NRC আতঙ্কে আধার কার্ড সংশোধনের হিড়িক মালদহে, ভিড়ের চাপে অসুস্থ একাধিক

NRC আতঙ্কে আধার কার্ড সংশোধনের হিড়িক মালদহে, ভিড়ের চাপে অসুস্থ একাধিক

পরিস্থিতি সামাল দিতে গিয়ে নাজেহাল অবস্থা হয় পুলিশের। অল্প সংখ্যক পুলিশ পরিস্থিতি সামাল দিতে ব্যর্থ হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায় ।

  • Share this:

#মালদহ:আধার কার্ড সংশোধন করতে গিয়ে চরম বিশৃঙ্খলা মালদা মুখ্য ডাকঘর চত্বরে। ভিড়ের চাপে অসুস্থ বেশ কয়েকজন । পরিস্থিতি সামাল দিতে হিমশিম পুলিশ। অশান্তির মধ্যেই নিজেদের মধ্যে বাক-বিতণ্ডা জড়ালেন মালদা মুখ্য ডাকঘর এর সুপারিনটেন্ডেন্ট এবং ইংরেজবাজার থানার আইসি। অব্যবস্থা নিয়ে দুই সরকারি কর্তার চাপান-উতোর।

আধার কার্ড সংশোধনের জন্য রাত থেকে লাইনে দাঁড়ান বহু মানুষ। সকাল হতেই কয়েক হাজার মানুষের ভিড় জমা হয়ে যায়। দূরদুরান্ত থেকে আধার সংশোধনের জন্য আসেন প্রচুর মানুষ। ভিড়ের মধ্যে ছিলেন প্রচুর মহিলা ও শিশু । সকাল ৯টা নাগাদ আধার সংশোধনের জন্য নাম নথিভুক্ত করার কাজ শুরু হতেই বেঁধে যায় চরম অশান্তি । পোস্ট অফিসের গেট ভেঙে ভেতরে ঢোকার চেষ্টা করেন জনতা।

পরিস্থিতি সামাল দিতে গিয়ে নাজেহাল অবস্থা হয় পুলিশের। অল্প সংখ্যক পুলিশ পরিস্থিতি সামাল দিতে ব্যর্থ হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায় ।নিজেদের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি, মারামারি শুরু করেন লাইনে দাঁড়ানো লোকজন। ধাক্কাধাক্কিতে পড়ে গিয়ে অসুস্থ হন কয়েকজন জন বৃদ্ধা ও মহিলা। পরিস্থিতি সামাল দিতে হ্যান্ড মাইক নিয়ে প্রচার শুরু করে ডাকঘর কর্তৃপক্ষ। মানুষকে ধৈর্য ধরে অপেক্ষা করার জন্য আর্জি জানানো হয়। শহরের প্রাণকেন্দ্রে এমন বিশৃঙ্খলার জেরে তৈরি হয় ব্যাপক যানজট।

খবর পেয়ে ইংরেজবাজার থানা থেকে আইসি অমলেন্দু বিশ্বাসের নেতৃত্বে পুলিশবাহিনী বিশাল পুলিশবাহিনী এলাকায় আসে। এই পরিস্থিতিতে ইংরেজবাজার থানার আইসি অমলেন্দু বিশ্বাস এবং মালদা ডাকঘরের সুপারিনটেন্ডেন্ট অমল কৃষ্ণ ঘোষ তর্কাতর্কিতে জড়ান । কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারি আধিকারিকরা একে অপরকে দোষারোপ করে তর্কাতর্কি শুরু করেন। শেষ পর্যন্ত খোলা হয় নাম নথিভুক্ত করার জন্য বাড়তি কাউন্টার । পাশাপাশি বাড়তি পুলিশ বাহিনী ভিড় সামাল দিতে নামে।

লাইনে দাঁড়ানো মানুষজন জানান, CAA এবং NRC আতঙ্কের কারণে বেশিরভাগ লোকজন রাত থেকে লাইনে দাড়িয়েছেন। তবে এদিন নতুন আধার কার্ড তৈরি বা আধার কার্ড সংশোধনের কোনও কাজই হয়নি। যাঁদের আধার কার্ডের সমস্যা রয়েছে অথবা যাঁরা নতুন আধার কার্ড করতে চান তাঁদের নাম নথিভুক্ত করে ফেব্রুয়ারি মাসের বিভিন্ন দিনে আসতে বলা হয়।

First published: January 28, 2020, 7:06 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर