• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • মোর্চার বনধে মিশ্র প্রভাব পাহাড়ে, আটক বহু মোর্চা সমর্থক

মোর্চার বনধে মিশ্র প্রভাব পাহাড়ে, আটক বহু মোর্চা সমর্থক

 পুজোর মুখে মোর্চার ডাকা বনধে সকাল থেকেই উত্তপ্ত পাহাড় ৷ ১২ ঘণ্টার বনধে মিশ্র প্রভাব পড়েছে পাহাড়ে ৷ বনধে পরিস্থিতি সামাল দিতে শাসক দলের তিন মন্ত্রীই হাজির পাহাড়ে ৷

পুজোর মুখে মোর্চার ডাকা বনধে সকাল থেকেই উত্তপ্ত পাহাড় ৷ ১২ ঘণ্টার বনধে মিশ্র প্রভাব পড়েছে পাহাড়ে ৷ বনধে পরিস্থিতি সামাল দিতে শাসক দলের তিন মন্ত্রীই হাজির পাহাড়ে ৷

পুজোর মুখে মোর্চার ডাকা বনধে সকাল থেকেই উত্তপ্ত পাহাড় ৷ ১২ ঘণ্টার বনধে মিশ্র প্রভাব পড়েছে পাহাড়ে ৷ বনধে পরিস্থিতি সামাল দিতে শাসক দলের তিন মন্ত্রীই হাজির পাহাড়ে ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কার্শিয়াং: পুজোর মুখে মোর্চার ডাকা বনধে সকাল থেকেই উত্তপ্ত পাহাড় ৷ ১২ ঘণ্টার বনধে মিশ্র প্রভাব পড়েছে পাহাড়ে ৷ বনধে পরিস্থিতি সামাল দিতে শাসক দলের তিন মন্ত্রীই হাজির পাহাড়ে ৷ সরকারি অফিসে হাজিরার হার স্বাভাবিক হলেও রাস্তায় সাধারণ মানুষের উপস্থিতি তেমন চোখে পড়েনি ৷

    প্রথমবার  বনধে পাহাড়ে দেখা গেল বেনজির ছবি ৷ শেষবার পাহাড়ে বনধ হয়েছে ২০১৫-এর ১০ ডিসেম্বর   ৷ কিন্তু এদিনের বনধ সম্পূর্ণ ভিন্ন ছবি সামনে আনল ৷ এতদিন পাহাড়ে কোনও বনধ কর্মসূচিতে কোনও বিরোধিতা দেখা যায়নি ৷ উত্তেজনা থাকলেও এবারে একটু হলেও পাহাড়ে বনধের বিরুদ্ধ মতও নজরে এসেছে ৷ এতদিন বনধ মানেই একটাই চেনা ছবি ছিল পাহাড়ের ৷ অচল পাহাড়ের নিস্তব্ধ চেহারা ৷ এবারে প্রশাসন ও রাজ্য সরকারের তরফে বনধে পাহাড় সচল রাখার ব্যাপক প্রচেষ্টা দেখা গিয়েছে ৷ পাহাড়ে বনধ ব্যর্থ করতে ও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ, পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব ও জেমস কুজুর ৷

    বনধ ঘিরে পাহাড়ে সকাল থেকে বেশ উত্তেজনা রয়েছে ৷ পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে কঠোর ভূমিকা নিয়েছে প্রশাসন ৷ ইতিমধ্যেই জিটিএ-র দুই সভাসদ ফুবি রাই ও অরুণ ঘিসিং, যুব মোর্চার সভাপতি বিনয় ঘিসিং সহ এখনও পর্যন্ত তিনশোর বেশি বনধ সমর্থককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ৷

    বনধ উপেক্ষা করে দার্জিলিং জেলা প্রশাসনের দফতরে উপস্থিতির হার ৯৬ শতাংশ ৷ যদিও বনধের ব্যাপক প্রভাব পড়েছে পাহাড়ের চা বাগানগুলিতে ৷ দার্জিলিং ও কার্শিংঙে বন্ধ প্রায় সব চা বাগান ৷ এদিন বন্ধ রয়েছে মিরিক বাজারও ৷ প্রশাসনের আশ্বাস সত্ত্বেও রাস্তায় দেখা নামেনি বেসরকারি গাড়ি ৷ তবে সরকারের তরফে বহু সরকারি বাস নেমেছে পাহাড়ের রাস্তায় ৷

    বনধে অশান্তি এড়াতে বন্ধ বেশিরভাগ দোকান ৷ এমনকী বেসরকারি স্কুল-কলেজগুলিও বন্ধ রাখা হয়েছে ৷

    বনধ উপেক্ষা করে সাধারণ মানুষকে রাস্তায় নামার আর্জি জানিয়েছেন পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব ৷ এদিন সকালে কালিম্পঙে বনধের বিরুদ্ধে পথে নামেন পর্যটনমন্ত্রী ৷ কার্শিয়াঙে বনধ রুখতে খোদ উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রীর নেতৃত্বে চলে তৃণমূল সমর্থকদের মিছিল ৷ উত্তপ্ত পরিস্থিতি সামলাতে পাহাড় জুড়ে মোতায়েন অতিরিক্ত নিরাপত্তাবাহিনী ৷

    তবুও সকাল থেকেই পাহাড়ে বিভিন্ন জায়গায় বেশ কিছু উত্তেজনামূলক পরিস্থিতির সৃষ্ট হয় ৷ কার্শিয়াঙে পুলিশের গাড়িতে ভাঙচুর চালায় মোর্চা সমর্থকেরা ৷ সূত্রের খবর, পর্যটকদের দুটি গাড়িতেও ভাঙচুর চালানো হয়েছে ৷ পেডংয়ে তৃণমূলের পতাকা লাগানো দুটি গাড়িতেও ভাঙচুর চালায় বনধ সমর্থকেরা ৷

    তবে পাহাড়ে সম্পূর্ণ অন্য ছবি দেখা গেল টয় ট্রেন চলাচলে ৷ পূর্ব ঘোষণা মতোই এদিন স্বাভাবিকভাবেই চলছে টয়ট্রেন ৷ দার্জিলিং থেকে ঘুম স্টেশন পর্যন্ত চলছে জয় রাইড ৷  ট্রেনে  রয়েছেন কয়েকজন বিদেশী ও কলকাতার পর্যটক ৷

    First published: