Darjeeling: দার্জিলিংয়ের পথে তিন জায়গায় পর্যটকদের থার্মাল চেকিং, হবে র‍্যাপিড টেস্ট

দার্জিলিংগামী পর্যটকদের জন্য নয়া নিয়ম৷

পর্যটকদের থার্মাল চেকিংয়ের পাশাপাশি টিকার ডাবল ডোজ না নেওয়া থাকলে অথবা আরটিপিসিআর রিপোর্ট নেগেটিভ না থাকলে র‍্যাপিড এন্টিজেন টেস্ট করা হবে (Darjeeling)।

  • Share this:

#দার্জিলিং: উত্তরবঙ্গ সহ রাজ্যের বিভিন্ন অংশের পর্যটন কেন্দ্রগুলিতে ঘুরতে যাওয়ার কড়াকড়ি অনেকটাই শিথিল করেছে রাজ্য সরকার! এবার থেকে র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট রিপোর্ট নেগেটিভ এলেই অনায়াসে ভ্রমণ করতে পারবেন পর্যটকরা। এ দিন শিলিগুড়িতে দার্জিলিং ও কালিম্পং জেলার প্রশাসনিক ও স্বাস্থ্য দপ্তরের শীর্ষ কর্তাদের সঙ্গে জরুরি বৈঠক শেষে  উত্তরবঙ্গে কোভিড পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের দায়িত্বে থাকা স্বাস্থ্য দফতরের ভারপ্রাপ্ত কর্তা সুশান্ত রায়ও এ কথা জানিয়েছেন।

কোভিড আবহে উত্তরের পর্যটন কেন্দ্রে ঘোরার ক্ষেত্রে হয় টিকার ডাবল ডোজ অথবা শেষ ৭২ ঘন্টায় আরটিপিসিআর রিপোর্ট নেগেটিভ থাকতে হবে, এর আগে এমনই নির্দেশিকা জারি করা হয়েছিল। কিন্তু আটিপিসিআর টেস্ট করানোর জটিলতার কথা মাথায় রেখেই র‍্যাপিড এন্টিজেন টেস্ট-কেও ছাড়পত্র দেওয়া হল। এই তিন শর্তের যে কোনও একটি থাকলেই মিলবে ঘোরার সবুজ সংকেত। এতে কিছুটা হলেও স্বস্তিতে পর্যটন ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে পর্যটকরা!

 করোনা আক্রান্তের ক্ষেত্রে রাজ্যে আনুপাতিক হার বেশি উত্তরের দার্জিলিং ও কালিম্পং জেলায়। অন্য জায়গায় আক্রান্তের হার যেখানে ১ শতাংশ, সেখানে এই দুই জেলায় আক্রান্তের হার ৩ শতাংশ। তাই সতর্কতা হিসেবে বেশ কিছু পদক্ষেপ নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয় আজকের বৈঠকে। পাহাড়ে ওঠার পথে তিন জায়গায় চেকপোস্ট করা হচ্ছে। সেখানে পর্যটকদের থার্মাল চেকিংয়ের পাশাপাশি টিকার ডাবল ডোজ না নেওয়া থাকলে অথবা আরটিপিসিআর রিপোর্ট নেগেটিভ না থাকলে র‍্যাপিড এন্টিজেন টেস্ট করা হবে। রিপোর্ট নেগেটিভ এলেই মিলবে পাহাড়ে ওঠার ছাড়পত্র! এ ছাড়াও থার্মাল চেকিং করা হবে পাহাড়ে ওঠার তিন জায়গায়।

তৃতীয় ঢেউয়ের মোকাবিলায় উত্তরের ৮ জেলাতেই শিশুদের জন্যে এনআইসিইউ এবং পিআইসিইউ ওয়ার্ড ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে তৈরি করার নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। তারপরই উত্তরবঙ্গ মেডিক্যালে কলকাতা থেকে আনা হবে বিশেষজ্ঞ টিম।।ওই টিম এখানকার শিশু বিভাগের চিকিৎসক, নার্সদের প্রশিক্ষণ দেবে। সেই সঙ্গে শিশু বিভাগে বাড়ানো হচ্ছে চিকিৎসক এবং নার্সের সংখ্যা৷  রাজ্য পর্যটন দপ্তর এবং স্বাস্থ্য দপ্তরের নয়া নির্দেশিকায় স্বস্তিতে ট্যুর অপারেটররা। পর্যটন ব্যবসায়ী সম্রাট সান্যাল জানান, এতে পর্যটকদের ক্ষেত্রে কিছুটা সুবিধে মিলবে। স্বাস্থ্য বিধি মেনেই পর্যটকেরা পাহাড় বা ডুয়ার্সে বেড়াতে যাবেন।

Published by:Debamoy Ghosh
First published: