বিনয় তামাংকে খুনের ছক কষেছিলেন বিমল গুরুং

বিনয় তামাংকে খুনের ছক কষেছিলেন বিমল গুরুং
Bimal Gurung with Binay Tamang

আশঙ্কা করেছিলেন। অবশেষে সেই চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ্যে চলে এল। বিনয় তামাংকে খুনের ছক ফাঁস হল।

  • Share this:

    #দার্জিলিং: আশঙ্কা করেছিলেন। অবশেষে সেই চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ্যে চলে এল। বিনয় তামাংকে খুনের ছক ফাঁস হল। খুন করতে সুপারি দিয়েছিলেন খোদ বিমল গুরুং। চার-চারবার খুনের ছক করা হয়। শেষ পর্যন্ত বিনয়ের এক প্রতিবেশি গ্রেফতার হওয়াতেই জানা গেল খুনের ছক। মোবাইলে কথোপকথনের সূত্রেই পুলিশের জালে অভিযুক্ত।

    পাহাড়েই বিনয় তামাংকে খুনের ছক কষেছিলেন বিমল গুরুং। ৩১ অগস্ট কলকাতা থেকে পাহাড়ে ফেরার পরই বিনয়কে সরিয়ে দিতে মরিয়া হয়ে ওঠেন বিমল গুরুং। সুপারি কিলার নিয়োগ থেকে ঘনিষ্ঠদের কাজে লাগানো - কিছুই বাদ পড়েনি। কিভাবে হয়েছিল খুনের ছক, বিনয়কে সরাতে কাদের দায়িত্ব দেওয়া হয়? স্পষ্ট হল ইটিভি নিউজ বাংলার অর্ন্ততদন্তে।

    ছক ১


    ৩০ অগাস্ট প্রবীণ সুব্বার ফোন থেকে কথা বলেন বিমল গুরুংভারত-নেপাল সীমান্তে পশুপতি ও মানেভঞ্জন থেকে দুজনকে খুনের সুপারি দেওয়া হয়

    ছক ২পয়লা সেপ্টেম্বর বিমলের এলাকা তাকভর চা-বাগানের কয়েকজন ছেলেকে বিনয় খুনের দায়িত্ব দেওয়া হয়

    ছক ৩ওই দলেরই একটি ছেলেকে বিশেষ দায়িত্ব দেওয়া হয়। ঠিক হয়, সে বিনয়ের ঘরে ঢুকে বোম চার্জ করবে

    ৫ সেপ্টেম্বর বিনয় তামাঙের মোমবাতি মিছিলের দিনই কাজ হাসিলের পরিকল্পনা ছিল।

    ছক ৪কার্শিয়াং থেকে কয়েকজন ছেলেকে এনে ইন্দুমনীর বাড়িতে রাখা হয়ইন্দুমনি বিনয় তামাঙের প্রতিবেশিহামলার সুবিধার জন্যই নিজের বাড়িতে এদের আশ্রয় দেন ইন্দুমনি

    তবে ততক্ষণে ফোন ট্যাপ করে বিনয় খুনের পরিকল্পনা জেনে গিয়েছে পুলিশ।

    খুনের ছক কষা হচ্ছে বলে আগেই আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন বিনয় তামাং।

    এই আশঙ্কার কথা প্রকাশ্যে জানানোর পর ৫ দিনের মাথাতেই প্রকাশ্যে এল বিনয় খুনের ছক। মদন তামাঙ সহ গুরুঙের অগুণতি অপরাধের তালিকায় আরও এক সংযোজন।

    First published:

    লেটেস্ট খবর