আর যাই করুন বিজেপি-তে যাবেন না, ওরা শুধু ধর্মের নামে দাঙ্গা লাগায়’, কটাক্ষ মমতার

কোচবিহারের সভা থেকে সামগ্রিক ভাবে নিশানা করলেন গেরুয়াশিবিরকে। রাজ্যে বিজেপির সঙ্গে বামেদের আঁতাঁতের অভিযোগ তুললেন মমতা।

কোচবিহারের সভা থেকে সামগ্রিক ভাবে নিশানা করলেন গেরুয়াশিবিরকে। রাজ্যে বিজেপির সঙ্গে বামেদের আঁতাঁতের অভিযোগ তুললেন মমতা।

  • Share this:

    #কোচবিহার: শিলিগুড়িতে অমিত শাহ। কিন্তু, বিজেপি সভাপতির নামই মুখে আনলেন না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কোচবিহারের সভা থেকে সামগ্রিক ভাবে নিশানা করলেন গেরুয়াশিবিরকে। রাজ্যে বিজেপির সঙ্গে বামেদের আঁতাঁতের অভিযোগ তুললেন মমতা। তবে তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রীর হুঁশিয়ারি, এ রাজ্যে বাঘেরও দাঁত ফোটানো কঠিন।

    উত্তরবঙ্গে শক্তি পরীক্ষার লড়াই। একই দিনে তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিজেপি দুই যুযুধান দলের দুই কাণ্ডারী উত্তরবঙ্গে। নকশালবাড়িতে জনসংযোগে ব্যস্ত বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ। গ্রামবাসীর বাড়িতেই দুপুরের খাবারের আয়োজন। যেন বার্তা দিতে চাইছেন, আমি তোমাদেরই লোক।

    কোচবিহারের রাসমেলা মাঠে তখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জনসভা। কিন্তু, অমিত শাহ-কে নিয়ে একটি শব্দও খরচ করলেন না তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী। কিন্তু, নিশানা যে গেরুয়াশিবির, তা বুঝিয়ে দিলেন প্রতিটি কথায়। বললেন,  ‘আমাদের সরকার মাটিতে পা দিয়ে চলে ৷ উড়ে উড়ে চলে না ৷ হিন্দু ধর্ম কবে কার? তখন বিজেপি কি জন্মেছিল? এসেই বলছে সব ভাগাভাগি করে দাও ৷ বিবেকানন্দ, রামকৃষ্ণ আমাদের ধর্মগুরু ৷ বিজেপি-র কাছে হিন্দুত্ব শিখতে হবে না ৷ এরা শুধু আগুন লাগায়, মারামারি করে ৷’

    আরও পড়ুন

    বিজেপির মিশন বাংলা, অমিত শাহের নেতৃত্বে উত্তরবঙ্গের নকশালবাড়ি থেকেই শুরু হল বুথ ভিত্তিক প্রচার

    একসময়ের বামঘাঁটি উত্তরবঙ্গে বিজেপির এত বাড়বাড়ন্ত কী করে? এ নিয়ে বামেদেরই বিঁধেছেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী। ষাটের দশকে সিপিআই ও কংগ্রেসের জোট নিয়ে সিপিএমের দেওয়া স্লোগান তুলে এনে খোঁচা দিয়েছেন মমতা। বলেন, ‘ভোজনরসিক বাবুরা শুধু বড় বড় কথা বলছে ৷ দিল্লি থেকে এল রাম, সঙ্গে জুটল সিপিএম-বাম ৷ শুধু ধর্মের নামে সুড়সুড়ি দেওয়া এদের কাজ ৷ কোনও উন্নয়ন নেই ৷ শুধু গন্ডগোল বাধায় ওরা ৷ কেউ বিজেপি-কে সমর্থন করবেন না ৷ বাংলার মাটি দিল্লিকে পথ দেখায় ৷ দিল্লি বাংলাকে পথ দেখায় না ৷ এই মাটিতে জন্মে আমরা গর্বিত ৷ বাংলার সংস্কৃতি বিশ্বের বিস্ময় ৷ এখানে দাঁত বসাতে এলে, বাঘের দাঁতও ভাঙবে ৷’

    আরও পড়ুন

    ‘গরুর জন্য আধার কার্ড! এসব কী হচ্ছে?’, বিজেপিকে কটাক্ষ মমতার

    তৃণমূল কংগ্রেসের অভিযোগ, মাটি শক্ত করতে কোচবিহারেও পৃথক রাজ্যের দাবিকে ইন্ধন দিচ্ছে বিজেপি। সেই চাল ভেস্তে দিতে তাই শুরুতেই নেত্রীর উত্তরবঙ্গ সফর। মঙ্গলবার কামতাপুরী ভাষার স্বীকৃতি নিয়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানে যোগ দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজবংশীদের জন্য পৃথক উন্নয়ন পর্ষদের ঘোষণা করেন তিনি। একইসঙ্গে ওই মঞ্চ থেকেই বিজেপিকে নিশানা করেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী।

    First published: