• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • আর তিনদিন পরেই বিয়ে! নিজের বিয়ের নিমন্ত্রণ করতে গিয়ে দুর্ঘটনায় মৃত্যু যুবকের

আর তিনদিন পরেই বিয়ে! নিজের বিয়ের নিমন্ত্রণ করতে গিয়ে দুর্ঘটনায় মৃত্যু যুবকের

যুবক ছেলের দুর্ঘটনায় মৃত্যুতে বাবা-মা শোকে ভেঙে পড়েছেন।  আগামী সোমবার সাহিদ আলমের বিয়ে।

যুবক ছেলের দুর্ঘটনায় মৃত্যুতে বাবা-মা শোকে ভেঙে পড়েছেন। আগামী সোমবার সাহিদ আলমের বিয়ে।

যুবক ছেলের দুর্ঘটনায় মৃত্যুতে বাবা-মা শোকে ভেঙে পড়েছেন। আগামী সোমবার সাহিদ আলমের বিয়ে।

  • Share this:

Uttam Paul

#গোয়ালপোখর: নিজের বিয়ের নিমন্ত্রণ করতে গিয়ে লড়ির ধাক্কায় এক যুবকের মৃত্যু হল। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর দিনাজপুর জেলার গোয়ালপোখর থানার বিপ্রীত গ্রামে। পুলিশ লড়িটিকে আটক করতে পারেনি। দেহটি ময়নাতদন্তের জন্য ইসলামপুর হাসপাতাল মর্গে নিয়ে আসা হয়েছে।ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে গোয়ালপোখর থানার পুলিশ।

জানা গিয়েছে, গোয়ালপোখর থানার পার্তাপুর গ্রামের বাসিন্দা সাহিদ আলম বুধবার রাতে নিজের বিয়ের  নিমন্ত্রণ করতে গোয়ালপোখরে এসেছিলেন। বাড়ি ফেরার পথে বিপ্রীত এলাকায় একটি ছোট লড়ি তাঁর মোটরবাইকে ধাক্কা মেরে পালিয়ে যায়। পথ চলতি মানুষ রাস্তার ধারে তাঁর রক্তাক্ত দেহ পড়ে থাকতে দেখেন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় সাহিদকে প্রথমে লোধন স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে আসা হয়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যেতেই রাস্তাতেই তাঁর মৃত্যু হয়।

পুলিশ দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ইসলামপুর হাসপাতাল মর্গে নিয়ে এসেছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করে গোয়ালপোখর থানার পুলিশ। মৃত যুবকের আত্মীয় মহম্মদ সাই ইসলামপুর হাসপাতালে দাঁড়িয়ে জানান, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে তাঁরা দ্রুত ইসলামপুর হাসপাতালে ছুটে আসেন। হাসপাতালে এসে তিনি মৃত্যুর খবর পান। মৃত সাহিদ আলমের পরিবারে বাবা-মা জীবিত। যুবক ছেলের দুর্ঘটনায় মৃত্যুতে বাবা-মা শোকে ভেঙে পড়েছেন।  আগামী সোমবার সাহিদ আলমের বিয়ে। সেই বিয়ের নিমন্ত্রণ করতে গতকাল সন্ধ্যায় মোটরবাইক নিয়ে বেরিয়েছিলেন। রাতে নিমন্ত্রণ শেষ করে বাড়ি ফিরছিলেন। বাড়ি ফেরার পথে বিপ্রীতের কাছে রাস্তায় কোনও একটি গাড়ি তাঁকে ধাক্কা মেরে পালিয়ে যায়।

পথচারীরা তাঁকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে। উদ্ধারকারীরাই তাঁকে গোয়ালপোখর থানার লোধন স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে আসে এবং পরিবারের লোকদের খবর দেয়। অবস্থা আশঙ্কাজনক থাকায় তাঁকে ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালে স্থানান্তর করে। হাসপাতালে নিয়ে যাবার পথে তাঁর মৃত্যু হয়। এই খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়তেই শোকের ছায়া নেমে আসে। গোয়ালপোখর থানার পুলিশ জানিয়েছেন, ঘাতক লড়িটিকে আটক করা যায়নি। পুলিশ একটি অস্বাভাবিক মৃত্যু মামলা ঋজু করে তদন্ত শুরু করেছে।

Published by:Simli Raha
First published: