চলায় কলেজে আসতে হয় কিছু পড়ুয়াকে। বাকি আর কোনও পড়ুয়ার দেখা মেলেনি।

    এই ঘটনায় রাজনৈতিক ফায়দা তুলতে মাঠে নেমে পড়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল। সিপিএম ও বিজেপির ছাত্র সংগঠন এবিভিপির পক্ষ থেকে ইসলামপুরে বিক্ষোভ মিছিলের আয়োজন করা হয়।

    First published: