Dooars Ajodhya Hill: ডুয়ার্স যাচ্ছেন কিংবা অযোধ্যা পাহাড়? নিয়ম জেনে যান, নাহলে মুশকিলে পড়তে হবে!

নিয়ম মানতে হবে...

Dooars Ajodhya Hill: পুরুলিয়ার অযোধ্যা পাহাড়ের পর এবার ডুয়ার্সেও পর্যটকদের জন্যও করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নির্দেশিকা জারি করল প্রশাসন।

  • Share this:

    #ডুয়ার্স: ঘুরতে যাওয়ার চেয়ে বড় শখ বাঙালির আর কী আছে! দুদিনের ছুটিতেও বাঙালি পারলে দৌড়ে চলে যায় পাহাড় বা সৈকতে। কিন্তু করোনা এসে যেন সেই ধারাবাহিকতায় দীর্ঘ ছেদ ফেলছে। কিন্তু শুধু করোনার আতঙ্ক কি বাঙালিকে আটকে রাখতে পারে! তাই বিধিনিষেধ কিছুটা শিথিল হতেই কেউ পড়ছে দার্জিলিং, কেউ বা ডুয়ার্স, কারও পছন্দ বা পুরুলিয়া। আর সেই কারণে কয়েক গুণ বেড়ে যাচ্ছে সংক্রমণ আশঙ্কাও। পরিস্থিতি আন্দাজ করে তাই দিঘা, দার্জিলিং, পুরুলিয়ার অযোধ্যা পাহাড়ের পর এবার ডুয়ার্সেও পর্যটকদের জন্যও নির্দেশিকা জারি করল প্রশাসন।

    জলপাইগুড়ি জেলা প্রশাসনের তরফে স্পষ্ট নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, এবার থেকে ডুয়ার্সে (Dooars) বেড়াতে গেলেই দেখাতে হবে বাধ্যতামূলকভাবে কোভিড আরটি-পিসিআর (RT-PCR) পরীক্ষার নেগেটিভ রিপোর্ট। সেই রিপোর্ট হতে হবে বেড়াতে আসার মাত্র ৪৮ ঘণ্টা আগের। তবে, যাঁদের করোনা ভ্যাকসিনের দুটি ডোজ নেওয়াই সম্পন্ন হয়েছে, তাঁদের ক্ষেত্রে টেস্ট রিপোর্ট প্রয়োজন নেই।

    পর্যটন ব্যবসায়ীদের কপালে দুশ্চিন্তার ভাঁজ। তাঁদের দাবি, এই নির্দেশিকার ফলে পর্যটকরা মুশকিলে পড়বেন। আর তার প্রভাব পড়বে ব্যবসায়ীদের উপর। কারণ, দার্জিলিং, ডুয়ার্স একসঙ্গে বেড়ানোর পরিকল্পনা করেন বহু পর্যটক। সেক্ষেত্রে তাঁদের পক্ষে ৪৮ ঘণ্টা আগের আরটি-পিসিআর রিপোর্ট দেখাতে সমস্যা হবে। তাই নির্দেশিকায় একটু পরিবর্তনের আবেদন জানিয়েছেন তাঁরা।

    ইতিমধ্যেই রাজ্যের বিধিনিষেধ একটু শিথিল হতেই পর্যটকরা ভুল করছেন বিভিন্ন জায়গায়। শান্তিনিকেতন (Shantiniketan), তারাপীঠ এবং দিঘায় এত ভিড় হতে শুরু করে, যে বিধিনিষেধ জারি করতে হয় জেলা প্রশাসনকে। জেলার বাইরে থেকে পর্যটক আসার ফলে করোনা আবার নতুন করে ছড়িয়ে পড়তে পারে। আর সেই কারণেই প্রথমে পর্যটকদের জন্য কোভিড টেস্টের রিপোর্ট বাধ্যতামূলক করেছিল বীরভূম প্রশাসন। পরবর্তীতে একই নিয়ম জারি হয় দিঘা এবং দার্জিলিং, পুরুলিয়ার অযোধ্যা পাহাড়ের ক্ষেত্রেও। এবার সেই তালিকায় নাম লেখাল ডুয়ার্সও।

    Published by:Suman Biswas
    First published: