পুজোর আগেই শহরের নজরদারি ক্যামেরাগুলি খারাপ হওয়ায় আতঙ্কিত বাসিন্দারা

পুজোর আগেই শহরের নজরদারি ক্যামেরাগুলি খারাপ হওয়ায় আতঙ্কিত বাসিন্দারা

নিজস্ব চিত্র

ভূটান-ফুন্টসোলিং-চোখা। ভারত ভুটান সীমান্তের জয়গাঁও দিয়ে আনাগোনা লেগেই থাকে দেশি-বিদেশি পর্যটকদের।

  • Share this:

    #দার্জিলিং: ভূটান-ফুন্টসোলিং-চোখা। ভারত ভুটান সীমান্তের জয়গাঁও দিয়ে আনাগোনা লেগেই থাকে দেশি-বিদেশি পর্যটকদের। নিরাপত্তার স্বার্থে তিরিশটি ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা বসানো হলেও এখন সাতাশটিই খারাপ। সারানোর উদ্যোগ নেয়নি প্রশাসনও। পুজোর আগে চুরি-ছিনতাই বা অন্য অসামাজিক কাজ বাড়ার আতঙ্কে ভুগছেন শহরবাসী।

    চুরি, ছিনতাই, ডাকাতি, ইভটিজিং বা অন্য অসামাজিক কাজ। দুষ্কৃতীদের রুখতে নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছিল ভারত-ভুটান সীমান্ত লাগোয়া জয়গাঁও। প্রশাসনের তরফে শহরের আনাচে কানাচে বসানো হয়েছিল ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরাও। পুলিশের হাতের মুঠোয় এসেছিল জয়গাঁও। যদিও বছর দেড়েকের মধ্যে শিকেয় উঠেছে নিরাপত্তার ছবিটা ।

    -

    ২০১৬ সালের এপ্রিলে সিসিটিভি বসানো হয় - হাটখোলা, ঝর্নাবস্তি, ভুটানগেট, সুপার মার্কেট, থানা চত্বর, বউবাজার- সহ বিভিন্ন জায়গায় সিসিটিভি ক্যামেরা - আলিপুরদুয়ার জেলাপরিষদের তহবিল থেকে ২৫ লক্ষ টাকা ব্যয় - ৩০টি সিসিটিভি ক্যামেরা বসানো হয় - এখন সচল মাত্র ৩টি সিসিটিভি ক্যামেরা

    কয়েকদিন আগেই জয়গাঁও এলাকায় একটি বড় দোকানে দশ লক্ষ টাকার চুরি হয়। চুরি যায় পাশের একটি দোকানেও। সিসিটিভি খারাপ থাকায় দুশ্চিন্তা বেড়েছে ব্যবসায়ীদের।

    পুজোর আগেই শহরের নজরদারি ক্যামেরাগুলি খারাপ হওয়ায় আতঙ্কিত বাসিন্দারাও। দ্রুত সিসিটিভি সারানোর দাবি জানাচ্ছেন তাঁরা।

    First published: