বনধ ঘিরে মিছিল ও পাল্টা মিছিলে উত্তপ্ত পাহাড়

File Picture

গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার ডাকে বুধবার পাহাড়ে বনধ। মোর্চা ও তৃণমূলের মিছিল ও পাল্টা মিছিলে উত্তাপ আরও বেড়েছে। জোর করে প্রশাসন বনধের মোকাবিলা করলে লাগাতার বনধের হুঁশিয়ারি মোর্চার।

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #শিলিগুড়ি: গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার ডাকে বুধবার পাহাড়ে বনধ। মোর্চা ও তৃণমূলের মিছিল ও পাল্টা মিছিলে উত্তাপ আরও বেড়েছে। জোর করে প্রশাসন বনধের মোকাবিলা করলে লাগাতার বনধের হুঁশিয়ারি মোর্চার। পাল্টা বনধের মোকাবিলায় ঘুঁটি সাজাচ্ছে শাসক দলও। জনজীবন স্বাভাবিক রাখতে রাজ্যের তিন মন্ত্রী পাহাড়ে থাকছেন। পাহাড়ে বনধ হলে মোর্চার বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিত মামলার হুঁশিয়ারি হাইকোর্টের। মোর্চার বনধ নিয়ে উত্তপ্ত পাহাড়। বনধ সমর্থক ও বিরোধীদের মিছিল-পাল্টা মিছিলে পারদ আরও চড়ছে। মঙ্গলবার কালিম্পঙে বাইক মিছিল করে মোর্চা। বনধের সমর্থনে মাইক প্রচারও করা হয়। এদিকে বনধের বিরোধিতায় কালিম্পং ও কার্শিয়ঙে মিছিল করে তৃণমূল কংগ্রেস। বনধের বিরোধিতায় কালিম্পঙে মিছিল করে হরকা বাহাদুর ছেত্রীর দল জন আন্দোলন পার্টিও।

    বনধ নিয়ে আদালত অস্বস্তিতে মোর্চা। পাহাড়ে বনধ হলে স্বতঃপ্রণোদিত আদালত অবমাননার মামলা করা হবে। কলকাতা হাইকোর্টে দায়ের জনস্বার্থ মামলায় নির্দেশ বিচারপতির। বনধের দিন রাজ্য সরকারকে পাহাড়ের জনজীবন স্বাভাবিক রাখার নির্দেশও দিয়েছে আদালত। আদালতের এই নির্দেশকেই হাতিয়ার করছে শাসক দল। বনধ মোকাবিলায় রাজ্য সব রকমের ব্যবস্থা নেবে বলে আশ্বাস মুখ্যমন্ত্রীর।

    এদিন বহরমপুরের সভায় দাঁড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বনধ নিয়ে আদালতের মন্তব্যে আমি খুশি ৷ আদালত বলেছে এটা অসাংবিধানিক ৷ পাহাড়ের মানুষকে আবেদন ৷ অাপনারা বনধকে সমর্থন করবেন না ৷ বনধ-ধর্মঘট আর নয় ৷ জুলুম করে সমস্যার সমাধান হয় না ৷ তাই জুলুম করবেন না ৷ ধরা পড়ে যাবেন ৷’

     বনধের সময় পাহাড়ে কোনও অশান্তি হলে পুলিশ ও প্রশাসন দায়ী থাকবে। জোর করে বনধ মোকাবিলা করা হলে লাগাতার আন্দোলনের হুঁশিয়ারি মোর্চার। মিরিকে মোর্চার সাধারণ সম্পাদক রোশন গিরি বলেন , কাল পাহাড়ে ১২ ঘণ্টার বনধ হবেই ৷ বনধে গোলমাল হলে দায়ী হবে পুলিশ প্রশাসন ৷

    বনধে গোলমাল হলে পুলিশ-প্রশাসন তা কড়া হাতে মোকাবিলা করবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী গৌতম দেব। পর্যটন মন্ত্রী বলেন, ‘পাহাড়ে অন্যায়ভাবে বনধ ডেকেছে মোর্চা ৷ কোনও ফতোয়া জারি করলে হবে না ৷ বনধের দিনে কড়া হাতে মোকাবিলা করবে রাজ্য সরকার ৷ কাল পাহাড়ে অতিরিক্ত বাস চালাবে সরকার ৷ রাজনৈতিকভাবে বনধের মোকাবিলা করা হবে ৷’

    রাজনৈতিক ভাবে বনধের মোকাবিলার পাশাপাশি, প্রশাসনিক ভাবেও বনধের মোকাবিলায় তৎপরতা শুরু হয়েছে। বনধের দিন পাহাড়ে অতিরিক্ত বাস চালান হবে। এদিনই পাহাড়ে মিছিল ও জনসভা করবে GNLF।

    First published: