corona virus btn
corona virus btn
Loading

নয়া সেতু পাচ্ছে সেবক, নকশা তৈরি হচ্ছে শীঘ্রই   

নয়া সেতু পাচ্ছে সেবক, নকশা তৈরি হচ্ছে শীঘ্রই   

২০১১ সালের ভূমিকম্পে এই সেতুর পিলার সামান্য ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। সেই সময় সেতু সংষ্কারের কাজ করা হয়। যদিও সেই কাজ পুরোপুরি ভাবে খোলননচে বদলানো যায়নি।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: বয়সের ভারে ক্লান্ত। তবুও প্রতিদিন হাজারো ওজনের যান বাহনের চাপ সে সামলে চলেছে। খুব কম জনকেই বোধহয় পাওয়া যাবে, যিনি উত্তরবঙ্গে গিয়েছেন কিন্তু করোনেশন ব্রিজে যাননি। ৮৩ বছরের পুরানো সেই সেতু সংষ্কারের কাজ অবশেষে শুরু হচ্ছে। পাশাপাশি সেবকে বানানো হচ্ছে নয়া একটি সেতু। রাজ্য থেকে বর্ষা বিদায় নিলেই অবশেষে শুরু হয়ে যাবে সেবকের করোনেশন সেতু সংষ্কারের কাজ। ১৯৩৭ সালে তৈরি করা হয়েছিল এই সেতু। সেতুর বয়স ছুঁয়েছে ৮৩ বছর। যদিও এই বৃদ্ধ বয়সেও, যুবদের মতো লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে করোনেশন সেতু।

২০১১ সালের ভূমিকম্পে এই সেতুর পিলার সামান্য ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। সেই সময় সেতু সংষ্কারের কাজ করা হয়। যদিও সেই কাজ পুরোপুরি ভাবে খোলননচে বদলানো যায়নি। তাই একাধিকবার স্ট্রাকচারাল ইঞ্জিনিয়াররা জানিয়েছিলেন, ভার বহনের বিষয় নিয়ন্ত্রণ করতে। এখন যদিও এই সেতুর ওপর দিয়ে ১০ টনের বেশি ওজনের গাড়ি চলাচল নিষিদ্ধ করা আছে। অভিযোগ এখনও মাঝে মধ্যেই ১০ টন ওজনের গাড়ি যাতায়াত করছে। এই সেতুর পিলারের মাটি সরে গিয়েছিল বহু দিন আগেই। সেতুর পিলারের মাটি সরে যাওয়ার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন বিশেষজ্ঞরা। সেই কারণে এবার পাকাপাকি ভাবে সেতুর পিলার সংষ্কারের কাজ শুরু করে দেওয়া হচ্ছে। করোনেশন ব্রিজের পিলারের নীচে বসানো হচ্ছে পাথর। খরস্রোতা তিস্তার জলে যাতে পিলারের আর কোনও ক্ষতি না হয় সেই চেষ্টা শুরু হয়েছে। পিলারের চার পাশে পাথর এবং লোহার জালি বসিয়ে। এর ফলে পিলার রক্ষা করা সম্ভব হবে।

কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহণ মন্ত্রক সূত্রে খবর, প্রায় ৭৫ লাখ টাকা খরচ করে এই সংষ্কার কাজ করা হবে। আগামী সপ্তাহ থেকেই এই কাজ শুরু হয়ে যাবে। অন্যদিকে ডুয়ার্সবাসীদের জন্যে সুখবর। সেবকে তৈরি হতে চলেছে নয়া সেতু। সেবকে যে রেল ব্রিজ রয়েছে, তার পাশ দিয়েই বানানো হবে নয়া সেতু। ইতিমধ্যেই জায়গা চিহ্নিত করা হয়েছে। কেমন হবে এই সেতু তার জন্যে নকশা করা হচ্ছে। একেবারে সেবক থেকে ওদলাবাড়ি অবধি এই সেতু বানানোর সম্ভাবনা। নয়া সেতু হয়ে গেলে অনেকটাই কমবে ঐঐতিহ্যশালী করোনেশন সেতুর ওপর চাপ।

Published by: Pooja Basu
First published: September 29, 2020, 10:41 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर