Home /News /north-bengal /
Cooch Behar: ফোন আসত নাগাড়ে, ত্রিকোণ প্রেমে বাধা দিয়েই প্রাণ গেল প্রেমিকার বাবার? হাড়হিম কাণ্ড

Cooch Behar: ফোন আসত নাগাড়ে, ত্রিকোণ প্রেমে বাধা দিয়েই প্রাণ গেল প্রেমিকার বাবার? হাড়হিম কাণ্ড

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

Cooch Behar: ত্রিকোণ প্রেমে বাধা দিয়ে কি বেঘোরে প্রাণ গেল প্রেমিকার বাবার? বিভিন্ন নম্বর থেকে ফোন করে উত্ত্যক্ত করা হত বলে অভিযোগ।

  • Share this:

    কোচবিহারঃ ত্রিকোণ প্রেমে বাধা দিয়ে কি বেঘোরে প্রাণ গেল প্রেমিকার বাবার? বিভিন্ন নম্বর থেকে  ফোন করে উত্ত্যক্ত করা হত মেয়েকে। প্রেমিকের বন্ধু নিয়মিত  বিরক্ত করছিল যুবতীকে। এরই প্রতিবাদ করেছিলেন যুবতীর বাবা। এরপর তার মাশুল গুনতে হল প্রাণ দিয়ে। কোচবিহার জেলার মাথাভাঙ্গা  শহরের ঘটনা।

    মাথাভাঙ্গা থানা জানিয়েছে মৃত ব্যাক্তির নান শিবু চন্দ৷ তার মেয়ের ফোনে আসত ফোন। ফোনে কুকথা বলে বিরক্ত করা হত মেয়েকে। রবিবার রাতেও এসেছিল এমন ফোন। যুবতীকে ফোন করত তার প্রেমিকের বন্ধু বিশাল মন্ডল। রবিবার বিরক্ত হয়ে মেয়ের মোবাইল ফোন ফের ফোন এলে  বিশাল নামে যুবককে হুমকি দেন যুবতীর বাবা৷আর যেন কোনোদিন সে  ফোন না করে তাই সাবধান করে দেওয়া হয়। তবে অভিযুক্ত যুবকের সাথে ফোনে যুবতীর বাবার চলে দীর্ঘক্ষন বচসা৷ পরিস্থিতি এমন দিকে গড়ায় যে অভিযুক্ত যুবক চলে আসে বাড়িতে৷ যুবতীর বাবাকে বাড়িতে ঢুকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। এতেই গুরুতর আহত হন তিনি। মাথাভাঙ্গা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মৃত বলে জানায়৷

    আরও পড়ুন: ইনিই বিশ্বের ভয়ঙ্করতম স্নাইপার! ছাড়লেন ইউক্রেন, তুললেন ভয়ঙ্কর অভিযোগ

    মৃতের স্ত্রী সন্তোষী চন্দ জানিয়েছেন, তাদের মেয়েকে  নিয়মিত ফোন করে বিরক্ত করত প্রতিবেশী যুবক৷ ফোনে নানা ধরনের কুকথা বলত সে৷ রবিবার রাতেও ফোন এলে তার স্বামী মেয়ের সম্মান বাঁচাতে ফোনে সেই যুবককে সতর্ক করে। এরপর  রাতে তার বাড়িতে এসেছিল যুবক। এসেই মারধর শুরু করে তার স্বামীকে৷ এরপর রক্তাক্ত অবস্থায় বাড়ির সামনে ফেলে রেখে চলে গিয়েছিল যুবক। পরে মাথাভাঙ্গা হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাকে মৃত ঘোষনা করেন চিকিৎসকরা৷

    আরও পড়ুন: পাট-বৈঠকে ডাক পেলেন না অর্জুন সিং! নেপথ্যে 'উপরের নির্দেশ'? তুমুল শোরগোল

    বিশেষ সূত্রে খবর যুবতী স্থানীয় যুবকের সাথে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এই সম্পর্কের মধ্যে জোড় করেই ঢুকতে চাচ্ছিল অভিযুক্ত যুবক বিশাল মন্ডল। সেজন্য নিয়মিত ফোন করে বিরক্ত করা হত৷ এই নিয়ে বিবাদে যুবতীর বাবার প্রাণ যায়। পরিবার মাথাভাঙ্গা থানায় লিখিত অভিযোগ জানিয়েছে। অভিযুক্ত যুবক বিশাল মন্ডলকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ৷

    ---প্রবীর কুণ্ডু

    Published by:Suman Biswas
    First published:

    Tags: Cooch behar, West Bengal news

    পরবর্তী খবর