‘৫ জন কেন ৫০০০ গ্রেফতার হোক, আমাদের আক্রমণ করলে পাল্টা আক্রমণ হবে’ হুমকি বিমল গুরুঙের

‘৫ জন কেন ৫০০০ গ্রেফতার হোক, আমাদের আক্রমণ করলে পাল্টা আক্রমণ হবে’ হুমকি বিমল গুরুঙের

‘৫ জন কেন ৫০০০ গ্রেফতার হোক, আমাদের আক্রমণ করলে পাল্টা আক্রমণ হবে’ হুমকি বিমল গুরুঙের

  • Share this:

    #দার্জিলিং:  সরকারের সঙ্গে সরাসরি সংঘাতে বিমল গুরুং। রাস্তায় নেমে বনধ সফল করার হুঁশিয়ারি। পুলিশের ধরপাকড় যত বাড়তে ততই আন্দোলনকে জঙ্গি রূপ দিতে কৌশল মোর্চা প্রধানের। সরকারি অফিস ও ব্যাঙ্কে বনধ ডেকে অডিটে বাধা সৃষ্টির চেষ্টা মোর্চা নেতৃত্বের।

    এদিন  মোর্চা প্রধান বিমল গুরুং বলেন, ‘ লাঠিচার্জ, গুলি চললে মানুষ মরলে ভালো, আন্দোলন আরও জোরদার হবে ৷’

    সোমবার থেকে পাহাড়ে অনির্দিষ্টকালের সরকারি অফিস ও ব্যাঙ্ক বনধের ডাক দিয়েছে মোর্চা। বনধকে সামনে রেখে পাহাড়ে যে মোর্চার জঙ্গি আন্দোলন হিংসাত্মক রূপ নিতে চলেছে তা স্পষ্ট। আট জুন হিংসা ছড়ানোর অভিযোগে মোর্চা সমর্থকদের গ্রেফতারের পরই চরম হুঁশিয়ারি মোর্চা সুপ্রিমোর। তিনি বলেন, ‘কাল থেকে পাহাড়ে বনধ, আন্দোলন কোনওভাবে বন্ধ হবে না ৷ ৫ জন কেন ৫০০০ গ্রেফতার হোক, আমাদের আক্রমণ করলে পাল্টা আক্রমণ হবে ৷’

    কড়া হাতে পাহাড়ে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। যে কোনও মুহুর্তে গ্রেফতার হতে পারেন বিমল গুরুং-সহ মোর্চা নেতারা। তা হলে আখেরে লাভ হবে মোর্চা সুপ্রিমোর। সরকারের সঙ্গে সরাসরি সংঘাতে গেলেও কৌশলে এগোচ্ছেন গুরুং।

    কৌশলী গুরুং  পুলিশ গ্রেফতার করলে আন্দোলন আরও বাড়ানো সম্ভব গ্রেফতার হলে পাহাড়ের মানুষের ভাবাবেগে আঘাত ফেলা যাবে জিটিএ ও পুরসভাগুলির অডিট করতে দল ইতিমধ্যেই পাহাড়ে পৌঁছেছে সরকারি অফিস ও ব্যাঙ্কে বনধ ডেকে সেই কাজে বাধা দেওয়ার চেষ্টা হোটেল ও পরিবহণকে বনধের আওতার বাইরে রাখা হয়েছে তাতে স্থানীয়দের রুটি রুজিতে কোনও সমস্যা হবে না ততটা প্রভাব পড়বে না পর্যটন শিল্পে

    কার্যত কাজ করতে না দিলেও কৌশলে অডিট টিমকে স্বাগত জানিয়েছেন বিমল গুরুং। আগের বারো ঘণ্টার বনধে তেমন প্রভাব ফেলতে পারেনি। তবে সোমবার থেকে সরকারি অফিস ও ব্যাঙ্ক বনধকে সর্বাত্মক রূপ দিতে চাইছে মোর্চা। চা বাগানকে বনধের আওতায় রাখা তারই একটি কৌশল।

    First published: