corona virus btn
corona virus btn
Loading

বাতাসে দূষণ নেই, নির্দিষ্ট সময়ের এক মাস আগেই কুলিক পক্ষীনিবাসে চলে এল পরিযায়ী পখিরা

বাতাসে দূষণ নেই, নির্দিষ্ট সময়ের এক মাস আগেই কুলিক পক্ষীনিবাসে চলে এল পরিযায়ী পখিরা

পাখিদের জন্য কুলিকের ভেতরে এবং বাইরে বেশ কিছু জলাশয়ে মাছ ছাড়া হয়েছে। যাতে তারা অনুকূল পরিবেশ পেয়ে স্বাভাবিকভাবে বংশবৃদ্ধি করতে পারে ।

  • Share this:

Uttam Paul

#রায়গঞ্জ: রায়গঞ্জ করোনা আবহের মধ্যেই প্রকৃতিপ্রেমীদের জন্য ভাল খবর। লকডাউনে পরিবেশে দূষণ কম হওয়ায় মাস খানেক আগেই রায়গঞ্জ কুলিক পাখিরালয়ে হাজির পরিযায়ী পাখিরা। বিভিন্ন জায়গা থেকে উড়ে এসে পরিযায়ী পাখিরা বর্তমানে ডেরা জমিয়েছে রায়গঞ্জ শহরের কুলিক নদীর ধারে কুলিক পাখিরালয়ে। খুব স্বাভাবিক ভাবেই এই দৃশ্যে উচ্ছ্বসিত প্রকৃতিপ্রেমীরা।

মূলত জুন মাসের শেষ সপ্তাহ কিংবা জুলাই মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে ওপেন বিল স্টক, ইগ্রেট, নাইট হেরন, করমোরেন্ট - এই চার প্রজাতির পরিযায়ী পাখিদের আগমন ঘটে রায়গঞ্জের কুলিক পক্ষীনিবাসে। কিন্তু এ বছর মে মাসের শেষ সপ্তাহেই আগমন শুরু হয়ে গিয়েছে এইসব পরিযায়ী পাখিদের। আর এর পেছনে অনেকটা বেশি হাত রয়েছে লকডাউনের জেরে বাতাসে দূষণের মাত্রা কমে যাওয়া। রায়গঞ্জ ডিভিশনের ডিএফও  সোমনাথ সরকার জানিয়েছেন, বিভিন্ন এশীয় প্রজাতির পাখিরা সাধারণত যে সময় কুলিক পাখিরালয়ে আসে, এ বার তার থেকে অনেক আগেই এসে পৌঁছেছে।  ইতিমধ্যেই তারা তাদের মতো করে বিভিন্ন গাছে বাসা বেঁধেছে। প্রজনন ও প্রজনন পরবর্তী সময়ের কার্যকলাপের জন্য। প্রতিবছর সেই কাজই তারা কুলিক পাখিরালয়ে করে থাকে।

বিশ্বের বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা পরিযায়ী পাখিদের রায়গঞ্জ কুলিক পক্ষীনিবাসে এসে বাসা বাঁধতে দেখা যায়। রায়গঞ্জ কুলিক পাখিরালয়ে  পাখিদের আসা দেখে দ্রুত কুলিক পক্ষীনিবাস সর্বসাধারণের জন্য খুলে দেওয়ার দাবি তুলেছেন প্রকৃতিপ্রেমীরা। যদিও বন দফতরের দাবি, সরকারি নির্দেশিকা না আসা পর্যন্ত কোনও ভাবেই কুলিক পক্ষীনিবাস সাধারণ মানুষের জন্য খুলে দেওয়া যাবে না।পক্ষীনিবাস সর্বসাধারণের খুলে দেওয়া হলে সমস্ত রকম সাবধনতা অবলম্বন করে প্রকৃতিপ্রেমীদের ঢোকানো হবে। পাখিদের জন্য এ বার কুলিকের ভেতরে এবং বাইরে বেশ কিছু জলাশয়ে মাছ ছাড়া হয়েছে। অনুকূল পরিবেশের কারণে গতবারে চাইতে এ বারে পক্ষীনিবাসে পরিযায়ি পাখির সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন বনাধিকারিক সোমনাথ সরকার।

Published by: Simli Raha
First published: June 10, 2020, 5:37 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर