দশদিন ধরে মেলেনি জল, ক্ষোভে ফুঁসছে মালদহের এই গ্রাম...

পানীয় জলের সমস্যা নিয়ে পথে মালদেহর আইহোরের বাসিন্দারা।

পুলিশের সামনেই দীর্ঘক্ষন ধরে বন্ধ হয়ে থাকল রাজ্য সড়ক। মালদহের আইহোর ঘটনায় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস পঞ্চায়েত প্রধান ও বিডিও-র।

  • Share this:

মালদহ: দশদিন ধরে অমিল পানীয় জল। লকডাউনে বকেয়া বিল না মেটানোয় বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন গ্রামের গভীর নলকূপ। প্রচন্ড গরমে নাজেহাল হয়ে শেষে রাস্তায় নেমে অবরোধে সামিল হলেন গ্রামের মহিলারা।  পুলিশের সামনেই দীর্ঘক্ষন ধরে বন্ধ হয়ে থাকল রাজ্য সড়ক। মালদহের আইহোর ঘটনায় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস পঞ্চায়েত প্রধান ও বিডিও-র।

মালদহের হবিবপুর ব্লকের আইহো পঞ্চায়েতের বক্সীনগর গ্রাম এলাকায় বসবাস হাজারেরও বেশি মানুষের। পানীয় জলের ভরসা বলতে গ্রামের একমাত্র গভীর নলকূপ। কিন্তু, এই নলকূপ গত দশদিন ধরে অচল হয়ে রয়েছে। কারণ, বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকায় সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে বিদ্যুৎ দপ্তর। প্রচণ্ড গরমে মিলছেনা পানীয় জল। খাবার জলের চাহিদা মেটাতে বাধ্য হয়ে গ্রামের অনেকেই দূর-দূরান্ত থেকে জল বয়ে আনতে বাধ্য হচ্ছেন। অনেকে আবার পাতকুঁয়োর ওপর ভরসা করতে হচ্ছে স্থানীয় বাসিন্দাদের। অভিযোগ, বারবার স্থানীয় পঞ্চায়েত কর্তৃপক্ষকে বিদ্যুৎ বিলের সমস্যার কথা জানালেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে শুক্রবার দুপুরে আন্দোলনে সামিল হলেন গ্রামের মহিলারা।  হাতে লেখা প্লাকার্ড আর খালি জলের বালতি হাতে রাস্তা অবরোধ করে প্রতিবাদ জানালেন গ্রামের মহিলারা।

এই আন্দোলনের জেরে দীর্ঘক্ষন যানচলাচল বন্ধ হয়ে থাকে মালদা - নালাগোলা গুরুত্বপূর্ণ রাজ্য সড়কে। খবর পেয়ে এলাকায় পৌঁছয় হবিপুর থানার পুলিশ। এরপরও পুলিশের সামনেই চলতে থাকে অবরোধ। ব্লক প্রশাসনের কর্তারা এলাকায় এসে সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দেওয়া না পর্যন্ত আন্দোলন চলবে বলে হুঁশিয়ারি দেন মহিলারা। কোনওরকমে তাঁদের বুঝিয়ে শান্ত করার চেষ্টা করে পুলিশ। পুলিশের সামনেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন আন্দোলনকারীরা।

যদিও স্থানীয় তৃণমূল পঞ্চায়েত প্রধানের দাবি, আইহোর বক্সীনগরে পানীয় জলের প্রকল্প বন্ধ হয়ে যাওয়ার বিষয়ে তাঁর কিছুই জানা নেই। কিছুদিন আগে একবার ওই গভীর নলকূপ প্রকল্প অকেজো হয়ে যাওয়ায় পঞ্চায়েতের উদ্যোগে মেরামত করে দেওয়া হয়েছিল। বিদ্যুৎ বিল মেটানোর কথা স্থানীয় বাসিন্দাদের। কিন্তু, লকডাউনে গ্রামের মানুষ যে বিদ্যুৎ বিল মেটাতে পারেন নি এমন বিষয়ে তাঁর অজানা। করোনা পরিস্থিতিতে বিদ্যুৎ বিল বাকি থাকায় যাতে জলপ্রকল্প বন্ধ করে দেওয়া না হয়, এজন্য বিদ্যুৎ দপ্তর ও ব্লক প্রশাসনের কাছে আর্জি জানানো হবে।

হবিবপুর এর বিডিও সুপ্রতীক সাহা জানিয়েছেন, ওই এলাকায় বিকল্প হিসেবে জনস্বাস্থ্য ও কারিগরি দপ্তরকে উদ্যোগ নিতে বলা হয়েছে। এর পাশাপাশি গভীর নলকূপের সংযোগ চালু করা যায় কিনা সে সম্ভাবনাও বিদ্যুৎ দপ্তরের সঙ্গে আলোচনা করে খতিয়ে দেখা হবে।

-সেবক দেবশর্মা

Published by:Arka Deb
First published: