corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনায় উত্তরে প্রথম মৃত্যু, আতঙ্কের ছায়া খাঁ খাঁ করছে ক্যাম্পাস, যা বলল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ

করোনায় উত্তরে প্রথম মৃত্যু, আতঙ্কের ছায়া খাঁ খাঁ করছে ক্যাম্পাস, যা বলল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ

করোনার বলি এবারেও উত্তরেও...

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: করোনার প্রভাব বাড়ছে দেশ জুড়েই। রাজ্যে করোনার বলি ২। এর মধ্যে উত্তরবঙ্গে ১। উত্তরে প্রথম আক্রান্তেরই মৃত্যু হয়েছে। কালিম্পংয়ের ওই মহিলা গতকাল রাত দুটো নাগাদ মারা যান উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে। গত ১৯ মার্চ চেন্নাই থেকে মেয়েকে সঙ্গে নিয়ে বিমানে নামেন ওই মহিলা।

বাগডোগরা বিমানবন্দর থেকে নিজের গাড়িতেই ওঠেন শিলিগুড়ির ৪১ নং ওয়ার্ডে জ্যোতিনগরের বাড়িতে। সেখান থেকে কালিম্পংয়ের বাড়িতে গেলে অসুস্থ বোধ করেন। সেখানেই চিকিৎসকের পরামর্শ নেন। তারপর নেমে আসেন সমতলের শিলিগুড়িতে। ফের চিকিৎসকের পরামর্শ নেন। সুস্থ হয়ে না ওঠায় গত ২৬ মার্চ মেডিকেলের Covid 19 স্ক্রিণিং সেন্টারে ফের আসেন ওই মহিলা। ওই দিনই চিকিৎসকদের পরামর্শে ভর্তি হন মেডিকেলের আইসোলেশনে।

শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় রিকুতে সিফট করানো হয়। ২৮-এ নাইসেডের রিপোর্টে পজিটিভ আসে। গতকাল রাতে মৃত্যু হয় তাঁর। ইতিমধ্যেই তাঁর সংস্পর্ষে থাকা আত্মীয়, পরিচারিকা, গাড়ির চালক মিলিয়ে ৪ জনকে আইশোলেশনে এবং ৩৫ জনকে পর্যবেক্ষন সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে। উত্তরে করোনায় প্রথম মৃত্যুর পরই কড়া সতর্কতা নেওয়া হয়েছে মেডিকেলে।

ক্যাম্পাস যেন খাঁ খাঁ করছে। মাইকিং করে সতর্ক বার্তায় বলা হচ্ছে, রোগীকে ভর্তি করিয়েই যেন আত্মীয়রা ক্যাম্পাসের বাইরে চলে যান। ক্যাম্পাস ফাঁকা করার আর্জি জানায় কর্তৃপক্ষ। যেখানে প্রতিদিনই ইমারজেন্সী থেকে বহির্বিভাগ ভিড়ে ঠাসা থাকে। এই মূহূর্তে সবই কার্যত ফাঁকা। ক্যাম্পাস চত্বর স্যানিটাইজড করা হয়। অন্যদিকে মেডিকেলে পর্যাপ্ত করোনা প্রতিরোধক পোশাক, মাস্ক অমিল বলে অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ দেখায় নার্সিং স্টাফেরা। এমনকী হ্যাণ্ড স্যানিটাইজার, ক্যাপ, হ্যাণ্ড গ্লাভসও নেই। কর্তৃপক্ষ এনিয়ে নীরব। অথচ Covid 19 স্ক্রিণিং সেন্টারে প্রতিদিনই প্রচুর রুগী আসছে। তাই তাঁরা অসুরক্ষিত বলে অভিযোগ নার্সদের। অবিলম্বে প্রয়োজনীয় করোনা প্রতিরোধক স্বাস্থ্য সরঞ্জাম আনার দাবী জানায় তারা। যদিও এনিয়ে কর্তৃপক্ষের কোনো উত্তর পাওয়া যায়নি।

 Partha Sarkar

Published by: Debalina Datta
First published: March 30, 2020, 8:30 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर